Samsung IM Campaign_Oct’20

জিপিতে ১০ সেকেন্ডে নগদ অ্যাকাউন্ট

Evaly in News page (Banner-2)
টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : গ্রামীণফোনের সাড়ে সাত কোটি গ্রাহক এখন চাইলেই মাত্র ১০ সেকেন্ডের চেয়েও কম সময়ে খুলে ফেলতে পারছেন মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সেবা ‘নগদ’ এর অ্যাকাউন্ট।
 
ইতোমধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে সেবাটি চালু করেছে দুই পক্ষ। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে এটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে বলে জানিয়েছে কোম্পানি দুটি।
 
এই প্রক্রিয়ায় গ্রামীণফোনের গ্রাহক কেবল *১৬৭# ডায়াল করেলেই তার অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে। তবে এ ক্ষেত্রে গ্রাহককে কেবল চার ডিজিটের একটি পিন সেট করতে হবে।
 
অ্যাকাউন্ট খোলার পর কোনো গ্রাহক যদি সেটি অ্যাপের মাধ্যমে ব্যবহার করতে চান তাহলে ‘নগদ’ এর অ্যাপটি ডাউনলোড করে সেখানে অ্যাকাউন্টটি অ্যাকটিভ করতে হবে।
 
মোবাইল ফোনে অন্যান্য যে কোনো অ্যাপ ডাউনলোডের পর অ্যাকাউন্টটি অ্যাপে অ্যাক্টিভ করতে যেভাবে মোবাইল নম্বর দেওয়ার পর একটি ভেরিফিকেশন পিন আসে এখানেও সেভাবে ভেরিফিকেশন পিনটি সেট করলেই অ্যাকাউন্টটি অ্যাপে চালু হয়ে যাবে।
 
এর আগে প্রথমে টেলিটক এবং পরে রবি ও এয়ারটেলের গ্রাহকরাও একইভাবে ‘নগদ’ এর অ্যাকাউন্ট খোলার সুযোগ পেয়েছেন এবং সেখান থেকে বড় একটি সংখ্যায় গ্রাহক কেবল এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে ‘নগদ’ ওয়ালেট অ্যাকাউন্ট খুলেছেন।
 
বাংলাদেশ ডাক বিভাগের আর্থিক লেনদেন সেবা ‘নগদ’ গত বছর ২৬ মার্চ আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে নানা ধরণের প্রযুক্তিগত সুবিধা নিয়ে আসে।
 
‘নগদ’ এর হেড অব পাবলিক রিলেশন্স মুহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম বলেন, মোবাইল ওয়ালেট খোলার প্রক্রিয়াকে সহজতর করতে শুরু থেকেই কাজ করা হচ্ছে। এটি সেই প্রক্রিয়ারই অংশ।
 
‘আমাদের বিশ্বাস অ্যাকাউন্ট খোলার প্রক্রিয়াটা সহজ হলে দেশে অধিক সংখ্যক মানুষকে সবচেয়ে দ্রুততার সঙ্গে ফাইন্যান্সিয়াল ইনক্লুশানের মধ্যে আনা যাবে’ বলেন ইসলাম।
 
গ্রামীণফোনের পর বাংলালিংকের গ্রাহকদের জন্যেও একই সুবিধা চালু করতে এরই মধ্যে মোবাইল ফোন অপারেটরটির সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে নগদ।
 
নগদ বলছে, যেহেতু মোবাইল অপারেটদের কাছে তার গ্রাহকের সকল তথ্য বায়োমেট্টিক ভেরিফিকেশন করা আছে সুতরাং একই তথ্য বারবার বিভিন্ন কোম্পানিকে না দিয়ে এক জায়গা থেকেই সেটি সকলে ব্যবহার কতে পারে।
 
এই সেবাটি চালু করতে আগেই বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের কাছ থেকে অনুমোদন নিয়েছে তারা।
 
এডি/২০২০/সেপ্টেম্বর১৭/১৪০০

*

*

আরও পড়ুন