vivo Y16 Project

সনি এক্সপেরিয়া সি : ডিজাইনে পিছিয়ে, ক্যামেরায় এগিয়ে

Sony-Xperia-C_techshohor

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সনির এক্সপেরিয়া সিরিজের ফোনগুলো সাধারণত প্রিমিয়াম অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের জন্য। তাই এর ফোনগুলোর কনফিগারেশন ও স্পেসিফিকেশন উচ্চমানের হয়ে থাকে। ব্যতিক্রম হলো সনি এক্সপেরিয়া সি।

এটি সনির প্রথম মিডিয়াটেক প্রসেসরের ফোন এবং দক্ষিণ এশিয়ার বাজারের জন্য উপযোগী করে তৈরি। তাই দামও বেশ কম।

Sony-Xperia-C_techshohor

Techshohor Youtube

ডিজাইন
এক্সপেরিয়ার বিগ বাজেট ফোনগুলোর মতো নজরকাড়া ডিজাইন অবশ্য এর নেই। ডিজাইন সাধারণ হলেও ম্যাট ফিনিশিং এর কারণে ধরতে বেশ আরামদায়ক। ওজন ১৫৩ গ্রাম ও পুরুত্ব মাত্র ৮.৮ মিলিমিটার।

ডিসপ্লে
৫ ইঞ্চি প্রশস্ত পর্দার ডিসপ্লে রয়েছে, যা চার আঙ্গুলের মাল্টিটাচ সাপোর্ট করে। কিন্তু ডিসপ্লের রেজুল্যুশন কম, মাত্র ৫৪০*৯৬০ পিক্সেল। ফোনটির আশেপাশের প্রতিদ্বন্দ্বীরা একই দামে ফুল এইচডি ডিসপ্লে দিচ্ছে। পিপিআই মাত্র ২২০ হওয়ায় অ্যান্ড্রয়েডের উচ্চ গ্রাফিক্স উপভোগ করা থেকে অনেকে বঞ্চিত হবেন।

কনফিগারেশন
এতে মিডিয়াটেক চিপসেটের কোয়াডকোর ১.২ গিগাহার্জ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। গ্রাফিক্স প্রসেসর পাওয়ারভিআর এসজিএক্স৫৪৪।

ফোনটির র‍্যাম ১ গিগাবাইট। ইন্টারনাল মেমরি ৪ গিগাবাইট, বাড়ানো যাবে ৩২ গিগাবাইট পর্যন্ত। কানেক্টিভিটির মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড সব যোগাযোগ সুবিধা ও সেন্সর আছে। এ ছাড়া এফএম রেডিও তো আছেই।

ক্যামেরা
ফোনটি যারা কিনবেন, তারা সম্ভবত ক্যামেরার কারণেই কিনবেন। প্রধান ক্যামেরাটি ৮ মেগাপিক্সেল, সাথে এলইডি ফ্ল্যাশ রয়েছে। ফ্রন্টে ০.৩ মেগাপিক্সেল সেকেন্ডারি ক্যামেরা রয়েছে। ক্যামেরা দিয়ে ৩২৬৪*২৪৪৮ পিক্সেল রেজুল্যুশনের ছবি তোলা যাবে, ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও করা যাবে।

ছবির মান এক্সপেরিয়া সিরিজের অন্যান্য ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার মতোই; খুবই ডিটেইল ও নয়েজবিহীন।

পারফর্ম্যান্স
অ্যান্ড্রয়েড জেলি বিন ৪.২.২ এর অপারেটিং সিস্টেম। মিডিয়াটেক প্রসেসর অনেক ফোনে পারফর্ম্যান্স একটি ইস্যু থাকে, কিছুদিন রাফ ব্যবহারের পর ফোন স্লো হয়ে যায়। এক্সপেরিয়া সিতে এটা হওয়ার কথা নয়, বরং অনেক ভারী অ্যাপসও মসৃণভাবে চালানো যাবে।

ব্রাউজিং, গান শোনা, সিনেমা দেখা, ভিডিও চ্যাট ইত্যাদি কাজে কোনো অসুবিধা হবে। তবে গ্রাফিক্স আরও উন্নত হলে ও র‍্যাম বেশি হলে গেইম খেলে বেশ মজা পাওয়া যেত।

ব্যাটারি
২৩৩০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি এতে ব্যবহার করা হয়েছে। এটি দিয়ে টানা ১৪ ঘণ্টা কথা বলা যাবে।

দেশের বাজারে এর দাম ২১ হাজার টাকা।

এক নজরে ভালো
– সনির বিশেষ ক্যামেরা
– সন্তোষজনক পারফর্ম্যান্স
এক নজরে খারাপ
– দুর্বল ডিসপ্লে
– বিশেষ কোনো ফিচার নেই

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project