Samsung IM Campaign_Oct’20

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের ১৩০ সেবা ডিজিটালে

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) ১৩০টি সেবার ডিজিটাইজেশন করা হয়েছে।

সরকারের মাইগভ প্ল্যাটফর্মের আওতায় র‍্যাপিড ডিজিটাইজেশন কার্যক্রমে এসব সেবা ডিজিটাল প্লাটফর্মে আনা হয়েছে।

ফলে শিক্ষা সংশ্লিষ্ট সেবাগ্রহীতাগণ যেমন, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক, কর্মচারীসহ সকলে ডিজিটাল পদ্ধতিতে সেবার আবেদন, সেবাসংশ্লিষ্ট পেইমেন্ট, সেবার অগ্রগতি, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিল এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কার্যক্রম অনলাইন ও মোবাইলের মাধ্যমে করতে পাবেন। 

মাইগভওয়েব, মাইগভ অ্যাপ, ৩৩৩ কলসেন্টারে কল করে অথবা ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের মাধ্যমে এসব সেবা পাওয়া যাবে। এতে সকল সেবার সকল ধরনের তথ্য এবং উক্ত সেবার আবেদনও ট্র্যাক করা যাবে।

অপরদিকে সেবা প্রদানকারী কর্মকর্তাগণও একক জায়গা থেকে সকল সেবা প্রদান করতে পারবেন। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতাধীন শিক্ষক-কর্মচারীগণ মাতৃকালীন ছুটি, বৈদেশিক মাস্টার্স প্রভৃতি সেবা অনলাইনে বা মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে গ্রহণ করতে পারবেন। 

রোববার ভার্চুয়াল আয়োজনে এই সেবা ডিজিটাইজেশনের কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন  শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, শিক্ষা উপমন্ত্রী জনাব মহিবুল হাসান চৌধুরী এবং তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ মাহবুব হোসেনের সভাপতিত্বে এটুআইয়ের  চিফ টেকনোলজি অফিসার মোহাম্মদ আরফে এলাহী ‘মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের সেবাসমূহকে মাইগভের আওতায় র‍্যাপিড ডিজিটাইজেশন কার্যক্রম সম্পর্কিত’ মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

স্বাগত বক্তব্য দেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক।

ডা. দীপু মনি বলেন, প্রযুক্তির উন্নয়নের সাথে তাল মিলিয়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে  সবাইকে নিজের দক্ষতার উন্নয়নের প্রতি মনোযোগী হতে হবে । নিজেদের সক্ষমতা বৃদ্ধির পাশাপাশি আন্তঃমন্ত্রণালয়ের সমন্বয় সাধনের মাধ্যমে নাগরিক সেবাকে আরও সহজ করতে হবে।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, গত ১১ বছরে প্রযুক্তির অবকাঠামোগত উন্নয়ন যেমন হয়েছে তেমনি ৩৮০০ ইউনিয়নে ফাইবার অপটিক্যাল ক্যাবল সংযুক্ত করা হয়েছে। ১৮ হাজার সরকারি দপ্তরকে ইন্টারনেট কানেক্টিভিটির আওতায় আনা হয়েছে এবং ই-নথিও  ৮ হাজারের অধিক অফিসে চলমান রয়েছে।

তিনি বলেন, শুধুমাত্র জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দেওয়া নয় বরং জনগণের হাতের মুঠোয় সেবা পৌঁছে দেওয়াই মূল লক্ষ্য।

মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, মাইগভ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে মাউশির সেবাগুলোকে ইন্টিগ্রেটেড পদ্ধতিতে একটি একক পয়েন্টের মাধ্যমে জনগণের হাতে পৌঁছে দেওয়ার সুযোগ তৈরি হয়েছে। এর মাধ্যমে শিক্ষা পরিবারের এখন এক জায়গা থেকে ডিজিটাইজ সেবাগুলো গ্রহণ করতে পারবে এবং জনগণের হয়রানি কমে আসবে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) প্রফেসর মোঃ শাহেদুল খবির চৌধুরীর সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ছিলেন এটুআইয়ের প্রকল্প পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) ড. মোঃ আব্দুল মান্নান, যুগ্ম-প্রকল্প পরিচালক ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্মসচিব (ই-গভর্নেন্স) ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর,  যুগ্ম-প্রকল্প পরিচালক (যুগ্মসচিব) সেলিনা পারভেজ, পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরী।

এডি/২০২০/সেপ্টেম্বর২৭/২১০০

*

*

আরও পড়ুন