vivo Y16 Project

আর্থিক খাতে নারী ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের অন্তর্ভুক্তিকরণে উদ্ভাবনী আইডিয়ার খোঁজে প্রতিযোগিতা শুরু

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিল : আর্থিক লেনদেনে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে নারীদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধিতে জেন্ডার-সংবেদনশীল ও নারীবান্ধব সমাধান উদ্ভাবন এবং সিএমএসএমই খাতের অর্থায়নকে সহজতর করার লক্ষ্যে উদ্ভাবনী আইডিয়ার খোঁজে বুধবার দু’টি ইনোভেশন চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়েছে।

এটু্আই, ইউএনসিডিএফ এবং এমএসসি কর্তৃক যৌথভাবে আয়োজিত ফাইন্যান্সিয়াল ইনোভেশন ল্যাব বাংলাদেশ (ফিনল্যাব বিডি) এর কোহর্ট-১ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জ দু’টির উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম পিএএ।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মেটলাইফ বাংলাদেশ এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আলা আহমেদ, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের প্রোগ্রাম অফিসার স্নিগ্ধা আলী বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। সভাপতিত্ব করেন এটুআই এর প্রকল্প পরিচালক (যুগ্মসচিব) ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর।

Techshohor Youtube

প্রতিযোগিতা দু’টিতে আগামী ৭ অক্টোবরের মধ্যে প্রস্তাবনা জমা দেওয়া যাবে। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করতে হবে এই ঠিকানায় http://www.challenge.gov.bd/ ।

আর্থিক খাতের বিভিন্ন প্রতিবেদনে বাংলাদেশে ডিজিটাল পেমেন্ট ব্যবহারের ক্ষেত্রে লিঙ্গগত বৈষম্যের বিষয়টি পরিলক্ষিত হয়। এ কারণে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে আর্থিক লেনদেনে দেশের নারীদের উপস্থিতি অনেক কম। এ খাতে বিদ্যমান বৈষম্য কমিয়ে অধিকতর নারীবান্ধব সমাধানের বিকাশ ও তাদের অন্তর্ভুক্তিতে সহায়তা করতে পারে এমন আইডিয়ার খোঁজে ‘উইমেনস ফাইন্যান্সিয়াল ইনক্লুশন চ্যালেঞ্জ ২০২২’ এর ঘোষণা করছে ফিনল্যাব বিডি।

অন্যদিকে, আর্থিক লেনদেনে অংশগ্রহণে অধিকতর সুযোগ প্রদান, মূলধন-সম্পর্কিত ব্যয় কমানো এবং শোষণমূলক উচ্চ-মূল্যের অনানুষ্ঠানিক ঋণ গ্রহণ থেকে অতি ক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র, কুটির  ও মাঝারি (সিএমএসএমই) শিল্পের উদ্যোক্তাদের রক্ষায় উদ্ভাবনী ডিজিটাল সমাধানের খোঁজে ‘সিএমএসএমই ইনোভেশন চ্যালেঞ্জ ২০২২’ শীর্ষক আরেকটি প্রতিযোগিতারও উদ্বোধন করা হয়।

এর মাধ্যমে সিএমএসএমই খাতের অর্থের সরবরাহ বৃদ্ধির করে বিশেষ করে গ্রামীণ এলাকায় অর্থ যোগানের বাঁধা দূর করতে সহায়তা করতে পারে এমন উদ্ভাবনী আইডিয়াকে পুরস্কৃত করা হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম পিএএ বলেন, আর্থিক অন্তর্ভুক্তিতে দেশের নারী উদ্যোক্তারা অসাধারণ ভূমিকা পালন করছেন। আর্থিক লেনদেনের জন্য নারী উদ্যোক্তাদের অনেক বেশি বিশ্বাসযোগ্য বলে মনে করা হয়, তাই আর্থিক খাতে নারীদের এবং অতি ক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র, কুটির ও মাঝারি (সিএমএসএমই) শিল্পের উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার মাধ্যমে সমাজের বিদ্যমান বৈষম্য অনেকাংশে দূর করা সম্ভব হবে। ডিজিটাল ডিভাইসও ডিজিটাল বৈষম্য দূরীকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে ।

তিনি বলেন, সকলের আর্থিক অন্তর্ভুক্তির লক্ষ্যে আমরা প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছি। এছাড়াও, দেশের ফিনটেক খাতের উন্নয়নে সমন্বিতভাবে কাজ এগিয়ে নেওয়ার জন্য ফিনটেক টাস্কফোর্স গঠনের প্রক্রিয়াও চলমান রয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে এটুআই এর প্রকল্প পরিচালক (যুগ্মসচিব) ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর বলেন, চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের মূল কথাই হলো প্রতিটি উদ্যোগের ‘ভ্যালু ফর মানি’ নিশ্চিত করা। এজন্য আমাদের স্থানীয় উদ্ভাবনগুলোকে মানুষের প্রয়োজনে কাজে লাগানোর জন্য এগুলো টেকসই আকারে গড়ে তুলতে হবে। প্রান্তিক পর্যায়ের মানুষের কাছে বিশেষ করে নারী উদ্যোক্তাদের কাছে আর্থিক সেবাগুলো পৌঁছে দেওয়ার জন্য বিভিন্ন পর্যায়ে বিদ্যমান সকল প্রকার বৈষম্য দূরীকরণে সকল সেবার ই-কোয়ালিটি বা গুণগতমান নিশ্চিতে কাজ করছে এটুআই।

মেটলাইফ বাংলাদেশের সিইও আলা আহমেদ বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির টেকসই উন্নয়নে মেটলাইফ দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে যাচ্ছে। মেটলাইফ ফাউন্ডেশন আর্থিক অন্তর্ভুক্তির অগ্রগতিকে তরান্বিত্ব করা এবং মানুষের আর্থিক অবস্থার উন্নয়নে বাংলাদেশে বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। এ প্রচেষ্টায় এটুআই এর ফিনল্যাববিডি যুক্ত হওয়ায় নতুন মাত্রা যোগ করবে।

বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের প্রোগ্রাম অফিসার স্নিগ্ধা আলী বলেন, পিছিয়ে পড়া নারীদের আর্থিক অন্তর্ভুক্তিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে ফিনল্যাব বিডি। নারী উদ্যোক্তাদের সৃজনশীলতা এবং সক্ষমতা উন্নয়নে উদ্ভাবনী সমাধানের খোঁজে দু’টি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে প্রতিযোগিতা আয়োজনের মতো সময়োপযোগী উদ্যোগ নিয়ে এগিয়ে আসায় এটুআই, এমএসসি এবং ইউএনসিডিএফ কে ধন্যবাদ জানাই।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে অবদান রাখতে টেকসই ব্যবসায়িক মডেল তৈরিতে স্টার্টআপ ও উদ্যোক্তাদের সহায়তার করার লক্ষ্যে এটুআই, জাতিসংঘের মূলধন উন্নয়ন তহবিল (ইউএনসিডিএফ), এবং মাইক্রোসেভ কনসাল্টিং (এমএসসি) যৌথভাবে ফিনল্যাব বিডি (FinLab BD) প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি বিভাগের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক, এমপি ২০২১ সালের অক্টোবর মাসে এর উদ্বোধন করেন। বর্তমানে বাংলাদেশ সরকার, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এবং মেটলাইফ ফাউন্ডেশন সহায়তায় কার্যক্রম পরিচালনা করছে ফিনল্যাব বিডি।

এটুআই এর প্রোগ্রাম ম্যানেজার (ডিজিটাল অ্যাক্সেস অ্যান্ড ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস) মো. তহুরুল হাসান এর সঞ্চালনায় অনলাইন অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে এটুআই ইনোভেশন ফান্ড এর প্রধান নাঈম আশরাফী, এটুআই, ইউএনসিডিএফ, মাইক্রোসেভ কনসাল্টিং, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এবং মেটলাইফ ফাউন্ডেশন, বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ফিনটেক কোম্পানি, স্টার্টআপ এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং প্রান্তিক এলাকার নারী ও সিএমএসএমই শিল্পের সাথে জড়িত উদ্যোক্তারা যুক্ত ছিলেন।

সুত্র – প্রেস বিজ্ঞপ্তি

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project