Header Top

প্রস্তুতি শেষে শুরুর অপেক্ষায় জাতীয় হ্যাকাথন

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : রাত ফুরালেই শুরু হচ্ছে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন নিয়ে সরকারের সবচেয়ে বড় আয়োজন জাতীয় হ্যাকাথন। ইতিমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ।

এবারের আয়োজনে নাগরিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ ১০টি সমস্যার সমাধান হাতের মুঠোয় দিতে উপায় খুঁজে বের করবেন দেশের তুখোড় সব প্রোগ্রামাররা। আর কার উদ্ভাবন কত নিখুঁত ও ইনোভেটিভ তাই নিয়ে চলবে প্রতিযোগিতা। এতে লড়বেন এক হাজার ৭৪৫ জন প্রোগ্রামার।

শনিবার রাজধানীর কাকরাইলস্থ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে ‘ভিশন ২০১২’ কর্মশালা দিয়ে শুরু হবে দুইদিনের এই জাতীয় হ্যাকাথন। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এর উদ্বোধন করছেন ।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সহকারি সচিব ও এই কর্মসূচীর ডেপুটি ডিরেক্টর আরএইচএম আলাওল কবির টেকশহরডটকমকে জানান, শনিবার সকাল ৮ টা থেকে রোববার রাত ৮ টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ৩৬ ঘন্টা এই হ্যাকাথন চলবে।

hackathon

তিনি জানান, অংশগ্রহণকারী প্রোগ্রামারদের জন্য প্রতিযোগিতার টেকনিক্যাল সাপোর্টসহ থাকা, রিফ্রেশমেন্ট, খাবারের সকল ব্যবস্থা সম্পন্ন করা হয়েছে। আশকরছি সূচারুরূপেই এই প্রতিযোগিতা শেষ হবে।

কোডাররা ৬ এবং ৭ ডিসেম্বর দুইদিনের এই হ্যাকাথনে টানা ৩৬ ঘন্টা নাগরিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের প্রটোটাইপ করবেন। মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের যে কোন প্ল্যাটফর্মে (অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস, ফায়ারফক্স ওএস) প্রতিযোগিরা তাদের আইডিয়া জেনারেশনের সুযোগ পাবেন।

দূনীর্তি, প্রশ্নফাঁস, সড়ক নিরাপত্তা, লঞ্চডুবি, যৌন হয়রানি, সেনিটেশন, যানজট, মাতৃস্বাস্থ্য, বলতে দ্বিধা এমন স্বাস্থ্যসমস্যা এবং সাইক্লোন ব্যাবস্থাপনার উপর সমস্যাগুলোর সমস্যার সমাধান খুজঁবেন প্রতিযোগিরা।

হ্যাকাথনে মোট ৩০৫টি দলে বিভক্ত হয়ে কাজ করবেন কোডারারা। প্রতি দলে ৫ জন করে সদস্য থাকবেন। প্রতিটি দলের জন্য মেন্টর ও ডোমেইন এক্সপার্ট হিসেবে দুজন গাইড থাকবেন।

হ্যাকাথনে ১০টি সমস্যার প্রত্যেকটির সমাধানের জন্য বিজয়ী দলকে মন্ত্রনালয়ের ইনোভেশন ফান্ড থেকে ২ লাখ টাকা করে পুরস্কার দেয়া হবে।

জাতীয় পর্যায়ে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন উন্নয়নে সচেতনতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি কর্মসূচি হিসাবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এই হ্যাকাথনের আয়োজক।

এ আয়োজন বাস্তবায়ন করবে মোবাইল অ্যাপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এমসিসি ও ইএটিএল। সহযোগিতায় রয়েছে গুগল ডেভেলপার গ্রুপ, নকিয়া, রবি, গ্রামীণফোন, টেলিটক, কিউবি, সিম্ফনি, উইন্ডোজ, বেসিস এবং ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারস ইনস্ট্রিটিউট।

আল আমীন দেওয়ান

*

*

আরও পড়ুন