বাংলা প্রোগ্রামিং ভাষা পতাকা উন্মুক্ত

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : শৈশব থেকেই শিশুদের প্রোগ্রামিংয়ের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে উন্মুক্ত হলো বাংলা ভাষায় প্রোগ্রামিং ভাষা ‘পতাকা’। শনিবার জুমলাভিত্তিক ওয়েবসাইটের টেমপ্লেট নিমার্তা প্রতিষ্ঠান জুমশেপারের অফিসে এই ভাষাটি উন্মুক্ত করা হয়।

পতাকা মূল বাংলা ভাষায় একটি প্রোগ্রামিং ভাষা। এটি সহজাত বাক্যকে প্রোগ্রামিংয়ের ভাষায় প্রকাশ করবে। নবীনদের জন্য সহজ বাংলায় প্রোগ্রামিংয়ের ধারনা দেয়া ও প্রোগ্রামিংয়ের প্রতি প্রেরণা জাগিয়ে তোলাই পতাকার প্রাথমিক উদ্দেশ্য। কোড রিপোজিটরির এবং ছোটদের জন্য ভিজ্যুয়াল গেইমের মাধ্যমে প্রোগ্রামিং শিক্ষায় আগ্রহী করে তুলতে পতাকা তৈরি করা হয়েছে বলে জানান আয়োজকরা।

potaka-techshohor

এই উদ্যোগটি ডেভেলপ করেছেন টেলিনর হেলথের সিনিয়র সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার ইকরাম হোসেন। এটা বানাতে আমার লেগেছে প্রায় ৬ মাস। এই উদ্যোগটির সাথে আরও যুক্ত ছিলেন ওসমান গনি নাহিদ এবং রাকিব হাসান অমিয়।

ইকরাম হোসেন টেকশহর ডটকমকে জানান, সহজ ভাষায় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের মজার মাধ্যমে প্রোগ্রামিং শেখানোই পতাকার উদ্দেশ্য।

বাংলা ভাষায় পূর্বে চা স্ক্রিপ্ট নামের এ ধরণের প্রোগ্রামিং ভাষা তৈরি করেছিলেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের একদল শিক্ষার্থী।

চা স্ক্রিপ্ট থেকে পতাকার মূলত পার্থক্য কি? এই সম্পর্কে ইকরাম হোসেন টেকশহর ডটকমকে বলেন, চা স্ক্রিপ্ট অনেক ছোট করে একটা রিসার্স প্রজেক্ট হিসেবে শুরু করা হয়েছিল যেটা এখন নেই। ওটা শুধুমাত্র ইংরেজী সিনট্যাক্সগুলো বাংলায় করা হয়েছে। যেটা বাচ্চাদের বা নবীনদের কোন কাজে আসবে না। এদিকে পতাকার সিনট্যাক্সগুলো যখন পড়বেন তখন এটা একটা বাংলা বাক্য মনে হবে। এর পাশাপাশি গেইম থাকছে, ফলে মজার সাথে প্রোগ্রামিং করা যাবে।

potaka-techshohor (3)

তিনি আরও বলেন, পতাকায় যে কেউ গেইম লেভেল ডিজাইন করে সাবমিট করতে পারবে এবং বাকিরা এগুলো সমাধান বা পূর্ণাঙ্গ রুপ দেবে। কয়েকটা ক্লিক করেই একটা সুন্দর প্রোগ্রামিং সমস্যা (প্রবলেম) দিয়ে গেইম লেভেল বানিয়ে ফেলতে পারবে।

উল্লেখ্য, পতাকার বর্তমান সংস্করণে সকল ফিচার যুক্ত করা হয়নি। স্ট্যাবল রিলিজে নতুন অনেক কিছু যুক্ত হতে পারে।

সন্ধ্যায় জুমশেপারের অফিসে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন থিমবাকেটের হেড অফ আইডিয়াস হাসিন হায়দার, মাফিনার খান, আনাম আহমেদ, সুমন মোল্লা সেলিম প্রমুখ।

*

*

আরও পড়ুন