Techno Header Top and Before feature image

জুলাইয়ের মধ্যেই জনতা টাওয়ারে বসবে ১০ স্টার্টআপ

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : জুলাইয়ের মধ্যে রাজধানীর কারওয়ান বাজারের জনতা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে জায়গা পাবে কানেক্টিং স্টার্টআপস বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত ১০ উদ্যোক্তা দল।

ভবনটিকে এরই মধ্যে প্রস্তুত করতে সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ। ভবনটির অসম্পূর্ণ কাজ সম্পন্ন করতে ইতোমধ্যে টেন্ডার আহ্বান করেছে কর্তৃপক্ষ। চলতি মাসে টেন্ডার সম্পন্ন করে কাজ বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম বলেন, তিন মাসের মধ্যে কাজ সম্পন্ন করার সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। কাজ শেষ কররে আমরা জুন-জুলাইয়ের মধ্যেই কানেক্টিং স্টার্টআপস বাংলাদেশ থেকে নির্বাচিত দশ স্টার্টআপসকে এক বছরের জন্য বিনামূল্যে স্পেস হস্তান্তর করতে পারবো।

software park
মঙ্গলবার কানেক্টিং স্টার্টআপস বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সংবাদ সম্মেলনে এই কথা বলেন হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের এমডি হোসনে আরা বেগম।

জনতা টাওয়ারের ১২ তলা এই ভবনের চার তলায় মোট ছয় হাজার বর্গফুট জায়গা দেওয়া হবে ১০ স্টার্টআপকে। যারা এক বছর বিনামূল্যে সবধরনের সুবিধা পাবেন। আর মোবাইল ফোন অপারেটর বাংলালিংক নির্বাচিত স্টার্টআপদের জন্য অফিস স্পেসের ডেকোরেশন করে দেবে।

কানেক্টিং স্টার্টআপস বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় মোট আবেদন পড়েছে ৪৩৪টি। সেখান থেকে সেরা ১০ স্টার্টআপ ছাড়াও শীর্ষ ৫০ স্টার্টআপকে নার্সিং করবে আয়োজকরা। এছাড়াও অন্যান্য সব প্রতিযোগীদের বিভিন্নভাবে সহযোগিতার আশ্বাস দেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

software park
এক বছর পর ওই দশ স্টার্টআপের জায়গা কোথায় হবে জানতে চাইলে বেসিস সভাপতি ও ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালের পার্টনার শামীম আহসান এক বছরের মধ্যেই সেরা ১০ স্টার্টআপ স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে পারবে বলে মনে করে বলেন, তাদের স্বপ্ন দেখতে হবে তারা এক বছর পর হাইটেক পার্কে বড় পরিসরে অফিস স্পেস নিয়ে তাদের উদ্যোগতে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে পারবে।

বাংলালিংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এরিক অস্ বলেন, বাংলালিংক সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে ডিজিটাল ইনকিউবেশন সেন্টার তৈরি করছে। ওই সেন্টারে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা আইডিয়া ও স্টার্টআপসকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যেতে সহযোগিতা করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনের পর অংশগ্রহণকারীদের নিয়ে ‘হাউ টু বিকাম অ্যা উইনার’, ‘ফান্ড রাইজিং’ এবং ‘নেক্সট জেনারেশন মার্কেটিং’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিযোগিতাটি যৌথভাবে আয়োজন করেছে আইসিটি বিভাগ, বেসিস, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল।

আয়োজনে ইনকিউবেশন ও টেলিকম পার্টনার হিসেবে বাংলালিংক এবং অন্যান্য সহযোগী হিসেবে রয়েছে ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটাল, গ্যাপ এবং কিজকি।

পরে অংশগ্রহণকারীদের বিনামূল্যে বাংলালিংকের পক্ষ থেকে একটি করে সিম কার্ড দেওয়া হয়।

ইমরান হোসেন মিলন

*

*

আরও পড়ুন