Techno Header Top and Before feature image

স্টার্টাপের পরিচর্যায় প্রযুক্তি কেন্দ্র চালু এফবিসিসিআইয়ের

ছবি : সংগৃহীত

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রযুক্তি খাতে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাড়ানোর ‘এফবিসিসিআই টেক সি’  নামের একটি প্রযুক্তি কেন্দ্র চালু করেছে ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই)। স্টার্টাপের পরিচর্যা এবং উদ্যোক্তা তৈরি করবে টেক সি।

রোববার এফবিসিসিআই টেক সি’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এ আয়োজনে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এফবিসিসিআইয়ের মাননীয় প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম। এফবিসিসিসিআইয়ের উপ-প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম ফেরদৌস (অব.) এনডিসি, পিএসসি সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে ‘টেক সি’ নিয়ে প্রেজেন্টেশন দেন এফবিসিসিআইয়ের উপদেষ্টা সোনিয়া বশির কবির।

ডা. দীপু মনি বলেন, প্রযুক্তি, সহযোগিতা, বিশ্বায়নের ধারনার মাধ্যমে আমাদের এগিয়ে নেওয়ার জন্য আজকের এই উদ্যোগ দেখে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার পঞ্চাশতম বার্ষিকী এমন সুন্দরভাবে উদযাপনের জন্য ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইকে আমি ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাচ্ছি।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, অগ্রগামী ও দূরদর্শী চিন্তার জন্য আমি এফবিসিসিআইকে অভিনন্দন জানাই। আরও অভিনন্দন জানাই এফবিসিসিআই টেক সি-এর সফল উদ্বোধনের জন্য। ভিশন ২০২১, ২০৪১ এবং বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ভিশন অর্জনের জন্য তথ্য-প্রযুক্তি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে এফবিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, কোভিড-১৯ জনিত উদ্ভত পরিস্থিতিতে বিশ্বজুড়ে ডিজিটালাইজেশনের বড় ধরনের জোয়ার এসেছে। এর ফলে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও অর্থসংক্রান্ত খাতগুলো প্রযুক্তির সর্বোচ্চ সুবিধা নিতে ডিজিটালাইজেশনের দিকে ঝুঁকে পড়েছে। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয় এবং প্রযুক্তি আত্মীকরণে ইতিমধ্যে বড় ধরনের সাফল্য দেখিয়েছে।

এফবিসিসিআইয়ের উপদেষ্টা সোনিয়া বশির কবির বলেন, এফবিসিসিআই টেক সি স্টার্টাপ চালুর প্রস্তুতিমূলক প্রশিক্ষণ, এজি টেক (কৃষি প্রযুক্তি), ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস (ফিন টেক), মেড টেক (স্বাস্থ্য প্রযুক্তি), এড টেক (শিক্ষা প্রযুক্তি), ই কমার্স, প্রান্তিক পর্যায়ে ব্রডব্যান্ড নির্ভর স্মার্টসিটি চালুসহ নানা বিষয়ে কাজ করবে। এই কেন্দ্র কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা উন্নয়ন, সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিত, ইন্টারনেট অব থিংস তৈরি, সরকারি-বেসরকারি খাতে ব্লকচেইন প্রযুক্তির আত্মীকরণ, ডাটা অ্যানালাইটিকস, মেশিন লার্নিং, অ্যাপলাইড স্কিলে দক্ষতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ইউনিভার্সিটি অব টরেন্টোর অন্টারিও ইনস্টিটিউট ফর স্টাডিজ ইন এডুকেশনের (ওআইএসই) এলিজাবেথ রিজ জনস্টোন। সমাপনী বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের (আইবিএ) অধ্যাপক ড. সৈয়দ ফারহাত আনোয়ার।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে এফবিসিসিআইয়ের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মুনতাকিম আশরাফ, ভাইস প্রেসিডেন্ট রেজাউল করিম রেজনু, মীর নিজাম উদ্দীন, দিলীপ কুমার আগারওয়াল, নিজামুদ্দিন রাজেশসহ পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন।

এজেড/ডিসেম্বর ০৯/২০২০/১২৩৮

*

*

আরও পড়ুন