vivo Y16 Project

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সমৃদ্ধ, বৈষম্যহীন ও উন্নত বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে বাস্তবায়নের দ্বারপ্রান্তে - মোস্তাফা জব্বার

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আমাদের একজন বঙ্গবন্ধু ছিলেন বলেই আমরা হাজার বছরের পরাধীনতা থেকে মুক্তি লাভ করতে পেরেছি। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সমৃদ্ধ, বৈষম্যহীন ও উন্নত বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে বাস্তবায়নের দ্বারপ্রান্তে উল্লেখ করে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, বঙ্গবন্ধু এমন একজন নেতা ছিলেন যিনি সুনির্দিষ্টভাবে একটি ভূখণ্ডকে চিহ্নিত করতে পেরেছিলেন। তিনি একটি অসাম্প্রদায়িক, বৈষম্যহীন, গণতান্ত্রিক ও জাতীয়তাবাদী রাষ্ট্রকাঠামো গড়ে তোলার জন্য সিদ্ধান্ত নিতে পেরেছিলেন।

মন্ত্রী শনিবার নেত্রকোণায় বঙ্গবন্ধুর ১০২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত আলোচিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন । শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়, নেত্রকোণার উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য হাবিবা রহমান খান শেফালী এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক সুব্রত কুমার বক্তৃতা করেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, বঙ্গবন্ধু বিশ্বের ৩৫ কোটি বাংলাভাষাভাষী মানুষসহ বিশ্ববাসীর কাছে অনুকরণীয় আদর্শ। এই অঞ্চলে ভাষাভিত্তিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুই বাঙালির জাতি রাষ্ট্রের পিতার আসনে নিজেকে অধিষ্ঠিত করেছেন । বঙ্গবন্ধুকে যত বেশী জানা যাবে তত বেশী উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হওয়া যাবে। এদেশের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি এবং শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা জানাতে হবে।

Techshohor Youtube

মন্ত্রী বলেন, নেত্রকোণায় একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা এই অঞ্চলের মানুষের জন্য একটি আলোকবর্তীকা হিসেবে কাজ করছে। মন্ত্রী নেত্রকোণাকে লোকজ সংস্কৃতির ভাণ্ডার বলে উল্লেখ করেন।

তিনি শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্যান্য বিষয়ের পাশাপাশি লোকজ সংস্কৃতির বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করার ও একটি লোক সংস্কৃতি কেন্দ্র স্থাপনের ওপর গুরু্ত্বারোপ করে বলেন, আমাদের রয়েছে অসাধারণ শেকড়ের সংস্কৃতি, ইতিহাস এবং ঐতিহ্য। পৃথিবীর অনেক উন্নত জাতিরই তাদের সমৃদ্ধ ইতিহাস বা নিজস্ব সংস্কৃতি নেই। মন্ত্রী শিক্ষার্থীদেরকে চাকুরীর দক্ষতা অর্জনের জন্য পাঠ্য সূচির বাইরে ডিজিটাল দক্ষ করে তোলার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়টির সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে পরামর্শ প্রদান করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ডিজিটাল দক্ষতা তৈরির এই বিষয়টি সময়োচিত আখ্যায়িত করে বলেন, শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় এই উদ্যোগটি গ্রহণে করতে বদ্ধপরিকর। মন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ে রোবোটিক্স, আইওটি, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ইত্যাদি প্রযুক্তি বিষয় খোলার জন্য আহ্বান জানান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য তাতে সম্মতি প্রদান করেন।

পরে মন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্মাণাধীণ ক্যাম্পাসে একটি আম গাছের চারা রোপন করেন। এসময় স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র – প্রেস বিজ্ঞপ্তি

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project