vivo Y16 Project

সনি জেড ৩ : আকারে বাড়লেও আপগ্রেড কম

আদনান নিলয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ৪.৬ ইঞ্চির জেড ৩ কম্প্যাক্ট  ও ৫.৩ ইঞ্চির জেড ৩ স্মার্টফোনের পরে এবারই প্রথম ৮ ইঞ্চি ট্যাবলেট নিয়ে বাজারে প্রবেশ করলো সনি। অ্যাপলকে অনুসরণে প্রস্তুত এই ৮ ইঞ্চি ট্যাবলেটের উদ্দেশ্য একটাই- সরাসরি  আইপ্যাড মিনি ও গুগল নেক্সাস ৭ কে টেক্কা দেওয়া।

ডিজাইন
ট্যাবটির ডিজাইন অনেকটা জেড ডিভাইসের মতই। স্টাইলিশ, সলিড ও ওয়াটারপ্রুফ। পেছনের প্লাস্টিকের তৈরি বডি হ্যান্ডসেটটিকে ভাঙ্গার সম্ভাবনা থেকে দূরে রাখবে, কিন্তু স্ক্র্যাচ পড়বে খুব সহজে। তবে ওপর দিকে ওজন যথেষ্ট হাল্কা, তাই বয়ে বেড়াতে কোন সমস্যাই হবে না।

xperia-z3-tablet

Techshohor Youtube

ডিসপ্লে
১২০০*১৯২০ পিক্সেল রেজ্যুলেশন  ও ২৮৩ পিপিআই-এর ডিসপ্লে। সংখ্যাটা অনেকটা স্মার্টফোন মানের, তবে আইপ্যাড মিনি’র থেকে তা কম হলেও এলসিডি স্ক্রিন ও বড় পরিসরের ভিউ অ্যাঙ্গেলের কারণে সেটা বোঝা যায় না।  মুভি, গেমিং, নেট ব্রাউজিং, সব কিছুই যথেষ্ট স্বচ্ছ দেখা এই ডিসপ্লে।

সফটওয়্যার
অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে যথারীতি থাকছে স্টক অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.৪ কিটক্যাটের উপর সনির নিজস্ব ইন্টারফেস। ছোটখাটো কিছু পরিবর্তন ছাড়া সব কিছুই প্রায় আগের মতই রাখা হয়ছে।

ক্যামেরা
ক্যামেরা জেড ৩ এর মত শক্তিশালী নয়, তবে পেছনের ৮ মেগাপিক্সেল ও সামনের ২.২ মেগাপিক্সেল অবশ্যই কাজ চালাবার মত। যদিও অনেক ক্রেতার অভিযোগ, ফ্ল্যাশ নেই বলে ছবি অন্ধকার হয়ে যায়।

কনফিগারেশন ও পারফরম্যান্স
কনফিগারেশনের দিক দিয়ে মোটেই দূর্বল নয় ট্যাবটি। ২.৫ গিগাহার্জের স্ন্যাপড্রাগন  ৮০১ কোয়াডকোর প্রসেসরের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ৩ জিবি র‍্যাম। সব ধরনের বড় বড় কাজসহ অ্যাপস ও গেমস নির্বিঘ্নে চালানো যাবে। ইন্টারনাল ১৬ জিবি স্পেস মেমোরি কার্ড বাড়ানো যাবে সর্বোচ্চ ১২৮ জিবি পর্যন্ত।

Sony_Xpeira_Tablet

প্লেস্টেশন ৪ কম্প্যাটিবিলিটি
ভুলে যান অ্যাংরি বার্ডস, রিয়েল রেসিং ৩ এর গ্রাফিক্স। এই ট্যাবটির রিমোট প্লে ফিচার আপনাকে খেলতে দেবে প্লেস্টেশন ৪ এর সব গেইমস! তার জন্য অবশ্যই প্লেস্টেশন ৪ থাকা লাগবে। প্লেস্টেশন ভিটা দিয়েও ফিচারটির সুযোগ নেয়া যাবে।

ব্যাটারি
৪৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি লাইফ আইপ্যাড মিনির থেকে কিছু কম হলেও একেবারে হতাশ করে না। আপনি গেমার হলে দিনের মাঝখানে চার্জ দিতে হতে পারে, তা বাদে পুরো দিন টানতে কোন সমস্যা হবে না।

এক নজরে ভালো

–   হাই কোয়ালিটি ডিসপ্লে

–   শক্তিশালী কনফিগারেশন, পারফর্ম্যান্স

–   ব্যাটারি ব্যাকআপ বেশ ভালো

এক নজরে খারাপ
–   জেড২ ট্যাব থেকে তেমন বড় আপগ্রেড নয়

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project