ফোনে ‘ডেপথ ক্যামেরা’ আসলে কতোটা প্রয়োজন?

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: আধুনিক ফোনের ক্যামেরা ক্যামেরার মধ্যে ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা এবং ম্যাক্রো লেন্স ক্যামেরা সম্পর্কে আমরা জানি। কিন্তু কিছু ফোনে ‘ডেপথ ক্যামেরা’ অথবা ‘ডেপথ সেন্সর’ থাকে।

স্মার্টফোনের অন্যান্য ক্যামেরাগুলোর মতো ডেপথ ক্যামেরা ব্যবহার করে ছবি তোলা যায় না; শুধুমাত্র অন্যান্য লেন্সগুলোকে দূরত্ব পরিমাপে সহায়তা করে। এটি সাধারত সফটওয়্যার অলগারিদমের সংমিশ্রনে কোন বিষয়ের (ব্যাক্তি, প্রাণী অথবা অন্য কোন বিষয়বস্তু) রূপরেখা নির্ধারন করে। এছাড়া কোন একটি ছবিতে ব্লার ইফেক্ট তৈরি করতেও এই ডেপথ ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়।

ডেপথ ক্যামেরার প্রয়োজন আছে কি?
আইফোন এবং স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ডিভাইসের মতো ফ্লাগশিপ শ্রেনীর বেশিরভাগ স্মার্টফোনে পেছনে ডেপথ ক্যামেরা থাকে না। কারন ফোনের অন্যান্য হার্ডওয়্যারের মাধ্যমেই প্রোটেইট মোড এবং অন্যান্য একই ধরনের ডেপথ ইফেক্ট নির্ণয় করা সম্ভব। যেমন-আইফোন এক্স এবং আইফোন সেভেন প্লাস প্রোট্রোইট মুডযুক্ত অ্যাপলের প্রথম কোন ফোন এবং এগুলোতে কোন ডেপথ ক্যামেরা ছিলো না। ফোনগুলোয় টেলিফটো এবং মেইন ক্যামেরা থেকে ডাটা নিয়ে এই ইফেক্ট কার্যকর করা সম্ভব। স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০ প্লাস এবং এস২০ আল্ট্রা ডিভাইসে খুব সাধারনভাবে একটি ডেপথ ক্যামেরা যুক্ত করেছিলো। কিন্তু এস২১ এবং নতুন ফোনগুলোয় এই ক্যামেরা আবার সরিয়ে নেয়া হয়েছে। অন্যান্য আইফোনের মতো স্যামসাংয়ের বেশিরভাগ ডিভাইসে ডেপথ ইফেক্ট সৃষ্টির জন্য অন্যান্য লেন্স এবং সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয়।

Techshohor Youtube

অন্যান্য লেন্স ব্যবহার করে ডেপথ ইফেক্ট তৈরির একটি গুরুত্বপূর্ণ সুবিধা রয়েছে। টেলিফটো অথবা আল্ট্রা ওয়াইড ক্যামেরাগুলো ডেপথ সেন্সর হিসেবে কাজ করতে পারে এবং ছবি তুলতে পারে। সাধারন ওয়াইড অ্যাঙ্গেলের লেন্স এবং ডেপথ ক্যামেরাযুক্ত একটি ফোন শুধুমাত্র একটি নিয়মিত দূরত্ব থেকে ছবি নিতে সক্ষম। কিন্তু ওয়াইড অ্যাঙ্গেল এবং টেলিফটোযুক্ত একটি ফোন একইভাবে ছবি তুলতে পারে সাথে জুমও করতে পারে।
ফলে অন্যান্য ক্যামেরাগুলো যদি ডেপথ ক্যামেরার মতোই কাজ করে তাহলে এটি রাখার কি কোন প্রয়োজন আছে? সহজ উত্তর : না।

ইদানিংকার ফোনগুলোয় সামনে পেছনে একাধিক ক্যামেরা যুক্ত থাকে। কিন্তু দেখা এই্ সবগুলো ক্যামেরা ব্যবহৃত হয় না। স্যামসাংয়ের সাশ্রয়ী মূল্যের গ্যালাক্সি এজিরোথ্রিএস মডেলের ফোনটিতে তিনটি ক্যামেরা রয়েছে। কিন্তু এই তিনটি ক্যামেরার মধ্যে শুধুমাত্র প্রধান ক্যামেরা ৫০এমপি সেন্সরই কার্যকর। অন্যান্য লেন্সের মধ্যে একটি ২এমপি ডেপথ ক্যামেরা এবং অন্যটি ২এমপি ম্যাক্রো লেন্স; যার রেজ্যুলেশন খুবই কম। এই লেন্সদুটির পরিবর্তে আল্ট্রা ওয়াইড অথবা টেলিফটো অনেকবেশি কার্যকর।

কিছু কিছু মডেলের আইফোনে ‘ট্রুডেপথ’ ক্যামেরা রয়েছে। শুরুর দিকে এই ক্যামেরা মুখায়াবব শনাক্তের জন্য ফেসআইডিতে ব্যবহৃত হতো। শুধুমাত্র ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরায় প্রোট্রেইট মুডে ছবি উঠানোর ক্ষেত্রে ট্রুডেপথ ব্যবহৃত হয়।

আরএপি

*

*

আরও পড়ুন