Techno Header Top and Before feature image

সুইডেনেও ফাইভজি স্থাপনের কাজ হারাতে পারে হুয়াওয়ে

ছবি : ইন্টারনেট

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সুইডেনে ফাইভজি স্থাপনের কাজ হারাতে যাচ্ছে হুয়াওয়ে। জনমত জরিপের ফলফের ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে পারে সুইডশ সরকার।

সুইডিশ জনগণের ৮২ শতাংশ, চীনে মানবাধিকার ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার উপর জোর দিয়েছে। অন্যথায় দেশটির সঙ্গে কোনো চুক্তি করতে রাজি নয় তারা। চীনা কোম্পানি হুয়াওয়ের ফাইভজি স্থাপনের প্রতি ইতিবাচক রায় দিয়েছে মাত্র ১৮ শতাংশ জনগণ।

গত মাসে সুইডিশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স (ইউআই) এই জরিপের ফল প্রকাশ করে।

সুইডিশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সের এশিয়া প্রোগ্রামের প্রধান র্জন জারডেন বলেন, সুইডেনের জনগণের মত পাল্টাতে হলে আগে চীন সরকারকে বিষয়গুলোতে পরিবর্তন আনতে হবে। তা না হলে দুটি দেশের অর্থনৈতিক সম্পর্কের উন্নতিতেও চীন সম্পর্কে সুইডিশ জনগণের দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টাবে না। মানবাধিকার ও গণতন্ত্রের মতো বিষয়গুলো সুইডিশদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। চীনে এগুলোর চর্চা একেবারেই নেই।

চীনা কোম্পানি হুয়াওয়ে ও জেডটিই সুইডেনে কাজ হারাবে কিনা তা নির্ভর করছে আদালতের রায়ের উপর। সুইডিশ পোস্ট ও টেলিকম অথোরিটি (পিটিএস) জানিয়েছে, কোম্পানি দুটিকে নিষিদ্ধ করার আপিলের রায় পাওয়া যাবে আগামী মাসে।

এ বিষয়ে হুয়াওয়ের মুখপাত্র জানিয়েছে, তারা লড়াই চালিয়ে যাবে। আদালতের প্রক্রিয়া এখনো চলমান। তাই সবারই অপেক্ষা করা উচিত।

অক্টোবরে সুইডিশ টেলিকমগুলোকে হুয়াওয়ের অবকাঠামো ও যন্ত্রপাতি ব্যবহারে নিষেধ করে এবং ফাইভজি এস্পেক্ট্রাম নিলামে অংশ নিতে বাধা দেয় সুইডেনের পোস্ট ও টেলিকম অথোরিটি (পিটিএস)। এর প্রতিক্রিয়ায় আদালতে আপিল করে হুয়াওয়ে।

ইন্টারনেট অবলম্বনে এজেড/ ডিসেম্বর ২৪/২০২০/১১২২

*

*

আরও পড়ুন