সংকটে ভারতের গাড়িশিল্প

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: প্রযুক্তিপণ্য তৈরির গুরুত্বপূর্ণ উপাদান চিপ বা সেমিকন্ডাক্টরের তীব্র চাহিদা এখন বিশ্বজুড়ে। আর এ কারণে গাড়ি নির্মাতারা তাদের গ্রাহকদের কাছে সময়মত পণ্য সরবরাহ করতে পারছে না।

গাড়ি শিল্পসংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা বলছেন কিছু কিছু মডেলের গাড়িতে পুরনো জেনারশনের চিপ ব্যবহার করা হচ্ছে। চিপ প্রস্তুতকারী কোম্পানিগুলো এই মুহুর্তে ক্রয়াদেশ কম নেয়ার কারনে গাড়ি নির্মাতাদের জন্য সমস্যাটি আরো জটিল হয়ে উঠবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ভারতীয় গবেষণা প্রতিষ্ঠান ক্রিসিল রিসার্চের পরিচালক হেমল ঠক্কর বলেছেন, ‘ভারতে ব্যবহৃত চিপগুলোর ৩০ শতাংশই পুরনো প্রজন্মের। যখন থেকে চিপ ব্যবহারের ক্ষেত্রে গাড়িশিল্পের পেকিং অর্ডার কমে গিয়েছে তখন থেকেই চিপ শিল্প এই পুরনো প্রজন্মের চিপগুলোর দিকে গুরুত্ব দিচ্ছে না।’ তিনি আরো বলেন, অটো ওইএমরা (অরিজিনাল ইকুপমেন্ট ম্যানুফ্যাকচারার) অন্য চিপের দিকে ঝুঁকছেন না বিশেষ করে কিছু পুরনো বেস্ট সেলার গাড়ির ক্ষেত্রে এমন প্রবনতা বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। নতুন মডেলের গাড়ির ক্ষেত্রে নতুন প্রজন্মের চিপ ব্যবহার করা হয় ফলে সেখানে সরবরাহ সীমাবদ্ধতাও কমে আসে। কিন্তু পুরনো মডেলের গাড়ির ক্ষেত্রে সমস্যাটি রয়েই যায়।’

Techshohor Youtube

গাড়ির যন্ত্রাংশ সরবরাহকারী এবং ওইএমরা বর্তমানে স্মার্টফোনে ব্যবহৃত চিপগুলোর চেয়েও পুরনো চিপ ব্যবহার করার কারনে বৈশ্বিক ঘাটতির মধ্যে সেগুলো জোগাড় করা আরো কঠিন হয়ে পড়ছে।

গাড়ির যন্ত্রাংশ নির্মানকারী কোম্পানি প্রিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ভিকরম মোহন বলেন, ‘গাড়ি শিল্পে যে প্রজন্মের চিপ ব্যবহৃত হচ্ছে তা স্মার্টফোন ও ভোক্তা পণ্যে ব্যবহৃত চিপের তুলনায় পাঁচ বছর পিছিয়ে।’

এই সমস্যা শুধুমাত্র গাড়িনির্মাতাদের জন্য নয়। তুলনামূলক কম চিপ ব্যবহার করা হয় এমন দুইচাকার গাড়ি নির্মাতারাও সংকটে রয়েছেন। বর্তমান এই সমস্যা জুন-জুলাই পর্যন্ত থাকবে।

ক্রিসিলের পরিচালক ঠক্কর বলেন, দুই চাকার গাড়ি নির্মাণের ক্ষেত্রে চিপ সংকট আরো মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। এসব ক্ষেত্রে পণ্য ডেলিভারির জন্য ৫৪ থেকে ৫৮ সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হয়। আর স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় আমরা ৩০ শতাংশ কম বিক্রি করছি। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের আগে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে না।

ইকোনমিক টাইমস/আরএপি       

*

*

আরও পড়ুন