Techno Header Top and Before feature image

করোনার চ্যালেঞ্জ উতড়ে চলছে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : করোনার চ্যালেঞ্জ উতড়ে চলছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের মহোৎসব ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০২০।

বৈশ্বিক এই মহামারীতে পুরো পৃথিবী যেখানে টালমাটাল সেখানে করোনার চ্যালেঞ্জ নিয়ে নিজেদের ডিজিটাল বাংলাদেশের ভিশনে পথে নিয়মিত কার্যক্রমগুলো চালিয়ে যাওয়ার প্রায়াস নিচ্ছে বাংলাদেশ। 

আর কীভাবে তা সম্ভব হচ্ছে তা এই আয়োজনের উদ্বোধন ঘোষণার বক্তব্যে বলেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। 

রাষ্ট্রপতি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের সফল বাস্তবায়নের ফলেই করোনাভাইরাস মহামারী দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি থামিয়ে দিতে পারেনি।

‘করোনা মহামারী আমাদের উন্নয়ন ও অগ্রগতির ধারাকে সাময়িকভাবে বাধাগ্রস্ত করলেও, থামিয়ে দিতে পারেনি। এর কারণ ডিজিটাল বাংলাদেশের সফল বাস্তবায়ন।’ বলছিলেন তিনি। 

রাষ্ট্রপতি বলেন, মহামারীর মধ্যেও ই-কমার্সের মাধ্যমে ঘরে বসে কেনাবেচা করা, অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম, ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে বিচারিক কার্যক্রম, টেলি মেডিসিন সেবাসহ বিভিন্ন অনলাইন সেবা এ কঠিন সময়ে জীবনযাত্রাকে অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে।

‘করোনা ট্রেসার বিডি মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলো চিহ্নিত করা সম্ভব হয়েছে। এছাড়া গুজব ও অসত্য তথ্য রোধে দেশব্যাপী ‘সত্যমিথ্যা যাচাই আগে ইন্টারনেটে শেয়ার পরে’ ক্যাম্পেইন পরিচালনা করা হচ্ছে, যা বর্তমান প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত সময়োপযোগী বলে আমি মনে করি।’ বলছিলেন তিনি। 

রাষ্ট্রপতি বলেন, অফিস-আদালতে চালু করা ই-নথি ব্যবস্থা সরকারি প্রতিষ্ঠানের সেবা কার্যক্রমে গতিশীলতা বাড়িয়েছে, তাতে সরকারি সেবা কার্যক্রম চালু রাখা এবং নাগরিকের কাছে সেবা পৌঁছানোও সহজ হয়েছে। 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশ উন্নত হবার পরে প্রযুক্তির ব্যাবহার শুরু করেছে, কিন্তু জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে বাংলাদেশ কে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, প্রযুক্তি আর তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে আসিয়ান-এশিয়ান দেশের মধ্যে অন্যতম দেশ হিসেবে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি সূচক ৫ এর ওপরে ছিল। বেসরকারি অংশীদারদের সঙ্গে নেওয়ায় ১০০ কোটির ই-জিপি সফটওয়্যার ২০ কোটি টাকায় তৈরি করে দেশের টাকা সাশ্রয় করা গেছে।

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০২০ এর এবারের আয়োজন সপ্তম। বুধবার  বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মাল্টি পারপাস হলে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভিডিও বার্তার মাধ্যমে প্রদর্শনীর উদ্বোধন ঘোষণা করেন রাষ্ট্রপতি। 

‘সোশালি ডিসটেন্সড, ডিজিটালি কানেকটেড’- এই প্রতিপাদ্য নিয়ে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী এই আয়োজন চলবে ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

এতে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিষয়ভিত্তিক সেমিনার। মেলায় বিভিন্ন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ভার্চুয়ালি হাজির হয়েছেন নিজেদের কাজ ও উদ্ভাবন নিয়ে। 

বৃহস্পতিবার রাত ৮টায়  বিভিন্ন দেশের মন্ত্রীদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হবে মিনিস্ট্রিরিয়াল কনফেরেন্স। কনফারেন্সে মূল বক্তা হিসেবে কিনোট উপস্থাপনা করবেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ। এ কনফারেন্সের প্রতিপাদ্য বিষয় নির্ধারণ করা হয়েছে ‘এমব্রেইসিং ডিজিটাল টেকনোলজিস ইন দ্যা নিউ নরমাল। 

বিশেষ আয়োজনে রয়েছে ইনক্লুসিভ ডেভেলপমেন্ট বিষয়ক বিশেষ সেমিনার। এতে থাকবে হু এর মেন্টাল হেলথ বিষয়ক এক্সপার্ট অ্যাডভাইজরি প্যানেলের সদস্য এবং অটিজম বিষয়ক ন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি কমিটির চেয়ারপার্সন সায়মা ওয়াজেদ।

এবারের মেলায় বিষয়ভিত্তিক মোট ২৪টি সেমিনার হচ্ছে।

 
এছাড়া  www.digitalworld.org.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে  রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। রেজিস্ট্রেশন হওয়ার পর ভার্চুয়াল ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড দেখতে অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে।
 
এ অ্যাপ যখন লাইভ করা হবে তখন রেজিস্টার্ড দর্শনার্থীর কাছে একটা মেসেজ চলে যাবে। এরপর  ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০২০ এর প্রদর্শনী ঘুরে দেখা যাবে এবং সেমিনার ও কনসার্টে অংশগ্রহণ করা যাবে।
 
অ্যাপ ডাউনলোড করতে যেতে হবে অ্যান্ড্রয়েডে এই ঠিকানায় এবং আইওএসে এই ঠিকানায়

এডি/২০২০/ডিসেম্বর১০/১৬২০

*

*

আরও পড়ুন