Techno Header Top and Before feature image

কল কম, বার্ষিক ফিতে ছাড় চায় আইজিডব্লিউ-আইসিএক্সগুলো

আইজিডব্লিউ-আইসিএক্স-বিটিআরসি-টেক শহরhor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিদেশি ভয়েস কল ব্যাপকহারে কমে যাওয়ায় বার্ষিক লাইসেন্স নবায়ন ফিতে ছাড় চাইছে দেশের ইন্টারন্যাশনাল গেটওয়ে (আইজিডব্লিউ) ও ইন্টারকানেকশন এক্সচেঞ্জ (আইসিএক্স) অপারেটরগুলো।

হোয়াটসঅ্যাপ, ভাইবার, ইমো, স্কাইপে, ম্যাসেঞ্জারসহ কমিউনিকেশন্স অ্যাপগুলো প্রতিদিন এত বেশি বিদেশি ভয়েস কল আনছে যে সেখানে প্রচলিত ইনমাকিং কল মৃত প্রায়।

ইন্টারন্যাশনাল গেটওয়ে প্রতিষ্ঠানগুলো বলছে, বার্ষিক লাইসেন্স নবায়ন ফি কমিয়ে ৫০ লাখ টাকা করা এবং ভয়েস সেবার পাশাপাশি এসএমএস সেবাও তাদের মাধ্যমে দেয়ার দাবি করছেন তারা।

এখন এই বার্ষিক নবায়ন ফি সাড়ে ৭ কোটি টাকা। এছাড়া বিদেশি এসএমএস সার্ভিসও তাদের মাধ্যমে আসে না।

রোববার দেশের আইজিডব্লিউ এবং আইসিএক্স অপারেটরদের সাথে বৈঠক করে বিটিআরসি। সংস্থাটির সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে এসব বিষয় তোলেন ব্যবসায়ীরা।

বিটিআরসির ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ এহসানুল কবিরের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠিত এ সভায় আইজিডব্লিউ অপারেটরস ফোরাম (আইওএফ) এর পক্ষে সংগঠনের নির্বাহী সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো: আবদুল হান্নান (অব:) দেশে বৈধ পথে বিদেশি কলের পরিমান কমে যাওয়ায় বার্ষিক লাইসেন্স নবায়ন ফি ৫০ লাখ টাকা করা এবং ভয়েস সেবার পাশাপাশি এসএমএস সেবাও আইজিডব্লিউ এর মাধ্যমে পরিচালনার দাবি জানান ।

বৈঠকে আইসিএক্স ফোরামের পক্ষে এমএন্ডএইচ টেলিকমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো: মোস্তাফিজুর রহমান (অব:) বলেছেন, বিভিন্ন ওটিটি অ্যাপসের কারণে ভয়েস কল থেকে আয় কমে যাওয়ায় বার্ষিক লাইসেন্স নবায়ন ফি ৫০ লাখ করার বিষয়টি বিবেচনা করা উচিত।

বর্তমানে কেবল দেশীয় এসএমএস সেবা আইসিএক্স হয়ে গ্রাহকের কাছে পৌছায়, তাই দেশি ও বিদেশি এসএমএস সেবা আইসিএক্স হয়ে পরিচালনার কার্যক্রম গ্রহণ করার বিষয়টি দেখার কথা বলেন তিনি।

সরকার অবশ্য আন্তর্জাতিক গেটওয়েগুলোর ব্যবসা বাঁচিয়ে রাখতে সরকার প্রতি মিনিটের ইনকামিং কলের টার্মিনেশন রেট ব্যাপক কমিয়েছে। বিদেশ থেকে আসা কলের রেট কয়েক দফায় অনেক কমানোর পরেও প্রতি মিনিট কথা বলার জন্যে এখনও কয়েক টাকা করে খরচ হয়। কিন্তু সেই তুলানায় কমিউনিকেশন অ্যাপ ব্যবহার করে কথা বললে শুধু ডেটা ব্যবহারের খরচ। সেটিও প্রতি মিনিটের জন্যে নামকাওয়াস্তের হিসাব।

বৈঠকে বিটিআরসির কমিশনার (লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং) আবু সৈয়দ দিলজার হুসেইন প্রচলিত গাইড লাইনের আলোকে রাষ্ট্রের স্বার্থ সমুন্বত রেখে অপারেটরদের কার্যক্রম পরিচালনা করার এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কমিশনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

কমিশনের মহাপরিচালক (এসএস) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাসিম পারভেজ অপারটেরদের ব্যবসায়িক পরিচালনার ক্ষেত্রে উদ্ভূত বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতাসমূহ কমিশনে উপস্থাপনের আহবান জানিয়ে ব্যবসার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিতে পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

সংস্থাটির মহাপরিচালক (এসএম) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো: শহীদুল আলম জানান, প্রযুক্তি প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হচ্ছে। তাই আইটিইউ এর পরামর্শ অনুযায়ী বিভিন্ন লাইসেন্সিগণ যাতে একই প্লাটফর্মে কাজ করতে পারে সেদিকে নজর দেয়ার ওপর গুরুত্বরোপ করেন।

বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র সামাজিক যোগাযোগামাধ্যমকে একটি চ্যালেঞ্জিং বিষয় উল্লেখ করে করণীয় নির্ধারণে গুরুত্ব প্রদান করেন।

সভাপতির বক্তব্যে বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, পরিবর্তিত প্রযুক্তির এই সময়ে নতুন নতুন প্রযুক্তি আনয়নে উৎসাহ প্রদান ও বিদ্যমান প্রযুক্তি ব্যবহারে কমিশন গাইডলাইন সংশোধনের পরিকল্পনা করছে। আইজিডব্লিউ ও আইসিএক্স এর বার্ষিক নবায়ন ফি যৌক্তিক হ্রাসে ব্যাপারে কার্যক্রম চলমান।

এডি/২০২০/ডিসেম্বর০৩/২২৩৩

*

*

আরও পড়ুন