Techno Header Top and Before feature image

হাইটেক পার্কে বছরে ১৮ লাখ ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য উৎপাদন করবে র‌্যাংগস

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সিলেটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্কে বছরে সাড়ে ১৮ লাখ টিভি, রেফ্রিজারেটর, এসি ও হোম অ্যাপ্লায়েন্স পণ্য উৎপাদন করবে র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেড।

প্রতিষ্ঠানটিকে পার্ক কর্তৃপক্ষ ৩২ একর জমি বরাদ্দ দিয়েছে। যেখানে কারখানা স্থাপনে ৮০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবেন র‌্যাংগস।

রবিবার প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে এ বিষয়ে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব) হোসনে আরা বেগম এবং র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জে. একরাম হোসেন এক চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

পলক বলেন, সিলেটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্কে এখন পর্যন্ত ২০টি প্রতিষ্ঠান মোট ৭৪ দশমিক ০৬ একর ভূমি ও ১৬ হাজার ৫০০ বর্গফুট স্পেস বরাদ্দ নিয়েছে।

তিনি জানান, প্রতিষ্ঠানগুলো শিগগিরই সেখানে কার্যক্রম শুরু করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে । কোম্পনিগুলোর লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী এখানে প্রায় ৫০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে। সিলেটের এই পার্ক থেকে ভারতের সেভেন সিস্টারস এর বাজারে প্রবেশের ব্যাপক সম্ভাবনা থাকায় দেশি-বিদেশি আরও অনেক কোম্পানি এই পার্কে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখাচ্ছে। এ কারণে আমরা পার্কের পাশ্ববর্তী এলাকায় আরও ৬৪০ একর ভূমি অধিগ্রহণ করার উদ্যোগ নিচ্ছি। এরমধ্যে ৮৫ একরের প্রস্তাব প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, শাহজালাল বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট মেডিকেল কলেজ, সিলেট এমসি কলেজসহ  সিলেটে প্রায় লক্ষাধিক শিক্ষার্থী রয়েছে। তাদের কথা বিবেচনা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই অঞ্চলের জন্য একটি হাইটেক পার্ক প্রতিষ্ঠার কথা বলেছিলেন। প্রযুক্তিভিত্তিক কর্মসংস্থানের একটি ডিজিটাল ইকোনমিক হাব হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্ক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

তিনি জানান , র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেড এই পার্কে আগামী তিন বছরের মধ্যে রেফ্রিজারেটর, টেলিভিশন, এয়ার কন্ডিশনার (এসি), হোম অ্যান্ড কিচেন অ্যাপ্লায়েন্সেস এবং মোলডিংয়ের জন্য পৃথক পাঁচটি ফ্যাকটরি স্থাপন করবে। এর ফলে শুধু র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেডেই প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে ৫০০০ মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। হাইটেক পার্কে কাজ করলে তারা ১৪টি প্রনোদনা সুবিধাসহ ওয়ানস্টপ সার্ভিসের মাধ্যমে ১৪৮ ধরনের সেবা পাবে।

তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম বলেন, পার্কের মধ্যেই ‘শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপনের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এখান থেকে যে দক্ষ জনবল তৈরি হবে তারাই আবার এই পার্কে কাজ করার সুযোগ পাবে। এর ফলে ঢাকার বাইরে দক্ষ জনবলের যে সংকট তা দূর হবে।

হোসনে আরা বেগম বলেন, সরকারেরর নিজস্ব অর্থায়নে মোট ৩৩৬ কোটি ৪২ লক্ষ ৪৯ হাজার টাকা ব্যয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্ক সিলেট প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। সরকারের অগ্রাধীকার প্রকল্প হওয়ায় সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করে এটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এই হাইটেক পার্কটি এখন বিনিয়োগের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত।

র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক একরাম হোসেন বলেন, র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড বাংলাদেশে দীর্ঘ ৩৫ বছর যাবৎ সুনাম ও সফলতার সাথে র‌্যাংগস, সনি, কেলভিনেটর, ফুজি ইত্যাদি ব্রান্ডের ইলেকট্রনিক্স পণ্য সামগ্রীর ব্যবসা পরিচালনা করছে।

‘র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড সিলেটে প্রতি বছর দশ লাখ রেফ্রিজারেটর, পাঁচ লাখ টেলিভিশন, দুই লাখ এয়ার কন্ডিশনার (এসি) এবং দেড় লাখ হোম অ্যান্ড কিচেন অ্যাপ্লায়েনন্সেস উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে। ভবিষ্যতে কনজিউমার ইলেক্ট্রনিক্স-এর আওতাধীন হাইটেক পণ্য সামগ্রী যেমন আইওটি, ইউআইডিএস উৎপাদন করার পরিকল্পনার রয়েছে, বলছিলেন তিনি।

এডি/২০২১/ফেব্রুয়ারি২৮

আরও পড়ুন

উইটসা পুরস্কার পেল বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ

ওয়ালটনকে হাইটেক পার্ক ঘোষণা, বরাদ্দ পেল হাইটেক সিটিতে জমি

*

*

আরও পড়ুন