Header Top

ক্ষুদে উদ্ভাবকদের হ্যাকাথনে সেরা ৪ প্রকল্প

Hakathon-BEF_Techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রযুক্তি উন্নত জীবন যাপন আরও সহজ করতে দেশে ক্ষুদ্রে প্রোগ্রামার ও উদ্ভাবকদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে তিন দিনের হ্যাকাথন ‘স্পেস অ্যাপস নেক্সট জেন’।

আর সেই হ্যাকাথন থেকেই উঠে এসেছে সেরা চারটি প্রকল্প। যেখানে উদ্ভাবনী ধারণা দিয়ে নির্বাচিত হয়েছে রাজধানী ও রাজধানীর বাইরের স্কুল কলেজ।

চারটি ভিন্ন বিভাগে বিজয়ী প্রকল্পগুলি হচ্ছে,  সার্চ বোট, আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজ (বেস্ট ইউজ অফ ডাটা ),  উত্তরা হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজের ফ্লোটিং সিটি  (মোস্ট ইন্সপাইরেশনাল), রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের অক্সোমাস্ক (বেস্ট মিশন কনসেপ্ট) এবং ফেনী সেন্ট্রাল হাই স্কুলের ইকো ফ্রেন্ডলি সোর্স অফ ইলেক্ট্রিসিটি এনার্জি (গ্যালাটিক ইমপ্যাক্ট)।

সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল এবং বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরামের যৌথ উদ্যোগে দেশে এমন আয়োজন প্রথম।

Hakathon-BEF_Techshohor

সারা দেশ থেকে চার শতাধিক প্রকল্প থেকে প্রথমে বুটক্যাম্পের মাধ্যমে ১০০টি বাছাই করা হয়। সেখান থেকে বিচারকদের রায়ে চূড়ান্ত হিসেবে ৩৫টি প্রকল্প নিয়ে হ্যাকাথন করে আয়োজকরা।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার। এছাড়াও স্পেস অ্যাপস নেক্সট জেনের প্রধান বিচারক রফিকুল ইসলাম রাওলিসহ স্পেস অ্যাপস নেক্সট জেনের মেনটর এবং বিচারকবৃন্দ।

রফিকুল ইসলাম রাওলি বলেন, আমাদের বাচ্চারা বিশ্বমানের প্রজেক্ট করে সারা বিশ্বে সাড়া ফেলতে পারবে যা এই বিচার করতে এসে আমি উপলব্ধি করতে পেরেছি।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, এমন উদ্ভাবনের মেলা দেখে আমি বিস্মিত। বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্ম বিশ্ব দরবারে আরও বিস্ময়কর উদ্ভাবনের দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে বলে আমরা আশা করি।

তিনি আরও বলেন, এমন মেধার মেলা এক নতুন অধ্যায়ের সৃষ্টি করেছে। সামনের দিনগুলিতে আরও অনেক উদ্ভাবনের দেখা পাওয়া যাবে বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন তিনি।

বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা আরিফুল হাসান অপু বলেন, আয়োজন এবার প্রথম হলেও আগামীতে প্রতি বছর তা করা হবে। আগামী অক্টোবর নাগাদ আবার এমন আয়োজন করা হবে বলেও তিনি জানান।

কয়েকটি ক্যাটাগরিতে প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের জন্য এই হ্যাকাথন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ইমরান হোসেন মিলন

আরও পড়ুন: 

*

*

আরও পড়ুন