জাতীয় মোবাইল হ্যাকাথনে লড়বে ১৭৪৫ প্রোগ্রামার

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন নিয়ে জাতীয় হ্যাকাথনের বাকী আর মাত্র কয়েক দিন। সরকারি আয়োজনে দেশের সবচেয়ে বড় এই হ্যাকাথন শুরু হচ্ছে শনিবার।

রাজধানীর কাকরাইলস্থ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারস ইনস্ট্রিটিউটে দুইদিনের এই জাতীয় হ্যাকাথনের উদ্বোধন করবেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

এবারের আয়োজনে নাগরিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ ১০টি সমস্যার সমাধান হাতের মুঠোয় দিতে উপায় খুঁজে বের করবেন দেশের তুখোড় সব প্রোগ্রামাররা। আর কার উদ্ভাবন কত নিখুঁত ও ইনোভেটিভ তাই নিয়ে চলবে প্রতিযোগিতা। এতে লড়বেন এক হাজার ৭৪৫ জন প্রোগ্রামার।

HACKTHON-BANNER-WELLOW-04

জাতীয় পর্যায়ে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন উন্নয়নে সচেতনতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি কর্মসূচি হিসাবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এই হ্যাকাথনের আয়োজক।

বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে সমস্যাগুলো সমাধানের পথ বেরিয়ে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেন। এটি দেশের তরুনদের মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে আগ্রহ তৈরি করবে জানিয়ে ফেইসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। তিন সবাইকে এতে অংশ নেওয়ার মাধ্যমে সমস্যা চিহ্নিত করা ও এগুলোর সমাধানে নতুন কিছু করার আহবান জানিয়েছেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সহকারি সচিব ও এই কর্মসূচীর ডেপুটি ডিরেক্টর আরএইচএম আলাওল কবির টেকশহরডটকমকে জানান, ৬ এবং ৭ ডিসেম্বর দুইদিনের এই হ্যাকাথনে কোডারা টানা ৩৬ ঘন্টা নাগরিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের প্রটোটাইপ করবেন। মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের যে কোন প্ল্যাটফর্মে (অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস, ফায়ারফক্স ওএস) প্রতিযোগিরা তাদের আইডিয়া জেনারেশনের সুযোগ পাবেন।

তিনি বলেন, দূনীর্তি, প্রশ্নফাঁস, সড়ক নিরাপত্তা, লঞ্চডুবি, যৌন হয়রানি, সেনিটেশন, যানজট, মাতৃস্বাস্থ্য, বলতে দ্বিধা এমন স্বাস্থ্যসমস্যা এবং সাইক্লোন ব্যাবস্থাপনার উপর সমস্যা দেয়া হবে । হ্যাকাথনে এসব সমস্যার সমাধান খুজঁবেন প্রতিযোগিরা।

হ্যাকাথনে মোট ৩০৫টি দলে বিভক্ত হয়ে কাজ করবেন কোডারারা। প্রতি দলে ৫ জন করে সদস্য থাকবেন। প্রতিটি দলের জন্য মেন্টর ও ডোমেইন এক্সপার্ট হিসেবে দুজন গাইড থাকবেন।

হ্যাকাথনে ১০টি সমস্যার প্রত্যেকটির সমাধানের জন্য বিজয়ী দলকে মন্ত্রনালয়ের ইনোভেশন ফান্ড থেকে ২ লাখ টাকা করে পুরস্কার দেয়া হবে।

এই আয়োজন বাস্তবায়ন করবে মোবাইল অ্যাপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এমসিসি ও ইএটিএলস। এছাড়া সহযোগিতায় রয়েছে গুগল ডেভেলপার গ্রুপ, নকিয়া, রবি, গ্রামীণফোন, টেলিটক, কিউবি, সিম্ফনি, উইন্ডোজ, বেসিস এবং ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারস ইনস্ট্রিটিউট।

হ্যাকাথন বিশ্বজুড়ে ম্যারাথন কোডিং ইভেন্ট হিসেবে পরিচিত। হ্যাকাথনে ডেভেলপাররা তাদের দক্ষতা তুলে ধরার সুযোগ পান ।


ফখরুদ্দিন মেহেদী

আরও পড়ুন:

*

*

আরও পড়ুন