vivo Y16 Project

ওয়ালটনের প্রিমো এফথ্রি : কম দামে উন্নত কনফিগারেশন

walton primo f3_techshohor

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ওয়ালটন সম্প্রতি বাজারে এনেছে মাঝারি দামের অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন প্রিমো এফথ্রি। দেখতে আকর্ষণীয় ও ভালো কনফিগারেশনের পাশাপাশি দাম হাতের নাগালে থাকায় ইতোমধ্যে ফোনটি অনেকের পছন্দের তালিকায় স্থান পেয়েছে।

ভালো মানের ডিসপ্লে

প্রিমো এফথ্রিতে আছে ৪.৫ ইঞ্চির আইপিস ডিসপ্লে, যার রেজুল্যুশন ৪৮০*৮৫৪ পিক্সেল ও প্রতি ইঞ্চিতে পিক্সেল সংখ্যা ২১৮। অর্থাৎ এ দামের মধ্যে এর চেয়ে ভালো ডিসপ্লে ফোন পাওয়া যাবে না তা নিদ্বিধায় বলা যায়। এর প্রধান ক্যামেরাটি ৫ মেগাপিক্সেল, যা দিয়ে ছবির পাশাপাশি ৭২০ পিক্সেলে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

Techshohor Youtube

walton primo f3_techshohor

সেকেন্ডারি ভিজিএ ক্যামেরা

ওয়ালটনের প্রিমো সিরিজের বেশিরভাগ সেটেই মোটামুটি সন্তোষজনক ক্যামেরা পাওয়া গেছে। এর ক্যামেরাটিও ব্যতিক্রম হবে না সম্ভবত। তবে ক্যামেরার অপশনগুলো আরও বিস্তৃত করলে অনেক ইউজারের প্রত্যাশা মিটত। এ ছাড়া ভিডিও চ্যাটের জন্য সেকেন্ডারি ভিজিএ ক্যামেরা আছে।

শক্তিশালী গ্রাফিক্স প্রসেসর

ফোনটির ভেতরে রয়েছে ডুয়াল কোর ১.৩ গিগাহার্জ প্রসেসর। তবে কোন কোম্পানির প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে তা জানানো হয়নি বিবরণীতে। এর গ্রাফিক্স প্রসেসরটি বেশ শক্তিশালী, মালি-৪০০। স্যামসাং এর গ্যালাক্সি সিরিজের বেশ কিছু স্মার্টফোনে এ জিপিইউ ব্যবহার করা হয়েছে। আরও রয়েছে ৫১২ মেগাবাইট র‍্যাম, ৫১২ মেগাবাইট রম। রম মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ৩২ গিগাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। অল্প দামের মধ্যে এ স্পেসিফিকেশন খুবই আকর্ষণীয় বলতে হবে।

অপারেটিং সিস্টেম

ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড জেলি বিন ৪.২.২ ব্যবহার করা হয়েছে। অ্যাক্সিলোমিটার, ব্রাইটনেস সেন্সর, প্রক্সিমিটি সেন্সর, জিপিএস, ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, মাইক্রোইউএসবিসহ স্মার্টফোনের সব কানেক্টিভিটি রয়েছে।

ডুয়াল সিম

নতুন এ স্মার্টফোনটিতে আরও রয়েছে ডুয়াল সিম সুবিধা এবং এফএম রেডিও। পরিমিত কনফিগারেশনের ফলে জেলি বিন মসৃণভাবে চলবে বলে আশা করা যায়। গুগলে প্লে স্টোরের বেশিরভাগ অ্যাপ উচ্চ কোয়ালিটিতে চলতে পারে। তবে র‍্যাম কম হওয়ায় ফিফা, স্পাইডারম্যান, ডেড ইফেক্টের মতো শক্তিশালী গেইমগুলো খেলতে অসুবিধা হবে।

দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফ

১৮০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার-আওয়ারের ব্যাটারির কারণে দীর্ঘ সময় ধরে টানা ব্রাউজিং, মাল্টিটাস্কিং করতে পারবেন। ফোনটির আকারের তুলনায় ওজনও খুব বেশি নয়- ১৪১ গ্রাম। সাদা ও কালো দুটি রঙে এটি পাওয়া যাচ্ছে।

এর বর্তমান বাজার মূল্য ৮ হাজার ৪৯০ টাকা।

এক নজরে ভালো

–       দাম কম, ডুয়াল সিম

–       দামের তুলনায় উন্নত কনফিগারেশন

এক নজরে খারাপ

–       স্ক্রিনের রেজুল্যুশন কম

–       ইন্টারনাল মেমোরি ও র‍্যাম কম

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project