Techno Header Top and Before feature image

ই-কমার্সসহ তথ্যপ্রযুক্তি উদ্যোগে নারীর অংশগ্রহণ ৫০ শতাংশে নিতে চান প্রধানমন্ত্রী

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাংলাদেশের ই-কমার্স, তথ্যপ্রযুক্তি উদ্যোগসহ তথ্যপ্রযুক্তি খাতে নারীর অংশগ্রহণ ২০৪১ সালের মধ্যে ৫০ শতাংশে নিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

আর আগামী ৫ বছরে এই অংশগ্রহণ ২৫ শতাংশে উন্নীত করতে চান তিনি। 

প্যারিসে জেনারেশন ইকুয়িটি ফোরামের ‘টেকনোলজি অ্যান্ড ইনোভেশন ফর জেন্ডার ইকুয়ালিটি’ শীর্ষক আয়োজনে বৃহস্পতিবার এক ভিডিও বার্তায় শেখ হাসিনা বলেন, ‘বেইজিং সম্মেলনের ২৫তম বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে আমার আগের প্রতিশ্রুতির ধারাবাহিকতায় আমি এই প্রতিশ্রুতি আজ দিতে চাই।’

এ সময় তিনি তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ প্রযুক্তিগত স্টার্টআপস এবং ই-কমার্স  খাতে ২০২৬ সাল নগাদ ২৫ শতাংশে এবং ২০৪১ সাল নাগাদ ৫০ শতাংশে উন্নীত করার প্রতিশ্রতি দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বৈশ্বিক রাজনীতি, অর্থনীতি এবং শ্রম ক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ উৎসাহব্যঞ্জক নয়। আজ পর্যন্ত মাত্র ২৫ শতাংশ সংসদ সদস্য নারী, যদিও শ্রম ক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ পুরুষদের তুলনায় এখনও ৩১ শতাংশ কম ।

তিনি বলেন, সাহসী নীতিগত ব্যবস্থা গ্রহণ এবং সম্মিলিত পদক্ষেপের মাধ্যমে আমাদের অবশ্যই এই পরিস্থিতির পরিবর্তন করতে হবে।

নারীর ক্ষমতায়ন তাঁর সরকারের অন্যতম অগ্রাধিকার উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্প কার্যত নারীদের তথ্য প্রযুক্তি খাতে অন্তর্ভূক্তিমূলক।’

তিনি বলেন, তাঁর সরকার আইটি পেশাদার এবং দক্ষ উদ্যোক্তা তৈরির লক্ষ্যে বিভিন্ন ব্যবহারিক প্রকল্প চালু করেছে।

নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা প্রতিরোধে বাংলাদেশে বিভিন্ন ডিজিটাল সফটওয়্যার ব্যবহৃত হচেছ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সাইবার প্ল্যাটফর্মগুলোতে নারীদের আরও সুরক্ষার দিকে পরিচালিত করতে গত তিন বছরে ৭১ হাজার নারীকে সাইবার সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।’

জেনারেশন ইক্যুয়ালিটি ফোরাম লিঙ্গ সমতার জন্য ইউএন উইমেন-এর আহবানে মেক্সিকো এবং ফ্রান্স সরকারের যৌথভাবে আয়োজিত একটি বিশ্বব্যাপী আন্দোলন।

*

*

আরও পড়ুন