অনলাইনে এল পোশাক খাতের ১৮ সেবা

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বস্ত্র ও পোশাক খাতের ১৮ ধরনের সেবা অনলাইনে আনা হয়েছে। ফলে সেবা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে এ খাতের উদ্যোক্তাদের সময়, অর্থ, ভ্রমন ও ভোগান্তি কমবে ।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাকসেস ‍টু ইনফরমেশন (এটুআই) এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের বস্ত্র পরিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগে এ কার্যক্রম চালু করা হয়। মঙ্গলবার ঢাকাস্থ জুট ডাইভারসিফিকেশন প্রমোশন সেন্টার (জেডিপিসি)-এর অডিটোরিয়ামে এ ই-সেবা ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী  ইমাজ উদ্দিন প্রামাণিক এতে প্রধান অতিথি ছিলেন। বিশেষ অতিথি  ছিলেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব এম এ কাদের সরকার, বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার মাসউদ আহমেদ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) ও এটুআই প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার।

বস্ত্র পরিদপ্তরের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বাংলাদেশের সব বস্ত্রকল এবং তৈরি পোশাক শিল্প কারখানাগুলোকে আইন অনুযায়ী বস্ত্র পরিদপ্তর থেকে বিভিন্ন প্রকার সেবা গ্রহণ করতে হয়। পূর্বে এসব সেবা পেতে হলে ঢাকাস্থ বস্ত্র পরিদপ্তরের প্রধান কার্যালয়ে এসে আবেদনপত্র সংগ্রহ করে সকল প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ জমা দিতে হত, যা ব্যবসায়ীদের জন্যে কষ্টসাধ্য একটি ব্যবস্থা।

unnamed-(3)

এখন অনলাইন সেবা (ই-সেবা) কার্যক্রম চালু হওয়ায় শিল্প উদ্যোক্তাগণ পোষাক কর্তৃপক্ষের সেবার জন্য দপ্তরে না এসে যেকোনো স্থান হতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র অনলাইনে আপলোড করে আবেদন করতে পারবেন। পাশাপাশি অনলাইনে সেবা ফিও জমা দিতে পারবেন। এতে আবেদন ট্রাকিং করার ব্যবস্থাও আছে। ফলে দেশের প্রায় নয় হাজার তৈরী পোশাক ও বস্ত্র শিল্প কারখানার উদ্যোক্তার ভোগান্তি  লাঘব হবে।

ইউএনডিপি এবং ইউএসএইড-এর কারিগরি সহায়তায় এটুআই প্রোগ্রামের সার্ভিস ইনোভেশন ফান্ডের মাধ্যমে বস্ত্রকল এবং তৈরি পোশাক শিল্প কারখানাগুলোর মালিকদের প্রতিষ্ঠান নিবন্ধনকরণসহ বস্ত্র পরিদপ্তরের ১৮ ধরনের সেবা অনলাইনে আনতে এই ই-সেবা ব্যবস্থাপনা সিস্টেম বাস্তবায়ন করা হয়।

আল-আমীন দেওয়ান

*

*

আরও পড়ুন