ইন্টারনেটের নামকরণের ক্ষমতা ছাড়ছে যুক্তরাষ্ট্র

WWW-Internet_techshohor

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যুক্তরাষ্ট্র নিশ্চিত করেছে যে তারা ইন্টারনেটের নামকরণের ক্ষমতা ছেড়ে দিতে চায়। এর ফলে ইন্টারনেট শাসনামলের প্রায় ২০ বছরের একছত্র আধিপত্যের অবসান হতে যাচ্ছে। আর এর মধ্য দিয়েই ইন্টারনেট কর্পোরেশন ফর অ্যাসাইনড নেইমস অ্যান্ড নাম্বারস (আইসিএএনএন) নামের অলাভজনক সংস্থা দায়িত্ব নিতে যাচ্ছে।

ইন্টারনেটের অন্যতম একটি হলো ডোমেইনের নামকরণ বা ডিএনএস। এটা কোনো ওয়েব ঠিকানা মনে রাখার একটি সহজ পদ্ধতি যেমন টেকশহর ডটকমের মতো সেবা। এই ডিএনএস ছাড়াও ওয়েবসাইটে প্রবেশ করা যায় তবে সেটি করতে গেলে ব্যবহারকারীকে একটি আইপি ঠিকানা মনে রাখতে হয়। আইপি ঠিকানা হয় এমন ১৯৪.৬৬.৪২.১০।

কিছু উদ্দেশ্যমূলক পরিস্থিতিতে সবসময় যুক্তরাষ্ট্র বলেছে কিভাবে এমন ঠিকানা নিয়ন্ত্রণ করা যায়। তবে সেটাও খুব বেশি দিনের কথা নয়।

Techshohor Youtube

WWW-Internet_techshohor
এখন পর্যন্ত এর একছত্র ক্ষমতা বজায় রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র তবে ইন্টারনেট কর্পোরেশন ফর অ্যাসাইনড নেইমস অ্যান্ড নাম্বারস (আইসিএএনএন) যা একটি অলাভজনক সংস্থা হিসেবে কাজ পেতে যাচ্ছে।

এটি বদলের জন্য ২০১৪ সালেই সম্মত হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র বলছে তখন প্রস্তুত না থাকায় আইসিএএনএন কাজ নিতে পারেনি । তবে এবার এই বদলের জন্য প্রস্তুত হয়েছে আইসিএএনএন।

আইসিএএনএন ‘রাজ্যের চাবিকাঠি’ পেতে ১ অক্টোবর থেকে একজন বিশেষজ্ঞ কাজ শুরু করবে।

সে দিন থেকেই যুক্তরাষ্ট্র ডোমেইনের নাম বদলের ক্ষমতা হারাতে যাচ্ছে। যদিও আইসিএএনএন লস অ্যাঞ্জেলসেই থাকবে।

তবে এই বদলের জন্য ব্যবহারকারীরা কোনো পার্থক্য বুঝতে পারবেন না। কারণ এর জন্য বেশ কয়েক বছর ধরে কাজ করে যাচ্ছে আইসিএএনএন।

তবে ইতোমধ্যে এর জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কিছু রাজনৈতিক ডোমেইন নাম বদলের ক্ষমতা যুক্তরাষ্ট্রের ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন। তারা বলছেন এর ফলে দেশের বেশকিছু ক্ষেত্রে নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়বে। এবং চীন ও রাশিয়ার জন্য জানালা খুলে দেওয়ার মতো হবে।

এই প্রস্তাবের ভিত্তিতে দেখা যাবে ইন্টারনেটে অন্যান্য দেশের ক্ষমতা বেড়ে যাবে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করে বেশ কয়েকজন সিনেটর চিঠিও দিয়েছেন যাদের মধ্যে সাবেক প্রেসিডেন্টও রয়েছেন।

তবে এতো কিছুর পরেও আইসিএএনএন এর উপর আস্থা রাখছে দেশটি।

বিবিসি অবলম্বনে ইমরান হোসেন মিলন

*

*

আরও পড়ুন