৪০ বছরের মধ্যে কার্বন-জিরো হবে চীন, কীভাবে?

ছবি: ইন্টারনেট থেকে নেওয়া

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: ২০৬০ সালের মধ্যে কার্বন নিঃসরণকে শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছে চীন সরকার। গত মাসে জাতিসংঘের সাধারণ সভায় দেশটির রাষ্ট্রপতি শি জিংপিং এই ঘোষণা দেন। তার এমন ঘোষণার সম্ভাব্যতা পরীক্ষায় বসেছে গবেষকরা। সবাই বোঝার চেষ্টা করছেন কীভাবে বিশ্বের সবচেয়ে কার্বন নিঃসরণকারী দেশটি এমন স্বল্প সময়ের মধ্যে কার্বন-জিরো টার্গেট অর্জন করবে।

হিসেবে দেখা যায়, ২০৬০ সালের মধ্যে চীনে বিদ্যুৎশক্তির চাহিদা দাঁড়াবে ১৫ হাজার টেরাওয়াটে। ৪০ বছরের মধ্যে কার্বন জিরো এর লক্ষ্য অর্জন করতে হলে চীনকে সৌরশক্তির আকার বাড়াতে হবে ১৬ গুণ, বায়ুশক্তির আকার বাড়াতে হবে ৯ গুণ এবং পারমানবিক বিদ্যুৎকন্দ্রের পরিমাণ বাড়াতে হবে ৬ গুণ।

এর পরেও দেশটির ১৬ শতাংশ বিদ্যুৎ আসবে কয়লা, গ্যাস ও তেল থেকে। এই ১৬ শতাংশ থেকে নিঃসরিত কার্বনকে বায়ুমণ্ডল থেকে সরাসরি টেনে ফেলার জন্য চীন ব্যাপক বনায়ন ও প্রযুক্তিগত সমাধানের উদ্ভাবন করবে।

Techshohor Youtube

চীনের বর্তমান পরিকল্পনায় আগামী পাঁচ বছর দেশটির কার্বন নিঃসরণের পরিমান বাড়তেই থাকবে। এরপর ২০২৫ থেকে পরবর্তী ৫-১০ বছর এটি সর্বোচ্চসীমাতে স্থির থাকবে। অর্থাৎ চীনের কার্বন নিঃসরণ সর্বোচ্চ চুঁড়া বা প্ল্যাটো তে পৌঁছাবে। এরপর ২০৩৫ সাল নাগাদ কার্বন নিঃসরণের পরিমাণ উল্লেখযোগ্যহারে কমতে শুরু করবে।

তবে চীনের মতো দেশে কয়লা-গ্যাস-তেলভিত্তিক শক্তির খাতকে প্রতিস্থাপন করা সহজ হবে বলে মনে করেন না অনেকেই। দেশটির ব্যবসাখাতের একটি বড় অংশ কার্বনভিত্তিক জ্বালানির উপর ভর করে দাঁড়িয়ে আছে। এটিকে পাশ কাটিয়ে প্রাকৃতিক শক্তিভিত্তিক অর্থনৈতি গড়ে তুলতে গেলে অনেক বাধা আসবে।

এদিকে, কেউ কেউ মনে করছেন এই পরিবর্তন ব্যাটারির দামের সঙ্গে সম্পর্কিত। কারণ, আগামী দিনগুলোতে প্রযুক্তির উৎকর্ষে ব্যাটারির খরচ কমে আসবে। ফলে প্রাকৃতিক শক্তির ব্যবহার নিজ থেকেই বাড়তে শুরু করবে। যুক্তরাষ্ট্রের স্টোনি ব্রুক বিশ্ববিদ্যালয়ের এনার্জি সিস্টেম মডেলার হি গ্যাং মনে করেন ব্যাটারির দাম কমে যাওয়ার ফলে ২০৩০ সালের মধ্যেই চীনের ৬০% শক্তি আসবে পরিবেশবান্ধব উৎস থেকে।

বিশেষজ্ঞরা চীনের এই লক্ষ্যকে ‘গেম চেঞ্জার’ বলে আখ্যা দিয়েছেন। তাদের মতে চীনের এমন পদক্ষেপ বিশ্বব্যাপি নবায়নযোগ্য গতিকে ত্বরান্বিত করবে।

নেচার অবলম্বনে, এমআর/অক্টোবর ২৬/২০২০/১১১১

আরও পড়ুন –

কার্বন নিঃসরণ কমাতে ক্লাইমেট ক্লক তৈরি

জ্বালানী তৈরি হবে পাতা থেকে!

জলবায়ু রক্ষায় অভিনব উদ্যোগ

অনলাইনে গ্রোসারি ডেলিভারি কার্বন নিঃসরণ কমায় ৪৩% : বেজস

কার্বন নিঃসরণ কমাতে বিল গেটসের বিনিয়োগ

*

*

আরও পড়ুন