vivo Y16 Project

লেনোভো বি৪০৭০ : স্ক্রিনের দুর্বলতা ছাড়া সস্তায় ভালো কনফিগারেশন

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাংলাদেশে একটা শ্রেণীর কাছে লেনোভোর ল্যাপটপের চাহিদা তুলনামূলক কম। কিন্তু কম দামে ল্যাপটপ কিনতে আগ্রহীদের কাছে এর চাহিদা ব্যাপক। এরা কনফিগারেশনের দিক থেকে আকর্ষণীয় লেনোভোর বেসিক লেভেলের ল্যাপটপ বেছে নিয়ে থাকেন বেশি। লেনোভোর আইডিয়াপ্যাড বি৪০৭০ এমনই একটি মডেল।

ডিজাইন
এটি এন্ট্রি লেভেলের নোটবুকগুলোর মতোই সাধারণ চেহারার। কালো প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি, পলিশ্‌ড ফিনিশিং। ওজন আড়াই কেজির মতো।

lenovo-b4070

Techshohor Youtube

ডিসপ্লে
এর ডিসপ্লের আকার ১৪.১ ইঞ্চি। এইচডি এলইডি ডিসপ্লের রেজুল্যুশন ১৩৬৬*৭৬৮ পিক্সেল। স্ক্রিনের ওপর ওয়েবক্যামও রয়েছে।

কানেক্টিভিটি
ওয়াইফাই, ব্লুটুথ ছাড়াও এর পোর্টের মধ্যে আছে একটি ইউএসবি ৩.০, দু’টি ইউএসবি ২.০, এইচডিএমআই, ইথারনেট, হেডফোন জ্যাক ও কার্ড রিডার। সাথে ডিভিডি রাইটারও রয়েছে। তবে টাচপ্যাড কি-বোর্ড সাধারণ মানের, কাজ চলার মতো।

কনফিগারেশন
এর প্রসেসর ইন্টেল কোর আই৩, মডেল ৪০১০ইউ। প্রসেসরের ক্লকস্পিড ১.৭০ গিগাহার্জ। সাথে আছে ৪ জিবি র্যা ম ও ৫০০ জিবি হার্ডডিস্ক। গ্রাফিক্স কার্ড বিল্ট-ইন, ইন্টেল এইচডি ৪৪০০।

পারফর্ম্যান্স
চতুর্থ প্রজন্মের প্রসেসর থাকায় এর থেকে মোটামুটি ভালো মানের পারফর্ম্যান্স আশা করা যায়। যেকোনো অফিসের প্রতিদিনের কাজ বা পড়াশোনার কাজে স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যবহার করা যাবে। ইন্টারনেট ব্রাউজিং, গান শোনা, মুভি দেখা ইত্যাদি মাল্টিমিডিয়ার কাজেও ব্যবহার করা যাবে।

এক্ষেত্রে অবশ্য স্ক্রিন রেজুল্যুশন নিয়ে কিছুটা সমস্যা হবেই, এটা আরেকটু উন্নত হলে ভালো হতো। বিল্ট-ইন গ্রাফিক্স দিয়ে তেমন ভালো গেইমিং পারফর্ম্যান্স পাওয়া যাবে না। তবে ছোটোখাটো ইন্ডি ধাঁচের গেইম বা আগের গেইমগুলো খেলা যাবে।

ব্যাটারি
এর চার সেলের ব্যাটারি সাধারণ ব্যবহারে পাঁচ ঘণ্টার মতো ব্যাকআপ দেবে।

দাম
বর্তমানে নোটবুকটি পাওয়া যাচ্ছে ৩৮ হাজার টাকায়।

এক নজরে ভালো
– উন্নত কনফিগারেশন, চতুর্থ প্রজন্মের প্রসেসর
– সব রকম কানেক্টিভিটি

এক নজরে খারাপ
– স্ক্রিনের মান তেমন ভালো নয়

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project