চার পায়ে হেঁটে বেড়াচ্ছে সাপ!

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: প্রবচন আছে – ‘সাপের পাঁচ-পা দেখা’। বাস্তবে কী সাপের পা দেখেছে কেউ? অদূর অতীতে কেউ না দেখলেও আসলেই একসময় পা ছিলো সাপের; তবে হারিয়ে গেছে বিবর্তণে। বিষয়টি মনে করিয়ে দিতেই যেন প্রযুক্তি গবেষক ও সাপপ্রেমী অ্যালেন প্যান নিলেন বিশেষ উদ্যোগ। সাপের চলাফেরায় সুবিধার জন্য তিনি তৈরি করেছেন রোবট পা।

সম্প্রতি ইউটিউবে ‘সাপকে আবার পা ফিরিয়ে দেয়া’ শিরোনামে একটি ইউটিউব ভিডিওতে অ্যালেন প্যান বলেন, ‘কোন প্রাণীর পায়ে সমস্যা দেখা দিলে আমরা তা সাড়ানোর জন্য উদ্যোগ নেই, অনেক সময় কৃত্তিম পা-ও তৈরি করেও দিয়ে থাকি। তবে, আফসোস: সাপের প্রতি এতো ভালোবাসা কারো নেই যে তার জন্য পা তৈরি করে দিবে। তবে আমি আছি। এই যে সাপের জন্য রোবট পা তৈরি।’

অ্যালান স্পেন একটি কাচের টিউবের মতো যন্ত্র তৈরি করেছেন। এ রোবট যন্ত্রে সামনে এবং পেছনে দুটি করে মোট চারটি পা লাগানো হয়েছে। টিউবের ভেতরে সাপটিকে ঢুকিয়ে ল্যাপটপের মাধ্যমে কমান্ড দিলেই এটি চলতে শুরু করে। ফলে সাপের আর নিজ থেকে নড়াচড়া করতে হয় না। তার এ উদ্ভাবনটি স্বভাবতই ‘নিছক পাগলামি’ হিসেবে হাসির খোরাক হয়েছে অনেকের কাছে। তবে, বিস্তর যুক্তি কিন্তু আছে অ্যালানের কাছে!

Techshohor Youtube

বিষয়টি নিয়ে তিনি কাজ শুরু করেছেন ৮ বছর আগে, ২০১৪ সালে। গবেষণায় তিনি দেখেছেন সাপের পেছনের সেলগুলো পা হয়ে যাওয়ার পরিবর্তে বাহ্যিক লিঙ্গ হিসেবে গঠিত হয়েছে, যা সঙ্গম ও বংশবিস্তারের জন্য ব্যবহৃত হয়। তবে সাম্প্রতিক ফসিল গবেষকরা দুইপায়ের সাপের জীবাশ্ম খুঁজে পেয়েছেন যা প্রায় সাড়ে ৯ কোটি বছরের পুরনো। অর্থাৎ গবেষকদের যে ধারণা সত্যি প্রমানিত হয়েছে। কোটি বছর আগের সাপের প-গুলো হারিয়ে গেছে কালের বিবর্তনে। সম্ভবত গর্তে প্রবেশ সহজ হওয়ার জন্য ক্রমে ক্রমে সাপের পা প্রয়োজনীয়তা হারিয়ে একপর্যায়ে বিবর্তিত হয়ে বিলুপ্ত হয়ে গেছে। আর সেই পা-কে ফিরিয়ে দিতেই অ্যালানের এই রোবট পা উদ্ভাবন। আদতে বিষয়টা তাহলে নিছকই পাগালামী নয়!

ইন্টারনেট/আরএপি

*

*

আরও পড়ুন