Header Top

বাল্য বিয়ের প্রমাণ দিল ফেইসবুক

টেক শহর কন্টেন্ট কাউন্সিলর : প্রাপ্তবয়ষ্কা হওয়ার আগেই বিয়ে করতে বাধ্য করা হয়েছে- এমন অভিযোগে বিচ্ছেদের জন্য আদালতে আবেদন করেন রাজস্থানি এক তরুণী। তবে তার স্বামী বিয়ের আলামত-প্রমাণ মুছে ফেলায় অভিযোগ প্রমাণ নিয়ে সংশয়ে পড়েন ওই তরুণী।

তবে শেষ পর্যন্ত সেই প্রমাণ দিয়ে দিল ফেইসবুক।

মাত্র ১২ বছর বয়সেই মেয়েদের বিয়ের পিঁড়িতে বসানোর বেআইনি এই প্রথা দীর্ঘদিন হতে চলে আসছে রাজস্থানের বর্মার জেলায়। যদিও বিয়ের পর অন্তত ১৮ বছর বয়স হবার আগ পর্যন্ত মেয়েরা বাবার সংসারেই অবস্থান করে। তবে এই নারীর ক্ষেত্রে ১২ বছর বয়সে বিয়ের পরপরই স্বামীর সংসারে যাওয়ার জন্য তার পরিবার চাপ দিতে শুরু করে।

‘আমি পড়াশোনা চালিয়ে যেতে চেয়েছিলাম, তার বদলে আমার বাবা মা ও শ্বশুর বাড়ীর সবাই আমাকে মদ্যপ স্বামীর সঙ্গে সংসার করতে বাধ্য করে’, বলেন বিস্নই নামক ওই তরুণী। তিনি আরও বলেন ‘ব্যাপারটি আমার কাছে জীবন-মরণ হয়ে দাঁড়ায়, আর আমি বেঁচে থাকাই বেছে নিয়েছি।’

এই ৪ অক্টোবর ভারতের সর্বোচ্চ আদালত বিয়ে হলেও ১৮ বছরের নিচের কোনো মেয়ের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ককে ধর্ষণ হিসেব অবিহত করে। আর এর ওপর নির্ভর করেই আদালতের কাছে বিয়ে ভাঙ্গার আবেদন করেন বিস্নই। বিয়ের প্রমাণ হিসেবে তিনি তার স্বামীর ফেইসবুক প্রোফাইলে থাকা সবার অভিন্দনমূলক বার্তা আদালতের সামনে পেশ করেন। আর আদালত তাই প্রমাণ ধরে বিয়ে বাতিল করে দেয়।

এএফপি অবলম্বনে এস এম তাহমিদ

*

*

আরও পড়ুন