কমিউনিটি ছাড়া ফ্রিল্যান্সিংয়ে উৎসাহ থাকে না

আন্তর্জাতিক অর্থ লেনদেনের প্রতিষ্ঠান পেওনিয়ারের এশিয়া-প্যাসিফিক প্রধান প্যাট্রিক ডি কোরসি। সম্প্রতি ঢাকা সফরকালে ফ্রিল্যান্সারদের সরব উপস্থিতির এক সম্মেলন অভিভূত করে তাকে। এসময় ফ্রিল্যান্সিংসহ বিভিন্ন বিষয়ে তার সাক্ষাৎকার নিয়েছেন ফখরুদ্দিন মেহেদী।

পেওনিয়ার ফোরাম ঢাকা আয়োজিত শুক্রবারের এ সম্মেলনে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য কাংখিত এক সেবার ঘোষণা দেন প্যাট্রিক। সম্মেলনে উপস্থিত ৭০০ ফ্রিল্যান্সার ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার সহজে অনলাইন আউটসোর্সিং থেকে আয়ের অর্থ নিজ ব্যাংক অ্যাকাউন্টে আনার এমন ঘোষণায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন।

নতুন এ সেবার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপেল্গস ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশের ক্লায়েন্টদের কাছ থেকে সরাসরি বাংলাদেশে নিজস্ব ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা আনতে পারবেন ফ্রিল্যান্সাররা।

Techshohor Youtube

10420336_10152530136778543_4518943512906920780_n

ওই অনুষ্ঠানে প্যাট্রিক এদেশের ফ্রিল্যান্সারদের প্রশংসা করেন। তিন বলেন, আউটসোর্সিংয়ে বাংলাদেশে ইমার্জিং মার্কেট। বিশ্বে এ খাতে দেশটির অবস্থান সপ্তম। আমরা ফি এবং অর্থ লেনদেনের জটিলতা ও বিলম্ব থেকে ফ্রিল্যান্সারদের মুক্তি দেয়ার প্রয়াস নিয়েছি।

প্যাট্রিক ডে কোরসির পড়াশুনা বেলজিয়ামের সলভে ব্রাসেলস স্কুল অব ইকোনোমিকস অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টে। কর্মজীবনে সোসাইটি ফর ওয়ার্ল্ডওয়াইড ইন্টারব্যাংক ফিন্যান্সিয়াল টেলিকমিউনিকেশনে (সুইফট) বিভিন্ন পদে তিনি কাজ করেছেন ব্রাসেলস, প্যারিস ও হংকংয়ে। মাস তিনেক আগে যোগ দেন পেওনিয়ারে।

দায়িত্ব নেওয়ার পর এ স্বল্পতম সময়ে বাংলাদেশ সফরে আসেন প্যাট্রিক। পেওনিয়ার ঢাকায় ফ্রিল্যান্সারদের জন্য সম্মেলনের আয়োজন করে। এদেশে অনলাইন পেশাজীবীদের একটি কমিউনিটি গড়ে তুলতেও কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি। এসব বিভিন্ন বিষয় নিয়ে টেকশহরডটকমের সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি। আলাপচারিতার উল্লেখযোগ্য অংশ তুলে ধরা হলো।

টেক শহর : পেওনিয়ার সম্পর্কে কিছু বলুন।

প্যাট্রিক ডি কোরসি : মাস্টারকার্ডের মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে অনলাইন পেশাজীবীদের অর্থ লেনদেন নিয়ে কাজ করে পেওনিয়ার। বিশ্বের বড় বড় মার্কেটপ্লেসগুলোর সঙ্গে আমাদের চুক্তি আছে। অনলাইন পেশাজীবীরা আমাদের কাছ থেকে কম খরচে সেবা পেয়ে থাকেন।
এ ছাড়া ছোট ছোট উদ্যোগ, যেমন- ই-ট্রেইলার, ই-মার্চেন্টদের নিয়েও কাজ করে পেওনিয়ার।

বিশ্বের ২০০টিরও বেশি দেশের ৯০টি মুদ্রায় এ সেবা বিস্তৃত। সার্বক্ষণিক সেবা দিতে কাজ করছেন চার শতাধিক কর্মকর্তা। ১ হাজার ৭০০ এরও বেশি কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে রয়েছে ব্যবসায়িক সম্পর্ক।

টেক শহর : বাংলাদেশী পেওনিয়ার অ্যাকাউন্টধারী ফ্রিলান্সারদের জন্য নতুন সেবা সম্পর্কে বলুন।

প্যাট্রিক ডি কোরসি : এ দেশের পেওনিয়ার অ্যাকাউন্ট ব্যবহারকারীরা এখন থেকে যে কোনো ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে তাদের টাকা তুলতে পারবেন। এর মধ্যস্থতা করবে ব্যাংক এশিয়া। এ নিয়ে ব্যাংকটির সঙ্গে আমাদের চুক্তি হয়েছে।

এ সেবার জন্য গ্রাহকদের স্থানীয় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট যোগ করতে হবে। মূলত ফ্রিলান্সারদের ভোগান্তি কমাতে এবং বিলম্বে টাকা পাওয়ার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দিতে সেবাটি নিয়ে আসা হয়েছে।

টেক শহর : পেওনিয়ার ব্যবহার নিয়ে ফ্রিলান্সারদের বাড়তি ব্যয়ের অভিযোগ আছে। এ বিষয়ে কিছু বলুন?

প্যাট্রিক ডি কোরসি : আগে অনেকগুলো ধাপ পেরিয়ে টাকা পেতে হতো। এখন আর ঝামেলা পোহাতে হবে না। নামমাত্র মূল্যেই এখন থেকে সেবা পাবেন ফ্রিলান্সাররা।

1441553_10152530138008543_1248753451328922139_n

টেক শহর : বাংলাদেশে পেপ্যাল নেই। পেওনিয়ার কি পেপ্যালের জায়গা নিতে পারবে?

প্যাট্রিক ডি কোরসি : পেওনিয়ার তুলনামূলক সহজ সেবা দিয়ে থাকে। ফ্রিলান্সাররা তাদের আয় করা টাকা প্রিপেইড কার্ড অথবা সরাসরি ব্যাংক থেকে লেনদেন করতে পারেন। বিশ্বের আরও অনেক দেশের মতো এখানেও পেওনিয়ার প্রধানতম প্রতিষ্ঠান হিসেবে সেবা দিয়ে আসছে।

সুতরাং বলার অপেক্ষা রাখে না, পেওনিয়ার শূণ্যতাটা অনেক আগে থেকেই পূরণ করছে।

টেক শহর : এ দেশে অনলাইন পেশাজীবীদের বিষয়ে আপনার মতামত?

প্যাট্রিক ডি কোরসি : ইলান্স-ওডেস্ক বাংলাদেশে ৭ম স্থানে আছে। সুতরাং এটা বলাই যায় যে, এখানকার বাজার সবার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এখানে এক ঝাঁক তরুণ ফ্রিলান্সিং করছেন। আন্তর্জাতিক পর্যায়েও এদের খুব গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হয়।

এ দেশের ফ্রিলান্সাররা তাদের সৃষ্টিশীলতা দিয়ে ক্লায়েন্টদের মন জয় করেছেন। আমি বিশ্বাস করি, এদের মধ্য থেকেই একটা বড় অংশ উদ্যোক্তা হিসাবে একদিন আত্মপ্রকাশ করবে। এটা বাংলাদেশের জন্য সত্যিকার অর্থেই ইতিবাচক ভবিষ্যতের ইঙ্গিত।

টেক শহর : এ দেশের ফ্রিলান্সারদের জন্য আপনার পরামর্শ?

প্যাট্রিক ডি কোরসি : কঠিন পরিশ্রমই সবসময় সফলতা এনে দেয়। দেশের তরুণ ফ্রিলান্সারদের জন্য পরামর্শ হলো শরীরে জোর থাকতে এর সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে হবে। নতুন চিন্তা ও উদ্ভাবনের মাধ্যমে নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে হবে। বিশ্ব তোমারদের কাছ থেকে শিখবে।
এ ছাড়া, মার্কেটপ্লেস যেহেতু খুবই পরিবর্তনশীল এক জায়গা, সে কারণে সকল ট্রেন্ড সম্পর্কে স্টাডির মাধ্যমে ধারণা নিয়ে রাখতে হবে।

টেক শহর : ফ্রিলান্সারদের জন্য কমিউনিটি গড়ে তোলাকে কতটা জরুরি বলে মনে করেন?

প্যাট্রিক ডি কোরসি : ফ্রিলান্সারদের কমিউনিটি থাকা খুব জরুরি। এর মাধ্যমে একে অপরের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখা যায়। অনেক সময় ছোটখাটো আইডিয়া শেয়ারিংয়ের মাধ্যমে অনেক বড় উদ্ভাবনের সুযোগ তৈরি হবে।

তা ছাড়া একটা খাতে যদি কমিউনিটি না দাঁড়ায় তবে কাজ করার উৎসাহ থাকে না। মূলত কমিউনিটি তৈরির লক্ষেই অন্যান্য দেশের মতো ঢাকায়ও পেওনিয়ার ফোরামের এ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। আমার ফ্রিলান্সারদের উৎসাহ দিতে চাই।

*

*

আরও পড়ুন