কম্পিউটার ব্যবহারে চোখের যত্ন

Evaly in News page (Banner-2)

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : কম্পিউটার যেমন দৈনিন্দিন কাজকে সহজ করেছে, তেমনি কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও তৈরি করেছে। দীর্ঘ সময় ধরে কম্পিউটার ব্যবহারের পর অনেকের কাজ শেষে চোখে ব্যথা কিংবা চোখে টান-টান অনুভূতি হয়ে থাকে।

সাধারণত দীর্ঘক্ষণ এক টানা কম্পিউটারের পর্দার দিকে তালিয়ে থাকলে এমন সমস্যা হতে পারে। এ ছাড়া দীর্ঘ দিন এক টানা বেশি মাত্রায় কম্পিউটার ব্যবহারে চোখে সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই চোখের যত্নে কিছুটা সচেতন হওয়া উচিত।

তাহলে কি কম্পিউটার ব্যবহার বন্ধ করে দিতে হবে? বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, তা নয়। তাদের মতে কিছু সর্তকতা অবলম্বন করলে চোখ ভালো রাখা যাবে।

কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের চোখের যত্নে করণীয় বিষয়গুলো নিয়ে এ টিউটোরিয়াল।

আরও পড়ুন: অবশেষে পণ্য ফেরতের অভিযোগ নিচ্ছে বিসিএস কম্পিউটার সিটি সমিতি

article-1153583-03A4E2A7000005DC-166_468x286

আই লেভেলে সামঞ্জস্যতা
কম্পিউটার ব্যবহারের ক্ষেত্রে সব সময় পর্দার সঙ্গে আই-লেভেল উচ্চতার সামঞ্জস্যতা রাখতে হবে। বিষয়টি চোখের স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। শুধু কম্পিউটার নয় টেলিভিশন দেখার ক্ষেত্রেও এ সামঞ্জস্যতা রজায় রাখা উচিত।

বিরতি নেয়া
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) এক গবেষণায় বলেছে, অধিক কম্পিউটার ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিদিষ্ট সময় পর পর বিরতি নিতে হবে। এতে চোখ ভালো থাকবে।

একটানা কাজ করার সময় ২০ মিনিট পর পর এক মিনিট চোখ বন্ধ করে রাখা কিংবা জানালা দিয়ে বাইরে তাকিয়ে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এতে চোখের ওপর তেমন চাপ পড়বে না, যা দীর্ঘক্ষণ কম্পিউটার ব্যবহারের ক্ষতি থেকে রক্ষা করবে।

এ ছাড়া কাজ করার সময় মাঝে মাঝে চোখের পলক ফেলা একটা ভালো উপায়। এতে করে চোখে আদ্রতার পরিমান স্বাভাবিক থাকে।

তালুর পরশ
দু’হাতের তালু একটি অপরটির সঙ্গে ঘর্ষণ করে গরম করে তারপর তা চোখের উপর রাখতে হবে কমপক্ষে ১ মিনিট। এটি ক্লান্ত চোখে আরামের আবেশ আনতে সহায়তা করবে।

কনট্রাস্ট বজায় রাখা কম্পিউটারে কাজ করার সময় হালকা রঙের ব্যাকগ্রাউন্ডের উপর গাড় রঙের অক্ষর বাছাই করুন।

চোখে শিথিল এবং আরামদায়ক অনুভূতির ক্ষেত্রে সব থেকে সেরা রং বিবেচনা করা হয় সবুজকে। তাই ব্যাকগ্রাউন্ডে সবুজ রং নির্বাচন করাই উত্তম।

এ ছাড়া কম্পিউটারের উজ্জলতা একটি সহনীয় মাত্রায় রেখে কাজ করা। উজ্জলতা বেশি হলে চোখের ওপর বেশি চাপ পড়ে এবং অস্বস্তিকর অনুভূতি অনুভূত হয়।

তীব্র আলো পরিহার করা
যথাযথ আলোর মধ্যে কাজ করাটা গুরুত্বপূর্ণ। তীব্র আলোতে যেন কম্পিউটার ব্যবহারের সমস্যা সৃষ্টি না হয় তাই সেটি এমন স্থানে রাখতে হবে যাতে এর পর্দায় ঘরের লাইট বা জানালার আলোর তীব্র প্রতিফলন না ঘটে।

আরও পড়ুন:

ক্লাউড সেবা নিরাপদ রাখার উপায়

নিরাপত্তার আতংক ফেলে ক্লাউড সিস্টেমে আসাটাই গুরুত্বপূর্ণ

বেখেয়ালে প্রযুক্তির সাত ভুল

 

*

*

আরও পড়ুন