vivo Y16 Project

ভিভো স্মার্টফোনে এক্সটেন্ডেড র‌্যাম প্রযুক্তি

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : স্মার্টফোনকে দুর্দান্ত করতে বিশেষ ভূমিকা রয়েছে র‌্যাম এবং স্টোরেজ বা রমের।

যথেষ্ট পরিমাণে র‌্যাম এবং স্টোরেজ থাকলে স্মার্টফোনের পারফরম্যান্স হয় ফাস্ট এন্ড স্মুথ এবং স্মার্টফোনে রাখা যায় ইচ্ছেমতো  অ্যাপ, ছবি, ভিডিও, সিনেমা, গান, গেমস ইত্যাদি।  

সম্প্রতি ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে প্রতিযোগিতা চলছে বেশি র‌্যাম এবং স্টোরেজের স্মার্টফোন নিয়ে। স্মার্টফোনে ২, ৩, ৪, ৬, ৮ গিগাবাইটের র‌্যাম এরপর এখন যেমন মিলছে ১২ গিগাবাইটের র‌্যাম, তেমনি স্টোরেজও মিলছে ৩২, ৬৪, ১২৮ বা ২৫৬ গিগাবাইটের।

Techshohor Youtube

এক্সেটেন্ডেড র‌্যাম নিয়ে আলোচনায় রয়েছে ভিভো। চলতি বছর বাংলাদেশের বাজারে ভিভো’র বেশির ভাগ স্মার্টফোনেই রয়েছে এক্সটেন্ডেড র‌্যাম প্রযুক্তি। বর্তমানে বাজারে দুই -তিনটি ভিভো স্মার্টফোন রয়েছে যেগুলোতে ৮ গিগাবাইট র‌্যাম রয়েছে, যা ১১ গিগাবাইট  এবং ১২ গিগাবাইট পর্যন্ত এক্সটেন্ড করা যাবে।

ভিভো ভি২১ এবং ভি২১ই: ভিভোর সর্বশেষ ফ্ল্যাগশিপ সিরিজ ভি২১। ভি২১ সিরিজের প্রথম দুই স্মার্টফোন ভিভো ভি২১ এবং ভি২১ই। নতুন এই সিরিজের বিশেষত্ত্ব এর ক্যামেরা প্রযুক্তি এবং এক্সপান্ডেবল র‌্যাম । স্মার্টফোন দু’টি দেশের গ্রাহকদের বেশ নজর কেড়েছে। স্মার্টফোন দুটির র‌্যাম ৮ গিগাবাইট এবং রম ১২৮ গিগাবাইট । মূল র‌্যাম সক্ষমতা ৮ গিগাবাইট হলেও রম থেকে ৩ গিগাবাইট নিতে পারবেন গ্রাহকরা। অর্থাৎ রম থেকে ৩ জিবি নিয়ে সব মিলিয়ে ১১ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম ব্যবহার করা যাবে। এই বাড়তি র‌্যাম সুবিধা নেওয়ার কারণে অতিরিক্ত ২৩টি অ্যাপ ব্যাকগ্রাউন্ডে রানিং রাখতে পারবেন গ্রাহকরা।

ভিভো ভি২১ স্মার্টফোনে প্রথমবারের মতো ব্যবহার করা হয়েছে ডুয়াল স্পটলাইট প্রযুক্তি। এছাড়াও প্রথমবার সেলফি ক্যামেরায় এসেছে অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন (ওআইএস) প্রযুক্তি। ভি২১ই স্মার্টফোনের সেলফি ক্যামেরাটি ৪৪ মেগাপিক্সেলের। এছাড়া দু’টি স্মার্টফোনেই দারুণ সব ক্যামেরা প্রযুক্তি যুক্ত করা হয়েছে। রয়েছে ডুয়াল ভিউ ভিডিও প্রযুক্তি, আলট্রা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা, আলট্রা স্ট্যাবল ভিডিও এবং ৪কে মানের ভিডিও ধারণের সক্ষমতা।

৩৩ ওয়াটের ফ্ল্যাশ চার্জের সঙ্গে স্মার্টফোন দু’টিতে রয়েছে ৪০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। বাজারে ৮ গিগাবাইট র‌্যামের স্মার্টফোনগুলোর সঙ্গে তাল মিলিয়েই ভি২১ এবং ভি২১ই এর দাম নির্ধারণ করেছে ভিভো। ভি২১ এর বাজারমূল্য ৩২ হাজার ৯৯০ টাকা এবং ভি২১ই এর ২৬ হাজার ৯৯০ টাকা।

ভিভো ওয়াই৫৩এস: ভিভোর সবচেয়ে সাম্প্রতিক স্মার্টফোন ভিভো ওয়াই৫৩এস। ভিভোর ওয়াই সিরিজের প্রায় সব ফোনগুলোই সাধারণত মিডরেঞ্জ এবং বাজেট ফোন হয়ে থাকে। ওয়াই৫৩এস’ও এর ব্যতিক্রম নয়। ২২ হাজার ৯৯০ টাকার এই স্মার্টফোনে ৮ গিগাবাইট র‌্যাম যুক্ত করা হয়েছে; যা সাধারণভাবে ১১ গিগাবাইট পর্যন্ত এক্সটেন্ড করা যায়; রম থেকে ৩ গিগাবাইট নিয়ে। তবে, এই স্মার্টফোনটি আরো এগিয়ে রয়েছে। যদি ফোনটির সিস্টেম আপডেট করা হয় তবে ৩ গিগাবাইটের পরিবর্তে ৪ গিগাবাইট র‌্যাম এক্সটেন্ডেড করা যাবে। আবার ওয়াই৫৩এস এর রমও এক্সটেন্ড করা যায় । এতে ডিফল্ট ১২৮ গিগাবাইট রম রয়েছে যা এক্সটেন্ড করা যাবে ১ টেরাবাইট পর্যন্ত।

মূলত এই স্মার্টফোনটি ব্যাটারি, চার্জিং প্রযুক্তি ও শক্তিশালী স্টোরেজের পরিপূর্ণ একটি প্যাকেজ। ওয়াই৫৩এস এর ব্যাটারিটি ৫০০০ এমএএইচ সক্ষমতার। ক্যামেরা প্রযুক্তিতেও গ্রাহকদেরকে চমৎকার অভিজ্ঞতা দিবে ভিভো ওয়াই৫৩এস। ৬৪ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা, ফ্ল্যাশ চার্জিং সাপোর্ট, প্রচুর স্টোরেজ অপশন এবং অন্যান্য উদ্ভাবনী ফিচারের সমন্বয় এই ভিভো স্মার্টফোনটি সত্যিই একটি নির্ভরযোগ্য সঙ্গী।

ভিভো বাংলাদেশের ব্র্যান্ড ম্যানেজার তানজীব আহামেদ বলেন, ভিভো গ্রাহককেন্দ্রিক উদ্ভাবনের বৈশিষ্ট্যগুলির জন্যে সর্বোত্তম অভিজ্ঞতা প্রদানের উপর জোর দিয়ে কাজ করে থাকে। এই এক্সপান্ডেবল র‌্যাম বৈশিষ্ট্যটি মাল্টিটাস্কিংয়ের জন্যও উচ্চতর কর্মক্ষমতা নিশ্চিত করে । গ্রাহকদের পছন্দ বুঝে প্রতিটি ধাপে তাদের জন্য সবসময় আরও উন্নত প্রযুক্তি আনার চেষ্টা করে ভিভো ।

আরও পড়ুন

গ্রাহকের কাছে ভিভো স্মার্টফোন পৌঁছে দেবে ই-কুরিয়ার

গেইমিং জমাতে মাল্টি টারবো ফিচার ভিভো স্মার্টফোনে

৫জি স্মার্টফোনে দ্রুত বর্ধনশীল ব্র্যান্ড ভিভো : স্ট্রাটেজি অ্যানালিটিকস

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project