প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে স্মারক ডাকটিকিট ও আলোকচিত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন করলেন মোস্তাফা জব্বার

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর ফরিদপুর জেলার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। আজ তাঁর ৭৫ তম জন্মদিন। এই উপলক্ষে ডাক অধিদপ্তর স্মারক ডাকটিকিট ও উদ্ধোধনী খাম অবমুক্ত এবং ডাটাকার্ড ও বিশেষ সীলমোহর প্রকাশ করেছে। এছাড়াও ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ ও আর্কাইভ ১৯৭১‘র উদ্যোগে শেখ হাসিনা‘র রাজনৈতিক জীবনের ওপর ঢাকা জিপিও প্রাঙ্গণে দুইদিন ব‌্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বুধবার ঢাকায় জিপিও মিলনায়তনে দশ টাকা মুল্যমানের স্মারক ডাকটিকিট ও দশ টাকা মূল‌্যমানের উদ্বোধনী খাম অবমুক্ত এবং পাঁচ টাকা মূল‌্যমানের ডাটা কার্ড ও বিশেষ সীলমোহর প্রকাশ এবং আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো: খলিলুর রহমান, ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ফয়জুল আজিম এবং আর্কাইভ একাত্তরের কর্ণধার সাংবাদিক প্রনব সাহা উপস্থিত ছিলেন।

Techshohor Youtube

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক জীবন ও তার সাড়ে আঠার বছরের শাসনামলে বাংলাদেশের বিস্ময়কর অগ্রগতির চিত্র তুলে ধরেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ইডেন কলেজের সাবেক ভিপি ও পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সাবেক ছাত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আত্ম -প্রচার বিমুখ, নিরহংকারী এবং চিরায়ত বাংলার অতি সাধারণ মানুষের জীবন যাপনে অভ্যস্থ একজন মানুষ । বঙ্গবন্ধুর মেয়ে হয়েও তিনি অতি সাধারণ পোষাক পরিচ্ছদ পছন্দ করতেন। অলংকার পরে বিশ্ববিদ‌্যালয়ে আসতে কখনো দেখিনি তাকে বরং টাঙ্গাইলের তাঁতের শাড়ীতেই তাকে আমি ক্যাম্পাসে দেখেছি। সহপাঠী এবং ছাত্রলীগের নেতা কর্মী ছাড়া সাধারণ ছাত্র-ছাত্রী তো দূরের কথা অনেক শিক্ষকরাও জানতেন না তিনি বঙ্গবন্ধুর কণ্যা।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ১৯৮১ সাল থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত সময়ে কঠিন রাজনৈতিক চ‌্যালেঞ্জ ও ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে জননেত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর লালিত স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার অভিযাত্রা শুরু করেন। তার সাড়ে আঠার বছরের শাসনকাল বিশ্বে বাংলাদেশ আজ অগ্রগতির প্রতিটি খাতে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। তার ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচির ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ বিশ্বে অনন‌্য উচ্চতার শিখরে অধিষ্ঠিত হয়েছে । আমরা আজ গর্বের সাথে বলতেই পারি আমাদের এক টাকা কিনতে পাকিস্তানের ২ টাকা ২০ পয়সা সমপরিমান মূদ্রার প্রয়োজন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মবার্ষিকী পালনের দিনটিকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের জন‌্য অত‌্যন্ত গৌরবোজ্জ্বল দিন হিসেবে আখ‌্যায়িত করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এর আগে মন্ত্রী আলোকচিত্র প্রদর্শনী পরিদর্শন করেন।

*

*

আরও পড়ুন