Header Top

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ তৈরি ও বেশি আয়ের ৬ বাধা

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর :  বর্তমানে কম্পিউটারের প্রায় সব সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে স্মার্টফোনে। সে কারণে স্মার্ট এ ডিভাইসের চাহিদাও বাড়ছে। স্মার্টফোনের মাধ্যমে সব কাজ সেরে ফেলা সম্ভব হচ্ছে বহুমুখী সব অ্যাপ্লিকেশনের কল্যাণে। এ জন্য ডেভেলপাররা তৈরি করছেন নানা অ্যাপ্লিকেশন। এগুলোর ব্যবহার বেশি বলে বাণিজ্যিকভাবে ডেভেলপারদেরও আয় বাড়ছে।

আর স্মার্টফোনের মধ্যে অপারেটিং সিস্টেমের ক্ষেত্রে অ্যান্ড্রয়েড বেশ এগিয়ে বলে ডেভলপাররাও এই ওএসে বেশি কাজ করছেন। এমন পরিস্থিতিতে সফলদের কাছ থেকে অনুপ্রেরণা পেয়ে অনেক নতুন ডেভেলপার মনে করেন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ তৈরি করে বিজ্ঞাপন থেকেই প্রচুর আয় করতে পারবেন। সে অনুযায়ী তারা কাজও শুরু করে দেন। তবে কিছুদিন পরেই এদের অনেকে হতাশ হয়ে যান।

অভিজ্ঞদের মতে এ বিষয়টা ভাবনায় যতটা সহজ, বাস্তবে ঠিক ততটা নয়। কেননা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ বানিয়ে সেটি থেকে আয় করা খুব সহজ নয়। এ জন্য সঠিক কোডিং ও প্রযুক্তিগত যেমন প্রয়োজন, তেমনি ভালো কিছু বানাতে পরিশ্রমও করতে হয়। তবে যদি সঠিক লক্ষ্য নির্ধারণ করে কেউ এগিয়ে যায় তাহলে কাজটা বেশ সহজ হবে।

নবীন ডেভেলপারদের কথা মাথায় রেখে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন তৈরি বা এ থেকে আয়ের প্রধান বাধাগুলো তুলে ধরতে এ প্রতিবেদন।

images

ভালো দল না থাকা
একটি আ্যাপ্লিকেশন বানাতে হলে নানা বিষয় বিবেচনা করতে হয়। অ্যাপের ডিজাইন, গ্রাফিক্স, কোডিং এবং মার্কেটিংসহ আরও অনেক কিছু। একজন ব্যক্তির পক্ষে সবগুলো একত্রে করা সম্ভব নয়।

তাই অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করতে হলে একটি ভালো দল থাকা প্রয়োজন। দলের সবাই টিম হিসেবে কাজ করলে দ্রুত সময়ে এবং নির্ভুলভাবে অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করা সম্ভব।

অ্যাপ্লিকেশনের গ্রাহক নির্ধারণ না করা
অ্যাপ্লিকেশন তৈরির আগে নির্ধারণ করতে হবে এটির গ্রাহক কারা। কাদের জন্য তৈরি করা হচ্ছে। যাদের জন্য তৈরি করা হবে অাদৌ তারা এটি ব্যবহার করবে কি-না, এসব বিষয় ভেবে দেখতে হবে।

অ্যাপটির বিষয়বস্তু, বর্তমান বাজারে চাহিদা আছে কি-না বা গ্রাহকদের কাছে কেমন সাড়া পাবে- তা আগেভাগেই গবেষণা করে দেখতে হবে। তা না হলে পুরো পরিশ্রমই পণ্ডশ্রম হতে পারে।

ভাল প্রোগ্রামার না থাকা
অ্যাপ তৈরি করতে হলে টিমে অবশ্যই ভালো প্রোগামার থাকতে হবে। কেননা কোডিং ছাড়া ভালো অ্যাপ্লিকেশন তৈরি সম্ভব নয়। যদিও কিছু থার্ডপার্টি অ্যাপের মাধ্যমে ভালো প্রোগ্রাম জানা না থাকলেও অ্যান্ড্রয়েডের ছোট ছোট অ্যাপ তৈরি করা যায়। তবে প্রোফেশনাল কাজের জন্য তা যথেষ্ট নয়। তাই দলে একজন ভালো প্রোগ্রামার থাকতে হবে।

AppMarketing101

ডিজাইনে ক্রিয়েটিভিটি না থাকা
অ্যাপ্লিকেশনটির ডিভাইস হতে হবে ক্রিয়েটিভ, সুন্দর এবং আকর্ষণীয়। যেন একজন ব্যবহারকারীর কাছে প্রথম দেখায় অ্যাপটি ভালো লাগে। বর্তমান সময়ে অ্যাপ্লিকেশন মার্কেট খুব দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। প্রতিনিয়ত তৈরি হচ্ছে দারুণ সব ডিজাইণের অ্যাপ। বিশাল এ মার্কেটে অ্যাপের অবস্থান ধরে রাখতে ডিজাইনে অবশ্যই ক্রিয়েটিভিটি থাকতে হবে।

আয়ের ভিন্ন মাধ্যম নিয়ে চিন্তা না করা
অ্যাপ থেকে আয়ের প্রধান মাধ্যম হলো বিজ্ঞপন। শুধু বিজ্ঞপন ছাড়া অন্য কোনো মাধ্যম থেকে আয় করা যাবে কি-না, সে বিষয়গুলো নিয়ে চিন্তাভাবনা এবং গবেষণা করতে হবে।

সঠিক মার্কেটিং না করা
কথায় আছে ‘প্রচারেই প্রসার’, তাই অ্যাপটি জনপ্রিয় করার জন্য মাকেটিং গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। তাই কষ্ট করে অ্যাপ্লিকেশন তৈরির পর সঠিকভাবে প্রচার চালাতে হবে। ঠিকভাবে প্রচার করা না গেলে অ্যাপটি গ্রাহকদের কাছে পৌঁছবে না। তাই অ্যাপ তৈরির পর কৌশলগতভাবেই প্রচারণা চালাতে হবে।

*

*

আরও পড়ুন