Samsung HHP Online Campaign

এবার খুলনা বিভাগেও ‘ঠকছেন’ গ্রামীণফোনের ফোরজি গ্রাহকরা

ছবি : ইন্টারনেট

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : রংপুর, বরিশালের পর এবার খুলনা বিভাগেও ফোরজির নির্ধারিত গতি নেই গ্রামীণফোনের।

এই বিভাগের ১০টি জেলা ও ৪৪ উপজেলায় ফোরজি গতির পরীক্ষায় গ্রাহক সংখ্যায় সবচেয়ে বড় অপারেটরটির ফোরজি সেবার সর্বনিম্ন গতি পাওয়া যায়নি।

বিটিআরসি প্রায় ১ মাস ধরে অপারেটরগুলোর সেবার মান যাচাই করতে এই ড্রাইভ টেস্ট বা পরীক্ষা চালায়।

Techshohor Youtube

এতে অবশ্য শুধু গ্রামীণফোন নয়, এই বিভাগে রবি বাংলালিংক টেলিটক কারও ফোরজি সেবার নির্ধারিত গতি পাওয়া যায়নি।

গ্রাহককে ফোরজি সেবা বললেই সেখানে সর্বনিম্ন গতি থাকতে হবে ৭ এমবিপিএস। সেখানে গ্রামীণফোনের ৫ দশমিক ০৬, রবির ৩ দশমিক ৩২, বাংলালিংকের ৪ দশমিক ৫৯ এবং টেলিটকের ১ দশমিক ৭১ এমবিপিএস গতি পাওয়া যায়।

এরআগে বরিশাল বিভাগের ৪ টি জেলা ও ১৩টি উপজেলায় এই গতি যাচাইয়ের পরীক্ষা করেছে বিটিআরসি। সেখানেও ফোরজি সেবার বেঞ্চমার্ক ঠিক রাখতে পারেনি কোনো অপারেটর।

তারও আগে রংপুর বিভাগের ৭ টি জেলা ও ২৮টি উপজেলায় এই গতি যাচাইয় করে তারা । বিভাগটিতে রবি ছাড়া গ্রামীণফোন, বাংলালিংক ও টেলিটক ফোরজির নির্ধারিত বেঞ্চমার্ক ঠিক রাখতে পারেনি।

ববিশাল বিভাগে গ্রামীণফোনের ফোরজির গতি পাওয়া গেছে ৫ দশমিক ০৫ এমবিপিএস। রংপুরে গ্রামীণফোনের ফোরজি গতি ছিলো ৫ দশমিক ০৬ এমবিপিএস ।

রংপুরে গ্রামীণফোনের থ্রিজি গতিও পাওয়া যায়নি। কোয়ালিটি অব সার্ভিস (কিউওএস) নীতিমালা অনুযায়ী,  থ্রিজি প্রযুক্তির ইন্টারনেটে ডাউনলোডের সর্বনিম্ন গতি ২ এমবিপিএস পর্যন্ত ।  সেখানে গ্রামীণফোনের গতি ১ দশমিক ১৭ এমবিপিএস ।

মোবাইল ফোন অপারেটরদের সেবার মান নিয়ে গ্রাহকদের বিস্তর অভিযোগ রয়েছে। বিশেষ করে ৮ কোটিরও বেশি গ্রাহকের অপারেটর গ্রামীণফোনের সেবা নিয়ে গ্রাহকের যেন অভিযোগের শেষ নেই।

এদিকে গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষ টেকশহরডটকমকে জানিয়েছেন, তারা রংপুর ও বরিশালে সেবার মান উন্নত করেছেন। বিটিআরসি পরবর্তী ড্রাইভ টেস্টে এর প্রমাণ পাবে বলে জানায় তারা।

ভয়েস কল, ডেটা ও  নেটওয়ার্কের কাভারেজ এলাকা-এই তিন মূল বিভাগে মোবাইল ফোন অপারেটরদের সেবার মান যাচাই করা হয়।

আরও পড়ুন

রংপুরের পর বরিশাল বিভাগেও ফোরজিতে ‘ঠকাচ্ছে’ গ্রামীণফোন

একটি বিভাগজুড়ে শুধু নামেই গ্রামীণফোনের থ্রিজি-ফোরজি

লাইসেন্সে ফাইভজির নতুন শর্ত, ভিন্নমত মোবাইল অপারেটরদের

*

*

আরও পড়ুন