vivo Y16 Project

লিঙ্কডইন থেকে চাকরি পাবেন যেভাবে

linkedin-network-techshohor

মোশাররফ রুবেল, অ্যাপ ডেভেলপার, অতিথি লেখক :  জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম লিঙ্কডইন। ফেইসবুক বা টুইটারের চেয়ে এটি কিছুটা ভিন্ন ধরনের। অনেকটা বিশেষায়িত সাইট এটি। ইতিমধ্যে পেশাজীবীদের জন্য দারুণ কার্যকরি হয়ে উঠেছে এটি ।

তাই পেশাদার কাজ পেতে এখনই লিঙ্কডইনে তৈরি করে ফেলতে পারেন নিজের প্রোফাইল। অনেক কোম্পানিতে বর্তমানে কাজ পেতে এ মাধ্যমে প্রোফাইল থাকা আবশ্যক করে তুলেছে।

চাকরি বিষয় পরিসংখ্যানের সাইট স্ট্যাটিসটার (statista) হিসেব অনুসারে বর্তমানে লিঙ্কডইন ব্যবহারকারী আছে প্রায় ৪০ কোটি। এত ব্যবহারকারী দুটি বিষয়ের ইঙ্গিত দেয়। একটি হচ্ছে আপনার এটি ব্যবহার করা উচিত, আরেকটি হচ্ছে এত ব্যবহারকারীর মাঝে যেন নিজেকে হারিয়ে না ফেলেন সেইদিকে খেয়াল রাখা।

Techshohor Youtube

পেশাজীবীদের জন্য সামাজিক নেটওয়ার্ক লিঙ্কডইনে কিভাবে চাকরি পেতে পারেন সেটি হচ্ছে মূল কথা। কিভাবে অন্যদের চেয়ে নিজেকে উপরে তুলে আনা যায়, আলাদা করা যায় সেটা নিয়ে ভাবতে হবে।

কিভাবে একটা চমৎকার লিঙ্কডইন প্রোফাইল তৈরি করতে হবে, জেনে নিন এখান থেকে।

linked-in-HMG-Creative

এক জরিপে দেখা গেছে ৭৭ ভাগ মানুষ লিঙ্কডইন ব্যবহার করে নিয়োগের আগে। যারা ইন্টারভিউ নেবেন তারাও প্রার্থীর সম্পর্কে জানতে এ সাইটে ঢু মারেন প্রোফাইলে। এ জন্য প্রথমে বুঝতে হবে লিঙ্কডইন- কি নিয়ে কাজ করে, কিভাবে কাজ করে।

লিঙ্কডইন কোম্পানি ও পেশাদারদের নিয়ে কাজ করে। এ কারণে এটি অন্যগুলোর চেয়ে আলাদা। ফেইসবুক ব্র্যান্ড ও কোম্পিানি এবং ব্যক্তির ব্যক্তিগত পরিচিতি, টুইটার আসন্ন ইভেন্ট ও ঘটে যাওয়া ঘটনা নিয়ে কাজ করে।

আগেই প্রার্থী সম্পর্কে জেনে নেওয়া গেলে তা নিয়োগদাতাকে সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করে। এতে প্রার্থীর দক্ষতা সম্পর্কে যেমন জানা যায়, তেমনি ইন্টারভিউ বোর্ডে সঠিক প্রশ্নও করা যায়।

২০১৩ সালে লিঙ্কডইন প্রায় ৫০০ কোটি বার সার্চ করা হয়েছে। আপনিও লিঙ্কডইন সার্চ ব্যবহার করে খুঁজে নিতে পারেন নিজের পছন্দের চাকুরী।

সার্চ করতে গেলে বাম দিকে ড্রপডাউনে মানুষ, চাকরি, কোম্পানি ইত্যাদি পছন্দ করে দিতে পারেন। তারপর আপনার প্রয়োজনীয় চাকরির জন্য কী-ওয়ার্ড ব্যবহার করুন এবং সার্চ করুন।

এখন ধরুন, আপনি লেখক হওয়ার জন্য লিঙ্কডইন সার্চ করলেন। আপনি টেকশহর ডটকমে লেখক নেওয়া হচ্ছে এমন ফলাফল পেলেন। এখন আপনি ওই চাকরির বিস্তারিত জানার সঙ্গে টেকশহর কি ধরনের কাজের জন্য লোক নেওয়া হচ্ছে তা দেখতে পারবেন।  অন্য কোন কোম্পানি লেখক নিচ্ছে কিনা, সেটাও দেখতে পারবেন।

এখানে চমৎকার একটা ব্যপার হচ্ছে ওই চাকরিতে আপনার পরিচিত কে কে কানেক্টেড আছে তাও দেখতে পাবেন। কিভাবে কানেন্ট আছে তাও দেখতে পারবেন।

এখন ধরুন আপনার পরিচিত কেউ একজন টেকশহরে ইতিমধ্যেই কাজ করছেন, যে আপনার স্কুলের বন্ধু। আপনি এখন তার রেফারেন্স নিয়ে যেতে পারার সুবিধাটা পাবেন।

নিজের অভিজ্ঞতা ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে লিঙ্কডইনে চাকরি পাওয়ার আরেকটি ভালো উপায়। ধরুন, আপনি কোথাও সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেছেন, সম্মেলনে বক্তৃতা দিয়েছেন, ওয়ার্কশপ করেছেন। সেগুলোর তথ্য ও ছবি যোগ করে দিতে পারেন আপনার অভিজ্ঞতার তালিকায়। এসব আপনার দক্ষতা তুলে ধরতে সহায়তা করবে।

লিঙ্কডইন গ্রুপ হচ্ছে পেশাদারদের জন্য আরও একটি চমৎকার জায়গা। সার্চ করে খুঁজে নিতে পারেন নিজের দরকারি গ্রুপ। গ্রুপে শেয়ার  হওয়া লেখা, ভিডিও বা দরকারি যে কোন কিছু দেখতে পারেন, পড়তে পারেন।

নিজেও শেয়ার করতে পারেন নিজের চিন্তা দর্শন ও অভিজ্ঞতা। অন্যদের প্রশ্নও করতে পারেন। যদি প্রশ্ন করেন সংক্ষেপে করাই ভালো এবং যারা প্রশ্নের উত্তর দেবেন অবশ্যই তাদেরকে সুচিন্তিতভাবে জানাতে হবে।

Marketing-Linkedin

কানেক্ট রিক্যুয়েস্ট পাঠিয়ে যুক্ত থাকতে পারেন সব ধরনের প্রফেশনালদের সঙ্গে। যোগাযোগ রক্ষার্থে মেসেজ পাঠাতে পারেন। যেমন, কোনো সেমিনারে কারো বক্তব্য ভালো লাগলে তাকে মেসেজ করে বলতে পারেন এবং চমৎকার বক্তৃতার শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানাতে পারেন। এভাবে বৃদ্ধি পাবে আপনার কানেকশান ও নেটওয়ার্ক।

রেকমেন্ডেশন ও অ্যান্ড্রসমেন্টস নিয়ে নিজের প্রোফাইলকে করতে পারবেন আরও সমৃদ্ধ, যা আপনাকে ভালো চাকরি খুঁজে পেতে আরও সহায়তা করবে।

একই সঙ্গে নিজের স্কিল যোগ করে নিতে হবে প্রথমে। ৫০টা পর্যন্ত স্কিল যোগ করতে পারেন। পরিচিতরা আপনাকে অ্যান্ড্রোসমেন্ট দিবে, যা কাজে লাগবে ভালো প্রোফাইল পেতে।

রেকমেন্ডেশনগুলো যুক্ত করতে পারেন প্রোফাইলে। বিশেষ করে আপনি যদি ফ্রিল্যান্স কাজ করেন- সেক্ষেত্রে ক্লায়েন্ট রিভিউ যুক্ত করতে পারেন।

চাকরি পেতে আরও একটি লিঙ্কডইন ফিচার হচ্ছে নেটওয়ার্কিং ই-মেইল। লিঙ্কডইন প্রিমিয়াম একাউন্টে আপগ্রেড করলে প্রতি বছর ১০টি পর্যন্ত নেটওয়ার্ক ই-মেইল করতে পারবেন।

যদি নেটওয়ার্কিং ই-মেইল করেন, সেক্ষেত্রে এটাকে সিম্পল রাখতে হবে। কি বলতে চাচ্ছেন তা পরিষ্কারভাবে বলতে হবে, সংক্ষেপে বলতে হবে।

লিঙ্কডইনে আপনি নিজেকে ভালোভাবে উপস্থাপন করে চাহিদা মতো কাজ বা চাকরি পেতে এসব বিষয় অনুসরণ করুন। শুধু বিশ্বের অন্যান্য স্থানে কাজ পেতে নয়, দেশেও এখন গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে এ মাধ্যমকে- বিশেষ করে করপোরেট হাউসগুলোতে। এ জন্য নিজের প্রোফাইল সিম্পল রেখে নিজেকে উপযোগী করে তুলে ধরলেই পাওয়া যাবে দরকারি চাকরি।

rubel

আও পড়ুন

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project