বন্যাদুর্গত এলাকায় টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি, সচল ৯৮৪ সাইট

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বন্যাদুর্গত এলাকায় মোবাইল ও ল্যান্ডফোন নেটওয়ার্ক ব্যবস্থার উন্নতি হয়েছে।

অপারেটরদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও বন্যা দুর্গত এলাকার পানির পরিমাণ কিছুটা কমতে শুরু করায় অপারেটরদের অচল সাইট গুলো ক্রমান্বয়ে সচল হচ্ছে। বর্তমানে সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা এই তিনটি জেলায় মোট ২,৫২৮টি সাইটের মধ্যে ৭০৩ টি সাইট বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন হয়ে নেটওয়ার্কের আওতাবহির্ভূত রয়েছে। তবে ইতোমধ্যে ৯৮৪ টি অচল সাইট অপারেটরদের সার্বিক প্রচেষ্টায় সচল করা হয়েছে। অবশিষ্ট অচল সাইট সমূহ দ্রুত সচল করবার কাজ চলছে ।

বিটিসিএল গ্রাহকগণকে তাদের অচল ল্যান্ডফোন সচল অথবা এ সংক্রান্ত যে কোন প্রয়োজনে বিটিসিএল কল সেন্টার ১৬৪০২ নম্বরে যোগাযোগ করার জন্য বলা হয়েছে ।

Techshohor Youtube

বন্যাকবলিত সিলেট, সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোনা জেলার এলাকায় এনটিটিএন অপারেটরদের মধ্যে ফাইবার এট হোমের ৫৭টি, বাহনের ২৯টি পয়েন্টের সবকটিই সচল রয়েছে। ফাইবার এট হোমের সুনামগঞ্জের পয়েন্ট গতকাল পর্যন্ত ইনএ্যাকটিভ অবস্থায় ছিল, কিন্তু আজকে প্রতিষ্ঠানটি উক্ত পয়েন্টটির প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে সচল রাখতে সক্ষম হয়েছে।

অন্যদিকে এনটিটিএন অপারেটরদের মধ্যে সামিট কমিউনিকেশনস লিমিটেডের মোট ২৬২টি পয়েন্ট অব প্রেজেন্স (PoP) রয়েছে, তন্মধ্যে ১৩৭ টি এ্যাকটিভ রয়েছে। বন্যাপ্লাবিত এলাকায় অবস্থিত অনেক সাইটে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন হয়ে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় উক্ত এলাকাসমূহে এনটিটিএন সংযোগ প্রাপ্তিতে সাময়িকভাবে ব্যাপক প্রতিবন্ধকতা দেখা দেয়। কিন্তু বর্তমানে সবগুলো এনটিটিএনই নিরবচ্ছিন্ন সংযোগ প্রদানে সক্ষম।

বর্তমানে সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় বিদুৎ না থাকায় টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ আছে। জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট বন্যার জন্য অপটিক্যাল ফাইবার ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় টেলিযোগাযোগ বন্ধ আছে । এসব উপজেলা ছাড়া সিলেট জেলার অন্যান্য উপজেলায় বিটিসিএল এর টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা চালু আছে। একটি ক্ষতিগ্রস্থ উপজেলা , নবিগঞ্জ, সচল করার মাধ্যমে হবিগঞ্জ জেলার টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা সচল করা হয়েছে। মৌলভীবাজার জেলার জুড়ি উপজেলা ছাড়া সবকটি উপজেলায় টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা চালু আছে।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় ২০ জুন ২০২২ খ্রি. তারিখে বিটিসিএল এর একটি টিম পোর্টেবল জেনারেটর ব্যবহার করে বিটিসিএল এর ভয়েস সার্ভিস  চালুসহ ইন্টারনেট সংযোগ সচল করতে সক্ষম হয়েছেন। বিটিসিএল টিম সুনামগঞ্জ জেলার অন্যান্য উপজেলায় ভয়েস /ডাটা সার্ভিস সচল করার নিমিত্ত নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনাসহ সিলেট বিভাগের অন্যান্য এলাকাসমূহে বিভিন্ন ক্যাটাগরির মোট ১০৫টি আইএসপি অপারেটর সেবা প্রদান করে আসছে। এলাকাগুলোতে আইএসপি অপারেটরদের ৩৭৫টি Point of Presence (PoP) রয়েছে। বর্তমানে ৩৭৫ টি PoP-এর মধ্যে ৩৩৯টি PoP কার্যকর রয়েছে এবং বর্তমান বন্যা পরিস্থিতির কারণে ৩৬টি PoP অকার্যকর রয়েছে। যেসকল PoP সমূহে প্রবেশ করা যাচ্ছে সেসকল PoP পোর্টেবল জেনারেটর দিয়ে পরিষেবা প্রদান করা হচ্ছে। 

সিলেট স্থানীয় প্রশাসনের নিকট ২৩ টি VSAT হস্তান্তর করা হয়েছে। যার মধ্যে সিলেট বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে ১টি, সিলেট ডিসি’র কার্যালয়ে ১ টি এবং সিলেট সদর উপজেলার কার্যালয়ে ১টি করে চালু করা হয়েছে।

এদিকে বাংলালিংক গ্রাহকদের জরুরী প্রয়োজনে ফ্রি ১০ মিনিট ও ১০০ এমবি’র প্যাকেজ প্রদানের কার্যক্রম গ্রহণ করেছে এবং প্যাকেজটি মঙ্গলবার রাত ১২.০০ টা হতে চালু হবে। টেলিটকও সিলেট এবং ময়মনসিংহ বিভাগের বন্যার্তদের জন্য ফ্রি ১৫ মিনিট, ২০ টি এসএমএস ও ৫০০ এমবি’র একটি প্যাকেজ ঘোষণা করেছে।

সুত্র – প্রেস বিজ্ঞপ্তি

*

*

আরও পড়ুন