সুপারম্যানদের কারিগর বানাচ্ছেন মুক্তিযুদ্ধের অ্যানিমেশন ফিল্ম

ইমরান হোসেন মিলন, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে অ্যানিমেশন ফিল্ম তৈরি করছেন হলিউডের সুপারম্যানদের কারিগর ওয়াহিদ ইবনে রেজা।

ইতিমধ্যে ‌’সার্ভাইভিং ৭১‌- এ আনটোল্ড স্টোরি অব এন আননোন ওয়ার’ নামের এ ছবির কাজ শুরুর কথাও জানিয়েছেন বিখ্যাত অনেক ছবির অ্যানিমেশনের পেছনের এ কারিগর।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের বিশাল প্রেক্ষাপটকে অ্যানিমেশনের মতো বড় ক্যানভাসে তুলে আনতে ওয়াহিদ ইবনে রেজা বেশ কিছু কাজ করার কথাও জানিয়েছেন এক ফেইসবুক পোস্টে।

whaid I Reza

প্রথমে কয়েকটি ট্রেলার ও একটি স্বল্প দৈর্ঘ্য ফিচার ফিল্ম করবেন কানাডায় বসবাসকারী এ বাংলাদেশি। তার সঙ্গে নতুন এই ছবিতে আরেক বাংলাদেশি শরিফুল ইসলাম প্রোডাকশন ডিজাইনার হিসেবে কাজ করবেন বলে পোস্টে জানিয়েছেন ওয়াহিদ।

মুক্তিযুদ্ধকে কেন্দ্র করে যে অ্যানিমেশন ছবিটি ওয়াহিদ তৈরি করবেন সেটি তার বাবা মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক মন্ত্রী প্রফেসর রেজাউল করিমের জীবনীকে কেন্দ্র করে হবে বলে জানান তিনি। এটি তার কাছে তাই বিশেষ কিছু।

তিনি টেকশহরডটকমকে জানান, মুক্তিযুদ্ধের সময় তার বাবা ময়মনসিংহের টিচার্স ট্রেনিং কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন। সেখান থেকেই তার বাবাকে হানাদার বাহিনীরা ধরে নিয়ে যান। তবে তার বাবা পরে সেখান থেকে কৌশলে পালাতে সক্ষম হন। সেটাই থাকবে তার অ্যানিমেশন চলচ্চিত্রে।

এমন ছবির মধ্য দিয়ে দেশের জন্য যারা জীবন দিয়েছেন তাদের সম্মান দেখানো সম্ভব হবে বলে মনে করেন তিনি।

বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের মহান ওই সময়টাকে অ্যানিমেশনের মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলতে ওয়াহিদ এ চলচ্চিত্র নির্মাণে কাজ করতে বিশ্বের নামি কিছু শিল্পীর সঙ্গে আলোচনা করছেন। বেশ কিছু বিখ্যাত প্রোডাকশন হাউসের সঙ্গেও কথা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

নিজের কাজ দিয়ে স্বল্প সময়ে বেশ পরিচিতি পাওয়া এ বাংলাদেশি বর্তমানে হলিউডের সনি পিকচার্স ইমেজওয়ার্কসের এ অ্যাসোসিয়েট প্রোডাকশন ম্যানেজার।

তার কাজ করা ছবি ডক্টর স্ট্রেইঞ্জ ২০১৭ সালে অস্কার নমিনেশনে অ্যানিমেটেড ফিচার, অ্যানিমেটেড শর্ট ও ভিজুয়্যাল ইফেক্টস (ভিএফএক্স) ক্যাটাগরির ভিজ্যুয়্যাল ইফেক্টসে নমিনেশন পায়।

২০০৬ সালে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) থেকে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক শেষ করেন ওয়াহিদ। ফিল্ম প্রোডাকশন বিষয়ে পড়ার জন্য ২০১০ সালে ভর্তি হন কানাডায় ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায়। এখান থেকে গ্র্যাজুয়েশন শেষে ওয়াহিদ যোগ দেন অ্যানিমেশন স্টুডিও বার্ডেলে।
সেখানে কিছু কাজ করার পর তার চোখে পড়ে বিখ্যাত প্রতিষ্ঠান মুভিং পিকচার কোম্পানির (এমপিসি) নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। পরীক্ষা দিয়ে প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর হিসেবে কাজ করার সুযোগ পান এখানে। এর অংশ হিসেবে ‘ব্যাটম্যান ভার্সাস সুপারম্যান : ডন অব জাস্টিস’ ছবির প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর ছিলেন তিনি।
মার্ভেল এন্টারটেইনমেন্টের সঙ্গে মেথড ভিএফএক্স স্টুডিও যুক্ত থাকার সুবাদে ‘ক্যাপ্টেন আমেরিকা : সিভিল ওয়ার’ ও ‘ডক্টর স্ট্রেইঞ্জ’ ছবির ভিজ্যুয়াল টিমে ছিলেন তিনি।  এছাড়া এইচবিও চ্যানেলের সিরিজ ‘গেইম অব থ্রোনস’, হলিউডের ‘ফিউরিয়াস সেভেন’, ‘ফিফটি শেডস অব গ্রে’ ও ‘নাইট অ্যাট দ্য মিউজিয়াম : সিক্রেট অব দ্য টম্ব’ ছবির ভিজ্যুয়াল ইফেক্টস টিমেও কাজ করেছেন তিনি।

*

*