vivo Y16 Project

মোবাইল অপারেটরদের সেবার মান যাচাইয়ে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি চালু বিটিআরসির

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অত্যাধুনিক কোয়ালিটি অব সার্ভিস বা কিউওএস বেঞ্চমার্কিং সিস্টেম চালু করলো বিটিআরসি।

এতে গ্রাহকরা মানসম্মত সেবা পাচ্ছেন কিনা এবং মোবাইল ফোন অপারেটররা কী মানের সেবা দিচ্ছেন তা ব্যাপকভাবে দ্রুত সময়ে যাচাই করা যাবে।

রোববার বিটিআরসি কার্যালয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এই সিস্টেমের উদ্বোধন করেন।

Techshohor Youtube

বিটিআরসি চেয়ারমান শ্যাম ‍সুন্দর সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব মো. খলিলুর রহমান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিটিআরসির ভাইস-চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. মহিউদ্দিন আহমেদ ।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, বাংলাদেশে প্রথমদিকে কিছু মানুষের জন্য মোবাইল হ্যান্ডসেট ব্যবহারের সুযোগ থাকলেও বর্তমানে ঘরে ঘরে মোবাইল হ্যান্ডসেট ব্যবহারকারী রয়েছে।

গ্রাহক বৃদ্ধি সাময়িক ব্যবসার হাতিয়ার হলেও দীর্ঘমেয়াদী ও টেকসই ব্যবসার জন্য গ্রাহক সন্তুষ্টি গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, পরিবর্তিত প্রযুক্তির এই যুগে সেবার মানের দিকে নজর না দিলে গ্রাহক ধরে রাখা কঠিন হবে। এমএনপি চালু হওয়ায় নাম্বার ঠিক রেখে অপারেটর বদলানোর সুযোগ রয়েছে, তবে কোনো অপারেটরের গ্রাহক সেবার মান সন্তোষজনক নয় বলেও জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ২০১৮ সালে তরঙ্গ নিলাম হলেও ২০২২ সালেও সেই তরঙ্গ পুরোপুরি রোলআউট করতে পারেনি মোবাইল অপারেটররা। ২০২২ সালের মধ্যে সে তরঙ্গ রোল আউট করার জন্য অপারেটরদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে ।

বিটিআরসি গ্রাহক সন্তুষ্টির জন্য যেসকল পদক্ষেপ নিয়েছে তা উন্নয়নশীল দেশের জন্য মাইলফলক বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, অপারেটরদের সেবার মান যাচাইয়ে বিটিআরসি আগে মাত্র একসেট যন্ত্রপাতির উপর নির্ভরশীল ছিলো । ২০১৬ সালে কেনা ওই যন্ত্রপাতি স্বাভাবিকভাবেই বর্তমান সময়ের চাহিদার উপযোগী নয়।

তাই সারাদেশে ধারাবাহিকভাবে ও দ্রুত সময়ে বাইরে বা ভেতরে মানসম্মত সেবা যাচাইয়ে জার্মান কোম্পানি ‘রোডি অ্যান্ড স্যুয়ার্জ’ হতে এই উচ্চপ্রযুক্তির বেঞ্চমার্কিং যন্ত্রপাতি কিনেছে বিটিআরসি। ইতোমধ্যে এসব যন্ত্রপাতি পরীক্ষামূলকভাবে ব্যবহার এবং তা পরিচালনায় জনবলকে প্রশিক্ষিতও করেছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থাটি।

পুরো সিস্টেমটিতে দুইসেট ভেইক্যাল মাউনটেড এবং দুইসেট ব্যাকপ্যাক কোয়ালিটি অব সার্ভিস যন্ত্রপাতি রয়েছে। এতে কেন্দ্রিয়ভাবে ডেটা প্রসেসিং এবং মনিটরিং ব্যবস্থা রয়েছে। রয়েছে স্মার্ট অ্যানালাইসিস এবং স্মার্ট মনিটর।

অনুষ্ঠানে এই সিস্টেম বিষয়ে বিস্তারিত উপস্থাপনা দেন বিটিআরসির ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন্স বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো: এহসানুল কবীর।

তিনি বলেন, বিটিআরসিতে স্থাপিত একটি কেন্দ্রীয় ব্যবস্থার সঙ্গে সেবার মান পরিামপের চারটি ইউনিট সার্বক্ষণিক সংযুক্ত থাকবে এবং স্মার্ট মনিটর নামের এ কেন্দ্রিয় ব্যবস্থার মাধ্যমে ড্রাইভ টেস্ট কার্যক্রমে ব্যবহার হওওয়া সব ইউনিটের রিমোট মনিটরিং, পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে। এতে চারটি ইউনিটের পরিবীক্ষণের লগ ফাইলগুলো সহজেই কেন্দ্রিয় ব্যবস্থায় নিয়ে পোস্ট-প্রসেসিং অর্থাৎ ড্রাইভ টেস্ট এর ফলাফল দ্রুত পাওয়া যাবে।

এই প্রযুক্তিতে একসঙ্গে দেশের চারটি স্থানে সেবার মান যাচাই করা যাবে, একসঙ্গে সব মোবাইল অপারেটরের বিভিন্ন প্রযুক্তির ভয়েস, থ্রিজি ডেটা , ফোরজি ডেটা, ওটিটি সেবা এবং নেটওয়ার্ক কাভারেজ যাচাই করা যাবে।

এছাড়া সিস্টেমটিতে ফাইভজি প্রযুক্তির সেবার মান যাচাই যাবে। থাকছে কেন্দ্রিয়ভাবে সকল যন্ত্রপাতি এবং পরিবীক্ষণ কার্যক্রম লাইভ টাইম পর্যবেক্ষণ এবং নিয়ন্ত্রণ করার সুবিধা।

কিউওএস বেঞ্চমার্কিং সিস্টেমের একাংশ

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মো: খলিলুর রহমান টেলিকম খাতে বিদ্যমান পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের জন্য কলড্রপ কমানো এবং ডেটার গতি বাড়ানোর প্রতি জোর দেন।

সভাপতির বক্তব্যে শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, টেলিকম খাতে গ্রাহকদের মানসম্মত সেবা নিশ্চিতে বিটিআরসির অব্যাহত প্রচেষ্টায় নতুন এই বেঞ্চমার্কিং সিস্টেম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এর মাধ্যমে সারা দেশে মোবাইল সেবার মান পরিবীক্ষণে এবং সেবার মান উন্নতিকল্পে বিটিআরসি অধিকতর সক্ষমতা অর্জন করবে।

শিগগিরই টেলিকম মনিটরিং সিস্টেম চালু হতে যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এটি বাস্তবায়িত হলে বিটিআরসি থেকে দেশের সকল এলাকার মোবাইল সেবার মান নজরদারি করা যাবে এবং অপারেটরদের থেকে রাজস্ব আহরণে স্বচ্ছতা আসবে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং বিভাগের কমিশনার আবু সৈয়দ দিলজার হোসেন, স্পেকট্রাম বিভাগের কমিশনার প্রকৌশলী শেখ রিয়াজ আহমেদ, প্রশাসন বিভাগের মহাপরিচালক মো: দেলোয়ার হোসাইন, সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো: নাসিম পারভেজ, স্পেকক্ট্রাম বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জুয়েল, লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং বিভাগের মহাপরিচালক আশীষ কুমার কুন্ডু এবং বিটিআরসি সচিব মো: নুরুল হাফিজ ।

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project