Techno Header Top and Before feature image

দেশে স্যামসাংয়ের এসি কারখানা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে এয়ার কন্ডিশনার (এসি) উৎপাদন শুরু করেছে বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ড স্যামসাং।

নরসিংদী জেলার শিবপুরে অবস্থিত ফেয়ার ইলেক্ট্রনিক্সের কারখানায় এই এসি কারখানা করা হয়েছে।

বুধবার তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক কারখানাটির উদ্বোধন করেন।

এ সময় কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত এইচ ই লি জ্যাং কেয়ান, নরসিংদীর জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন, স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স বাংলাদেশের নব নিযুক্ত বাবস্থাপনা পরিচালক হয়্যানসাং উ, সাবেক বাবস্থাপনা পরিচালক স্যাংওয়ান ইউন, ফেয়ার গ্ৰুপের  চেয়ারম্যান রুহুল আলম আল মাহবুব, ডিরেক্টর মুতাসিম দাইয়ান, ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ রাসেল উপস্থিত ছিলেন।

পলক বলেন, দেশে স্যামসাংয়ের সর্বাধুনিক ফোন তৈরি হচ্ছে। আগামী দুই-এক বছরের মধ্যে স্যামসাংয়ের টিভি, রেফ্রিজারেটর, এয়ারকন্ডিশনার ও স্মার্টফোন শুধু বাংলাদেশে তৈরিই হবে না, বিদেশে রপ্তানিও শুরু হবে।

‘২০০৪ সালে স্যামসাং বাংলাদেশে ১৫ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের অসহযোগিতা ও হাওয়া ভবনের অনৈতিক প্রস্তাবের কারণে স্যামসাং সেই বিনিয়োগ বাংলাদেশ থেকে ফিরিয়ে নিয়ে ভিয়েতনামে করে। যার ফলে ভিয়েতনামের কারখানায় ১৫ বছরে এক লাখ ৬০ হাজার তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান হয়েছে। দেশটি এখন রফতানি করে ৭০ বিলিয়ন ডলার আয় করছে। যা বাংলাদেশে হতে পারতো’ বলছিলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল ডিভাইস উৎপাদন করে বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির উদ্যোগ নিয়েছেন উল্লেখ করে পলক বলেন, এর ফলে তথ্যপ্রযুক্তি  খাতে ১৫ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান নিশ্চিত হয়েছে। আইসিটি খাতে সফটওয়্যার, হার্ডওয়্যার রফতানি করে এক বিলিয়ন ডলার আয় করেছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সনদ নির্ভর না হয়ে দক্ষতা নির্ভর শিক্ষায় গুরুত্ব দিয়ে দক্ষ জনবলে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হবে।

এ সময় তিনি নরসিংদীতে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিওবেশন সেন্টার ও হাইটেক পার্ক করার ঘোষণা দেন।

রুহুল আলম আল মাহবুব বলেন, বাংলাদেশের ভোক্তাদের সাধ এবং সাধ্যের বিষয়টি প্রাধান্য দিয়ে দেশে স্যামসাং এয়ার কন্ডিশনার তৈরি শুরু করেছেন তারা। এই কারখানা থেকে উৎপাদিত স্যামসাং এয়ার কন্ডিশনার যেমন সাশ্রয়ী মূল্যে দেশের জনগণ কিনতে পারবে তেমনি ভবিষ্যতে বিদেশে রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখবে।

কারখানাটিতে স্যামসাংয়ের নতুন মডেলের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির এসি প্রস্তুত শুরু হয়েছে। শুরুর বছরে ২৫ হতে ৩০ হাজার উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও এটি পরের বছর হতে ১ লাখে নিয়ে যেতে চান উদ্যোক্তারা।

অনুষ্ঠানে ফেয়ার গ্রুপের উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব) হামিদ আর. চৌধুরী, চিফ মার্কেটিং অফিসার মেসবাহ উদ্দিন, ডিরেক্টর অপারেশন ফিরোজ মোহাম্মদ এবং হেড অফ মার্কেটিং জে. এম. তসলিম কবীর উপস্থিত ছিলেন।

এডি/২০২১/জানুয়ারি২৭

*

*

আরও পড়ুন