এবার পাঠাও সাইক্লিস্ট হয়ে আয়ের সুযোগ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে জনপ্রিয় হয়ে ওঠা গাড়ি ও বাইক রাইড শেয়ারিং অ্যাপ ‘পাঠাও’ এবার সাইক্লিস্টদের জন্য নতুন সেবা এনেছে।

পাঠাও অ্যাপে এবার সাইক্লিস্টরা রেজিস্ট্রেশন করে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে টাকা আয় করতে পারবেন। তবে সেবাটি পাঠাও-এর আগে থেকেই থাকা কুরিয়ার ডেলিভারি সার্ভিসের মাধ্যমে পাওয়া যাবে।

ইতোমধ্যে পাঠাও ফ্রিল্যান্স সাইক্লিস্টেদের তাদের প্লাটফর্মে যুক্ত করার কাজ শুরু করেছে। এজন্য সাইক্লিস্টদের ভেরিফায়েড করে নিচ্ছে অ্যাপভিত্তিক দেশিয় রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠানটি।

প্রতিষ্ঠানটির মার্কেটিং ম্যানেজার সৈয়দা নাবিলা মাহাবুব টেকশহরডটকমকে বলেন, রাজধানীতে অনেকেই শখের বসে সাইকেল চালান। তারা চাইলেই এর মাধ্যমে বাড়তি কিছু টাকা আয় করতে পারেন। সাইক্লিস্টদের জন্য সেই সুযোগটাই তৈরি করছি আমরা।

তিনি জানান, পাঠাওয়ের ভেরিফায়েড সাইক্লিস্ট হয়ে আয় করতে হলে আমাদের প্লাটফর্মে নিবন্ধন করতে হবে। যেহেতু সাইকেলের কোনো লিগ্যাল ডকুমেন্ট নেই, তাই আমরা তাদের ভেরিফায়েড করতে কিছু প্রক্রিয়া অনুসরণ করছি।

নাবিলা মাহবুব জানান, সাইক্লিস্ট হিসেবে পাঠাওয়ে নিবন্ধনের জন্য অবশ্যই তার নিজের একটা সাইকেল এবং স্মার্টফোন থাকতে হবে। এছাড়াও তার জাতীয় পরিচয়পত্র থাকা আবশ্যক। শুধু সাইক্লিস্টের নয়, তার রেফারেন্স হিসেবে ভাই, বোন, বাবা অথবা মা’র জাতীয় পরিচয়পত্র থাকতে হবে।

এসব নিয়ে রাজধানীর পঞ্চম তলা, বাড়ি ৫২ (স্প্রিং ফ্লাওয়ার), রোড ২, চেয়ারম্যানবাড়ি, বনানী, ঢাকা-১২১৩, ঠিকানায় গিয়ে সাইক্লিস্টরা নিবন্ধন করে আসতে পারবেন।

এরপর তাদের একটি ট্রেনিং দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেই ট্রেনিংয়ের পরেই একটি কোড দিয়ে সাইক্লিস্টদের ভেরিফায়েড করা হবে।

ইতোমধ্যে সেই ট্রেনিং শুরু হয়ে গেছে। এই ট্রেনিং চলবে প্রতি রোববার থেকে বৃহস্পতিবার তিনটি স্লটে।

ফ্রিল্যান্সার হিসেবে পাঠাও সাইক্লিস্টরা প্রতি ডেলিভারিতে ৬০ টাকা করে পাবেন।

মূলত ডেলিভারি দিয়ে নিজেদের কার্যক্রম শুরু করে পাঠাও। এরপর ২০১৬ সালে এসে অ্যাপের মাধ্যমে তারা বাইক শেয়ারিং সেবা শুরু করে। চলতি বছর সেই সেবায় ব্যক্তিগত গাড়ি যুক্ত করে প্রতিষ্ঠানটি।

ইমরান হোসেন মিলন

২ টি মতামত

    • tahmina tania said:

      সাইক্লিস্ট হিসেবে পাঠাওয়ে নিবন্ধনের জন্য অবশ্যই নিজের একটা সাইকেল এবং স্মার্টফোন থাকতে হবে। এছাড়াও জাতীয় পরিচয়পত্র থাকা আবশ্যক। শুধু সাইক্লিস্টের নয়, তার রেফারেন্স হিসেবে ভাই, বোন, বাবা অথবা মা’র জাতীয় পরিচয়পত্র থাকতে হবে।এসব নিয়ে রাজধানীর পঞ্চম তলা, বাড়ি ৫২ (স্প্রিং ফ্লাওয়ার), রোড ২, চেয়ারম্যানবাড়ি, বনানী, ঢাকা-১২১৩, ঠিকানায় গিয়ে সাইক্লিস্টরা নিবন্ধন করে আসতে পারবেন। ভাল থাকবেন আর আমাদের সাথে থাকবেন ।

Leave a Reply to আনিস আহাম্মেদ Cancel reply

*

*

আরও পড়ুন