দেশেও নজর কাড়তে চায় বিজনেস অ্যাপস স্টেশন

রসায়নের শিক্ষার্থী এক ফ্রিল্যান্সের সফল উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার গল্প বিজনেস অ্যাপস স্টেশন। দু’বন্ধু মিলে বিদেশি ক্রেতাদের বাজারে ব্যবসাসফল হলেও দেশি অ্যাপস নিয়ে করতে চান ভিন্ন কিছু। বিস্তারিত জানাচ্ছেন ফখরুদ্দিন মেহেদী

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়নে স্নাতক শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ থেকে এমবিএ (ফিনান্স) করেন মোবারক হোসাইন। চাকরির নিয়মের জালে না জড়িয়ে নিজেই উদ্যোক্তা হবার স্বপ্নে ছিলেন বিভোর। স্বপ্ন পূরণে কাজও করেছেন। তাইতো আজ উদ্যোক্তা হিসাবে সফলতার গল্প বলতে পারছেন।

স্বপ্নপূরণে নানা প্রতিকূলতার মুখে পড়েছেন। সেসব চ্যালেঞ্জে অবশ্য হাল ছেড়ে দেননি। জয়ী হয়ে এক সময় ঠিকই নিজেকে খুঁজে পেয়েছেন। বিজনেস অ্যাপস স্টেশন নিয়ে এগিয়ে চলেছেন।

10805741_10205427877166245_5519713505278579228_n

যেভাবে শুরু
আইবিএতে এমবিএ করার সময় এক সহপাঠীর পরামর্শে ফ্রিলান্সিং শুরু করেন মোবারক। সে সময় গাইডলাইন দেবার মতো তেমন কেউ না থাকায় অনেক অসুবিধার সম্মূখীনও হতে হয়েছে তাকে। তবে ইচ্ছা শক্তির জোরে নিজের দুর্বলতা ও সমস্যা ঠিকই কাটিয়ে উঠছেন। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।

অনলাইন মার্কেটপ্লেসে বিজনেস কনসালটেন্ট হিসেবে অনেকদিন ধরেই কাজ করছেন মোবারক। ফ্রিলান্সিংয়েও সফল ছিলেন। ২০১০ সালে ওডেস্কের র‌্যাংকিংয়ে সেরা বিশে ছিলেন তিনি। এরপর শুরু হয় তার উদ্যোক্তার হওয়ার পর্ব।

বন্ধু ও সহকর্মী মাহমুদ হাসান সানির সঙ্গে ২০১১ সাল থেকে অনলাইনের নানান বিষয় নিয়ে আলোচনা হতো তার। মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন মার্কেট সম্পর্কে দু’জনেরই ধারণাও যেমন ছিল, তেমনি আগ্রহও ছিল। তাই এ ব্যবসায় নামতে একম হন তারা। এভাবেই শুরু করেন বিজনেস অ্যাপ স্টেশন।

বিজনেস অ্যাপ স্টেশনের কাজ
নিজেদের উদ্যোগে নিয়ে এক সঙ্গে কাজ শুরু করেন তারা। প্রতিষ্ঠানের একটি বিজনেস মডেল দাঁড় করিয়ে দায়িত্ব ভাগ করে নেন দু’জনেই। মোবারক বিজনেস অপারেশন, সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং দেখভাল করার দায়িত্ব নেন। আর সানি প্রডাকশন টিমের দায়িত্ব দেন। এর পর অফিস নেন পান্থপথ কনসেপ্ট টাওয়ারে। শুরু হয় এক ফ্রিল্যান্সের উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার পথচলা।

1553523_10201851407704080_2131803273_o

অ্যাপ তৈরির জন্য ডিজাইনার ও ডেভেলপার ছাড়াও বিপননের জন্য আলাদা লোকও নিয়োগ করেন তারা।

মোবারক বলেন, “আমরা যে নিশ নিয়ে কাজ করি তা হলো বিজনেস অ্যাপস, বিজনেস প্রবলেম সল্যুশন।” আইওএস এবং অ্যান্ড্রয়েড প্লাটফর্মের মোবাইল অ্যাপ ডেভলপমেন্ট সার্ভিস দেয় তাদের প্রতিষ্ঠান।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়াসহ বিভিন্ন দেশে উদ্যোক্তাদের ব্যবসায়িক প্রয়োজনে মোবাইল অ্যাপস বানিয়ে দেন তারা।

বাংলাদেশের ইতিহাস মোবাইল অ্যাপে সংরক্ষণ করতে ‘ইতি বাংলাদেশ’ নামের একটি ফ্রি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপও আছে তাদের। এছাড়া নিজেদের পণ্যের মধ্যে আইওএস প্ল্যাটফর্মে ‘সান্তা লুক’ নামে একটা ফান অ্যাপ আছে।

প্রতিবন্ধকতা
মোবারক মনে করেন, সকল ব্যবসাতেই প্রতিবন্ধকতা আছে। নিজেদের ব্যবসার প্রক্রিয়াটা দাঁড় করানোটা একটা বড় চ্যালেঞ্জ। তা ছাড়া আন্তর্জাতিক ব্যবসা করতে কিছু ভৌগলিক সমস্যাও অনেক সময় অন্তরায় হয়েছে। এ ছাড়া দক্ষ জনশক্তি স্বাধীনভাবে মার্কেটপ্লেসে কাজ করার মানসিকতা থাকায় অনেক সময় কর্র্মীর অভাবে ভুগতে হয় বলে জানান তিনি।

10801525_10205410655605187_5742834310389293424_n

যেভাবে এগিয়েছেন
ব্যবসায়িক প্রক্রিয়ায় বিভিন্ন স্তরে ঝামেলা থাকার পরও শুরুতেও কিছু ভাল ক্লায়েন্ট পেয়ে যাওয়ায় এগিয়ে যেতে পেরেছে মোবারকের বিজনেস অ্যাপ স্টেশন।

সফলতা-ব্যর্থতা
নিজেকে সফল উদ্যোক্তা হিসাবে দাবি করেন না মোবারক। কেননা তরুন এ উদ্যোক্তা যে লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন তা যোজন যোজন দূরে। আর বাংলাদেশের সার্ভিস সেক্টরের উন্নয়নে মোবাইল অ্যাপ তৈরিতে এখনও তেমন অবদান না রাখতে পারার বিষয়টি তাকে পোড়ায় বলে জানান তিনি।

Screenshot_2

ভবিষ্যতে দেশকে নিয়ে অনেক পরিকল্পনা ও স্বপ্ন আছে বলে জানান তিনি।
তবে ব্যক্তিগত পর্যায়ে এবং ব্যবসা দাঁড় করানোর জন্য প্রাথমিক কিছু সফলতা লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছুতে সহায়ক বলে মনে করেন তরুন এ উদ্যোক্তা।

প্রচারণা

আন্তর্জাতিক ব্যবসার ক্ষেত্রে যেসব প্রমোশনাল এক্টিভিটিজ থাকা দরকার তার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়া এবং সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের জোর দেয়ার বিষয়টিও কাজে আসে।

তবে তার প্রচারণার ব্যপ্তির পেছনের বিষয় হলো অনেক দিন থেকে আন্তর্জাতিক মার্কেটে কাজ করার অভিজ্ঞতা। এ কারণে সেগুলো রেফারেন্স হিসেবেও নতুন কাজ আনতে ভূমিকা রাখছে বলে জানান মোবারক।

1620401_10100658192320015_5270822533243169954_n

আগামীর পরিকল্পনা
বর্তমানে দেশেও মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের ক্ষেত্রে তৈরি হচ্ছে। এ জন্য মোবারক বিদেশি কোম্পানির সঙ্গে দেশীয় অ্যাপ নিয়েও কাজ করার পরিকল্পনা নিয়েছেন। ইতোমধ্যে কয়েকটি দেশি কোম্পানির সঙ্গে আলোচনা চলছে বলেও জানান তিনি।

ভবিষতে যেখানে যেতে চান
অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির পাশাপাশি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডার হিসেবে তার প্রতিষ্ঠানের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায় চান মেবারক।

নতুনদের জন্য পরামর্শ
মোবারক মনে করেন আন্তর্জাতিক পণ্য তৈরির ক্ষেত্র হিসেবে বাংলাদেশ এখনও স্বয়ংসম্পূর্ণ নয়। তবে অনেকেই ঝুঁকি নিয়ে ভালো করেছেন। তাই ঝুঁকির পাশাপাশি নতুন উদ্যোক্তাদের সবধানতা অবলম্বন করার পরামর্শও দেন তিনি।

যোগাযোগ:
Business App Station
Concept Tower (3rd Floor)
Suite # 4H
68-69 Green Road (Pantha Path)
Dhaka
ওয়েব:
www.businessappstation.com
ইমেইল:
[email protected]

*

*

আরও পড়ুন