Techno Header Top and Before feature image

এআই নিয়ে গবেষণা ও বিনিয়োগ বেশি যুক্তরাষ্ট্রে

ছবি : ইন্টারনেট
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) নিয়ে কাজ করা  কোম্পানিগুলোতে অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে বিনিয়োগ বেড়েছে। প্রতি সপ্তাহেই কোনো না কোনো রিসার্চ ইনস্টিটিউট থেকে গবেষণাপত্র বের হচ্ছে।

গত দুই বছরে যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও ইউরোপে এআই প্রযুক্তির অগ্রগতি নিয়ে গবেষণা চালিয়েছে সেন্টার ফর ডেটা ইনোভেশন। তাদের এক রিপোর্ট অনুযায়ী, এআই সুপারপাওয়ার হতে দ্রুত ছুটছে চীন। শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তাদের পার্থক্য কমে আসছে। এই প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে আছে ইউরোপ।

কয়েক বছর আগেই গবেষণা পত্রের সংখ্যায় চীন ছাড়িয়ে গেছে ইউরোপকে। তবে চীনের অনেক গবেষণাপত্র থাকলেও সেগুলো ইউরোপের চেয়ে নিম্নমানের। অন্যদিকে, সবচেয়ে শক্তিশালী কম্পিউটারের তালিকা ‘টপ৫০০’ অনুযায়ী, চীনের অবস্থান শীর্ষে। তাদের আছে ২১৪টি সুপারকম্পিউটার। যুক্তরাষ্ট্রের আছে ১১৩টি ও ইউরোপের আছে ৯১ টি সুপারকম্পিউটার।

২০১৯ সালেও যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও ইউরোপের এআই গবেষণার ওপর রিপোর্ট প্রকাশ করেছিলো সেন্টার ফর ডেটা ইনোভেশন। সে রিপোর্ট অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের এআইভিত্তিক স্টার্টআপগুলোতে বিনিয়োগের পরিমাণ অনেক বেশি। তাদের স্টার্টআপগুলো সে বছর ১৪ বিলিয়ন ডলারের ফান্ডিং লাভ করে। চীনে বিনিয়োগের পরিমাণ ছিলো ৮ বিলিয়ন ডলার। ইউরোপের ফান্ডিং ছিলো ৩.২ বিলিয়ন ডলার।

ইউরোপে এইআইয়ের জন্য ৫৭ শতাংশ ফান্ডিং আসতো যুক্তরাজ্য থেকে। ব্রেক্সিটের ফলে আগামী বছরগুলোতে ফান্ডিং আরও কমবে বলে জানিয়েছেন এআই গবেষকরা। অর্থ সংকট কাটাতে ইউরোপের স্টার্টআপগুলো এখন যুক্তরাষ্ট্রে যেতে আগ্রহী হচ্ছে। যেমন কোলিব্রা স্টার্টআপটি ব্রাসেলসের হলেও সম্প্রতি তারা নিউইয়র্কে অফিস স্থানান্তর করেছে।

ইন্টারনেট অবলম্বনে এজেড/জানুয়ারি ৩০/২০২১

আরও পড়ুন

এয়ারবাসকে বাঁচিয়েছে এআই

ফুসফুসের ক্যান্সারের সঙ্গে কোভিড-১৯ এর পার্থক্য জানাচ্ছে এআই

কে কী কিনবেন তাও জানে এআই

৫ বছর পরেই মানুষের চেয়ে স্মার্ট হবে এআই : মাস্ক

*

*

আরও পড়ুন