Techno Header Top and Before feature image

গুগলে চাকুরি পেলেন জাহাঙ্গীরনগরের শিক্ষার্থী

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েই শুনেছিলেন, বিভাগের এক বড় ভাই প্রযুক্তি জায়ান্ট গুগলে চাকরি করেন। সেই থেকে জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটিতে চাকরি করার স্বপ্ন দেখা শুরু করেন অনিন্দ্য মজুমদার। দীর্ঘ চার বছর পর তার সেই স্বপ্ন সত্যি হলো। ৫ অক্টোবর ক্যালিফোর্নিয়ার মাউনটেইনভিউয়ে গুগলের প্রধান কার্যালয়ে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেব যোগ দিতে যাচ্ছেন তিনি।

গতবছর গুগল একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। অনলাইনে আয়োজিত এই প্রতিযোগিতা ৪টি ধাপে সম্পন্ন হয়। এখানে মাত্র একটি ধাপে ভালো করতে পারলে আয়োজকরা প্রতিযোগীদের ইন্টারভিউ দেওয়ার সুযোগ দেয়।

চলতি বছর ৫ থেকে ৯ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গুগলের প্রতিনিধি দল ঐ প্রতিযোগিতায় যারা ভালো করেছেন তাদের ইন্টারভিউ নেয়। এতে অনিন্দ্য অংশগ্রহণের সুযোগ পান এবং ভালোও করেন। ফলে শুক্রবার দুপুর ১২ টায় গুগলের পক্ষ থেকে তাকে চাকরি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

Aninda Majumder

সার্চ জায়ান্ট গুগলে চাকরি পেয়েছেন এটা শোনার পর কেমন অনুভূতি হয়েছিলো আপনার? এই প্রশ্নের জবাবে তিনি টেকশহরডটকমকে জানান, আসলে এত দিনের লালিত একটি স্বপ্ন পূরণ হওয়ার অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী অনিন্দ্য। তার বাবা অজিত কুমার মজুমদার একই বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক।

নতুনদের অনিন্দ্যের পরামর্শ হলো, জীবনে বড় হতে হলে ক্রিয়েটিভ কিছু করতে হবে। পাঠ্য পুস্তক মুখস্থ করে পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করা যাবে, কিন্তু বড় কিছু আর করা হয়ে উঠবে না।

জীবনে ভালো কিছু করতে হলে লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা, সেমিনার , ওয়ার্কশপ এবং বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণ করার কথা জানান তিনি।

সম্প্রতি অনিন্দ্য মজুমদারের দল অ্যাসাসিনস ভারতের বিভিন্ন সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিযোগীদের পেছনে ফেলে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা এসিএম-আইসিপিসির অমৃতাপুরি সাইটে প্রথম রানার-আপ হয়েছেন। দলে আরও ছিলেন সুমন ভদ্র এবং নাফিস সাদিক।

*

*

আরও পড়ুন