স্পেকট্রাম নিলাম নিয়ে বিটিআরসি-অপারেটর উইন-উইন সিচুয়েশনে

ছবি : শ্যাম সুন্দর সিকদার, চেয়ারম্যান, বিটিআরসি।

টেলিযোগাযোগ খাতে গুরুত্বপূর্ণ ফাইভজি স্পেকট্রাম নিলাম অনুষ্ঠিত হচ্ছে ৩১ মার্চ ।

নিলাম আয়োজনে নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বিটিআরসির পরিকল্পনা-প্রস্তুতি, নির্দেশনা-আহবান, অপারেটরদের দাবি-দাওয়া পূরণ, স্পেকট্রামের দাম, সেবার মান ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে টেকশহর ডটকমের সঙ্গে কথা বলেছেন বিটিআরসি চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার। সাক্ষাতকার নিয়েছেন টেকশহর ডটকমের নির্বাহী সম্পাদক আল-আমীন দেওয়ান।

শ্যাম সুন্দর সিকদার ২০২০ সালের ডিসেম্বরে চেয়ারম্যান হিসেবে বিটিআরসির দায়িত্ব নিয়েই দেশের টেলিযোগাযোগ সেবার মান বাড়াতে বেশ মনযোগী হন।

Techshohor Youtube

দায়িত্বের দেড় বছরেরও কম সময়ে একের পর এক উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ নিয়ে তার সফল বাস্তবায়নও করে দেখিয়েছেন তিনি। মোবাইল অপারেটর, এনটিটিএন, টাওয়ার শেয়ারিং, আইএসপিএবিসহ খাতটির বিভিন্ন অংশীদারদের মধ্যে সমন্বয় বাড়ানোর অন্যতম উদ্যোগ তাঁর।

এছাড়া ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে একদেশ একরেট বাস্তবায়ন, মোবাইল অপারেটরদের কলড্রপ কমানো, ভয়েস কলের মান বাড়ানো, ফোরজি সেবার নির্ধারিত মান নিশ্চিতে দেশজুড়ে নিয়মিত টেস্ট ড্রাইভ জোরদার করা, গ্রাহক অভিযোগ নেয়ার সক্ষমতা বাড়ানো ,নিয়মিত গণশুনানি, ডু নট ডিস্টার্ব বা ডিএনডি, ডেটা ক্যারি ফরওয়ার্ড, প্যাকেজ কমানো, এনইআইআরসহ নানা নতুন উদ্যোগ নেয়া ও পুরোনো উদ্যোগে গতি সঞ্চার করেছেন তিনি।

টেক শহর : দেশের টেলিযোগাযোগ খাতের গুরুত্বপূর্ণ স্পেকট্রাম নিলাম ৩১ মার্চ। বিটিআরসির চেয়ারম্যান হিসেবে আপনার অধীনে দ্বিতীয় নিলাম, প্রস্তুতি কেমন ?

শ্যাম সুন্দর সিকদার : নিলামের প্রস্তুতি এখন পর্যন্ত ভালো। নিলাম সুসম্পন্ন করার জন্য সব কিছু করা হয়েছে।

টেক শহর : এবারের নিলামে জারিকৃত নির্দেশনা নিয়ে আলোচনার প্রেক্ষিতে অপারেটরদের সব দাবি তো পূরণ করা হয়েছে ?

শ্যাম সুন্দর সিকদার : সব দাবি পূরণ করা…বিষয়টি ওভাবে নয়। অপারেটরদের বেশ কিছু দাবি আমরা পূরণ করেছি আর কিছু কিছু আমরা করতে পারিনি। তবে আমরা একটা উইন-উইন সিচুয়েশনে আসছি ।

টেক শহর : অপারেটরদের প্রতি আপনার পরামর্শ বা আহবান কী থাকবে ?

শ্যাম সুন্দর সিকদার : আমরা কোয়ালিটি অব সার্ভিস ইম্প্রুভ করার জন্যই এই উদ্যোগ নিয়েছি। স্পেকট্রাম তাদের দরকার, স্পেকট্রাম নিয়ে যতো তাড়াতাড়ি তা ডেপ্লয় করতে পারে বিটিএস, সাইটগুলোতে-তাহলে দেশের মানুষ উপকৃত হবে।

গতবছর (২০২১) মার্চ মাসে একটি নিলাম আমরা করেছি আর এ বছর (২০২২) মার্চ মাসে আমরা একটি করছি । সেই বিবেচনায় আমি বলবো, একটু অল্প সময়েই দুটি নিলাম আমি করছি। এর একটিই কারণ, যেন দেশের মানুষ উপকৃত হয়। যারা গ্রাহক আছেন তাদের কোয়ালিটি অব সার্ভিসে কোনো অসুবিধা না হয়, সেই চিন্তা করেই এটা করা হয়েছে।

টেক শহর : নিলামে অংশগ্রহণকারী মোবাইল ফোন অপারেটররা কী সব স্পেকট্রাম কিনবে, বিটিআরসি কী আশা করছে ?

শ্যাম সুন্দর সিকাদার : স্পেকট্রাম তো তাদের জন্যই, মূলত তাদের জন্য রাখা হয়। তারা যদি না নিয়ে এটি আমার কাছে পড়ে থাকে তাহলে তো দেশের মানুষের উপকার হবে না। এবার যদি তারা সুযোগ না নেয় তাহলে ভবিষ্যতে এরকম সুযোগ আর পাবে না।

টেক শহর : এরআগে ২০২১ সালের নিলামে দেখা যায়, অপারেটরদের তুমুল প্রতিযোগিতায় স্পেকট্রামের দাম অনেক বেড়ে যায়। তাহলে স্পেকট্রামের দাম বেশির ক্ষেত্রে বিটিআরসির প্রতি অপারেটরদের অভিযোগ কীভাবে দেখবেন ?

শ্যাম সুন্দর সিকদার : আমরা ইন্টারন্যাশনাল পার্সপেক্টিভ দেখে, তথ্য নিয়ে, অ্যানালাইসিস করে দামটা ঠিক করি। তারপর কম্পিটিশনে তারাই দাম বাড়িয়ে দেয়। তাই স্পেকট্রামের দাম বৃদ্ধির ক্ষেত্রে বিটিআরসিকে দায় দেয়ার কোনো যুক্তি নেই।

টেক শহর : মূল্যবান সময়ের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

শ্যাম সুন্দর সিকদার : টেকশহরকেও ধন্যবাদ।

নিলামের উল্লেখযোগ্য তথ্য :

এবারে রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি অকশন-২০২২’ নামে নিলাম অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মূলত ফাইভজি চালুর জন্য এই স্পেকট্রাম নিলাম। তবে এ নিলামের স্পেকট্রাম ফোরজি নেটওয়ার্ককে আরও সমৃদ্ধ ও সম্প্রসারণে ব্যবহারের পরিকল্পনায়ও গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

মোট ২২ ব্লকে স্পেকট্রাম নিলাম হবে। এরমধ্যে ২ দশমিক ৩ গিগাহার্টর্জে ১০টি ব্লক এবং ২ দশমিক ৬ গিগাহার্টজে ১২ টি ব্লক রয়েছে।

প্রতি ব্লকে ১০ মেগাহার্টজ করে স্পেকট্রাম নিলাম হবে। নিলামে প্রতি মেগাহাটর্জ স্পেকট্রামের ফ্লোর প্রাইস বা বেইজ প্রাইস থাকছে ৬ মিলিয়ন ডলার, টাকার হিসাবে যা ৫১ কোটি ৯০ লাখের একটু বেশি।

*

*

আরও পড়ুন