vivo Y16 Project

দক্ষতাকে ফোকাস করেই টিকে থাকতে চান কুইকস্ন্যাকস বিডি-র লিজা

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ২০০৯ সালে অফলাইনে কাজ শুরু করেন লিজা , শুরুতেই পারিবারিক এবং বন্ধু বান্ধবের গন্ডিতে চলে তাঁর স্ন্যাকস বিক্রি , তারপর ২০১৮ তে অনলাইনে কার্যক্রম শুরু করেন । দীর্ঘ ব্যবসায়ীক জীবনে আসুন লিজা আহমেদের গল্প শুনি।

স্কুলের বাচ্চাদের টিফিন এবং কর্মজীবি মায়েদের জন্য দ্রুত নাশতার গুরুত্ব অনুভব করে লিজা এই কাজ হাতে নেন। তবে শ্বাশুড়ি ননদদের আগ্রহ, উচ্ছ্বাস আর সহযোগিতায় তিনি নিজের এই কর্মদক্ষতাকে বাস্তব রুপ দিতে পেরেছেন বলে জানালেন।

লিজা বলেন, ব্যক্তিগত প্রোফাইলে আগে আমরা অনেক কিছুই শেয়ার করতাম না , কিন্তু এখন পরিস্থিতি ভিন্ন। এখন ক্রেতার আস্থা জাগাতে হয় , বিশ্বাসের অনেক বড় জায়গা হল প্রোফাইল। তাই এখন অনেক কিছু শেয়ার করতে হয় । আগে অনলাইন বিজনেস এত জনপ্রিয় ছিল না , এখন অনেক জনপ্রিয়। এখন আমরা পরিবার , পরিজন, মেহমান সব সামলে উদ্যোগ চালাচ্ছি, ক্লাস করছি , ট্রেনিং করছি, এখন আমরা অলরাউন্ডার। আমাদের উপর ক্রেতাদের আস্থা বেড়েছে। এখন অনলাইনে কাজ করবার জন্য শিক্ষিত হতে হয় । তাই ক্রেতা যেমন বেড়েছে , বিক্রেতা ও বেড়েছে।

Techshohor Youtube

বিক্রেতা যেহেতু বেড়েছে তাই মার্কেটের ধরনে কি পরিবর্তন এসেছে ? এমন প্রশ্নে জানালেন , ক্রেতা বিক্রেতার ভিড়ে যারা শখের উদ্যোক্তা তারা হারিয়ে গেছে । আমি বিক্রয়কে মূল ফোকাস করি না , আমি দক্ষতাকে ফোকাস দিয়েছি । আমি আমার সেকটরকে ভাল করে জানব। আমার সার্ভিস যেন ভাল হয়, খাবার রিলেটেড যত সমস্যা আছে সেগুলো কিভাবে ম্যানেজ করব আমার ফোকাস এই দিকে । আমার সাথে যারা আছেন তারা এই অনলাইন প্ল্যাটফর্মে সেল নয় , শেখার মজা যদি পেয়ে যায় তাহলে তারা হারিয়ে যাবে না , তারা টিকে থাকবে।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা হিসেবে লিজা ব্যক্তিগত পরিচয়ের চেয়ে কুইক স্ন্যাকস বিডিকে সকলে চিনবে , জানবে, গ্রাহকের চাহিদার চেয়েও আরও ভাল সার্ভিস দেবেন এগুলো নিয়েই এগুতে চান । সাবলীলভাবে কথা বলছিলেন লিজা আহমেদ।

নতুনদের জন্য পরামর্শ দিতে গিয়ে লিজা বলেন , ধৈর্য আর আত্মবিশ্বাস নিয়ে দক্ষ হতে হবে, রাজীব আহমেদ স্যার যে আরিফা মডেল তৈরি করে দিয়েছেন সেটা ফলো করলে কোন রকম বাঁধা ছাড়াই যে কেউ এগিয়ে যেতে পারবে । আরও দেখুন ভিডিওতে।

*

*