সনি ভাইও ফ্লিপ ১৪এ : কিবোর্ডে সমস্যা থাকলেও পারফর্মেন্সে ভালো

Evaly in News page (Banner-2)

আদনান নিলয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : হাইব্রিড ট্যাবলেটের মধ্যে সনি ভাইও’র মাল্টি ফ্লিপকে রীতিমতো সেরার কাছাকাছি বলা চলে। এই ১৪ ইঞ্চি ল্যাপটপের দাম একটু বেশি হলেও এর কোন দিকেই ত্রুটি পাওয়া যাবে না। তবে দামটা একটু বেশিই, ১ লাখ ২০ হাজার টাকা।

কোর আই ৩ ও ৪ জিবি র‍্যাম এবং কোর আই ৫ ও ৪ জিবি র‍্যামের ডিভাইসটি আরও কম দামি সংস্করণ বাজারে রয়েছে।

ডিজাইন
ডিভাইসের পুরো বডিতে সিলভার মেটাল ছড়ানো। সিলভার পছন্দ না হলে কালো রঙেরও একটা সংস্করণ রয়েছে, কিন্তু তা আবার সিলভারের মত দেখতে অতো আকর্ষণীয় নয়।
ডিভাইসটিকে যে কোনো সময় ডিসপ্লে ঘুরিয়ে ল্যাপটপ অথবা ট্যাবলেটে পরিবর্তন করতে পারেন। ঘুরানোটা বেশ স্মুথ। একবার ঘুরিয়ে ফেললে চুম্বক দিয়ে আটকে যাবে এবং সহজে নড়া-চড়া করবে না।

sony vaio flip 14a

ডিসপ্লে
এর ১৪ ইঞ্চির ডিসপ্লেটি অনেক রেস্পন্সিভ। রেজ্যুলেশন ১৯২০*১০৮০ যা ট্যাবলেটের জন্য খুবই ভালো। মিডিয়া আকর্ষণীয় হয়ে উঠবেই।
শার্পনেস ও কালার কম্বিনেশন দুটোই অসাধারণ। ইন্টারনেটে টেক্সট ও ইমেজ খুবই সুন্দরভাবে ফুটে উঠবে। দিনের আলোয় যদিও মাঝে মাঝে ভিউ আঙ্গেলে সমস্যা হতে পারে।

কিবোর্ড
কিবোর্ড ব্যাকলিট হওয়ায় সৌন্দর্য রয়েছে, কিন্তু টাইপ করায় তেমন আরাম নেই। কি-গুলো কাছাকাছি হওয়ায় একটা চাপতে আরেকটাতে চাপ পড়ে যায়।
টাচপ্যাড অনেক স্মুথ। শর্টকাট, টু-ফিঙ্গার স্ক্রোলিং ইত্যাদি ফিচারগুলো ব্যবহার করতে সমস্যা হয় না।

পারফর্মেন্স
১.৬ গিগাহার্জ কোর আই ৫ হওয়ায় গতিতে কোন অসুবিধা হবে না। ভারি সফটওয়্যার অথবা ব্রাউজারে অনেক ট্যাব খুলে রাখলেও গতি একই থাকবে। প্রতিদিনের কাজকর্মের পাশাপাশি গ্রাফিক এডিটিং এর মতো ভারি কাজ করা যাবে। হাই রেজ্যুলেশনের স্ক্রিনের কারণে এইচডি মুভি থেকে পুরো মজা পাবেন।
৮ জিবি র‍্যাম হওয়ায় গেমিং পারফর্মেন্সও ভালো। কিন্তু সর্বোচ্চ গ্রাফিক্সে ল্যাগ করতে পারে।
এতে ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্পেস থাকছে ডিফল্টভাবে।

sony vaio flip 14a 2

ব্যাটারি
বেশ দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফ আছে এতে, যা একদিন পর্যন্ত টিকতে পারে।

এক নজরে ভালো
– ভালো ডিসপ্লে
– দীর্ঘ ব্যাটারি
এক নজরে ভালো
– কিবোর্ডে টাইপ করতে অসুবিধে হয়

*

*

আরও পড়ুন