Samsung IM Campaign_Oct’20

কেনো ফোল্ডবল ফোনের বাজারে অনুপস্থিত অ্যাপল?

SurfaceDuo-techshohor
মাইক্রোসফটের ফোল্ডেবল ফোন সার্ফেস ডুয়ো। ছবি : ইন্টারনেট
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ট্রেন্ড সেট করার দৌঁড়ে সবচেয়ে এগিয়ে থাকে অ্যাপল। ২০১৭ সালে তাদের আইফোনে সর্বপ্রথম নচ ডিসপ্লের দেখা মেলে। এরপর থেকে প্রতিটি ফোন কোম্পানি নচসহ ফোন তৈরি করেছে।

তবে অন্যদের ট্রেন্ড ফলো করতে নারাজ অ্যাপল। বর্তমানে ফোল্ডবল ফোন তৈরির হিড়িক পড়েছে। ইতোমধ্যে স্যামসাং, হুয়াওয়ে, মাইক্রোসফট, মটোরলা বাজারে ফোল্ডবল ফোন এনেছে।

এখনও এই ধরনের ফোনের ডিজাইন নির্দিষ্ট নয়। একেক কোম্পানির ফোন একেকভাবে ফোল্ড হয়। এতে একটি বিষয় নিশ্চিত, ডিজাইনারদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা এখনও চলমান।

ডুয়েল স্ক্রিনের ফোনগুলোর ইউজার ইন্টারফেইস তৈরিতে কোম্পানিগুলোকে প্রচুর শ্রম দিতে হচ্ছে। ফলে প্রতিটি ফোল্ডেবল ফোনের দামই আকাশছোঁয়া। এতো পরীক্ষা-নিরীক্ষা, শ্রম ও সময় দেওয়ার পরও ফোল্ডবল ফোনগুলোতে মাঝারি মানের রেটিং দিচ্ছেন রিভিউয়াররা। ২ দিন আগে বাজারে আসা মাইক্রোসফটের সারফেস ডুয়োও রিভিউয়ারদের মন জয় করতে পারেনি।

ফোল্ডেবল ফোনের কয়েকটি ডিজাইন পেটেন্ট করেছে অ্যাপল এমন খবর কয়েক মাস আগে প্রকাশ পায়। তবে ক্রেতারা আগ্রহী কিনা তা নিশ্চিত না হয়ে ফোল্ডেবল ফোন বাজারে আনবে না অ্যাপল।

মার্কেট গবেষণা প্রতিষ্ঠান গার্টনারের দেওয়া তথ্যমতে, ২০২৩ সাল নাগাদ স্মার্টফোন বাজারের ৫ শতাংশ থাকবে ফোল্ডেবল ফোনের দখলে। ২০২৫ সাল নাগাদ এ ডিজাইনের ফোনের সরবরাহ বেড়ে দাঁড়াবে ১০০ মিলিয়ন। গত বছর বাজারে ১.৩৮ কোটি ফোন সরবরাহ করা হয়। সে হিসাবে ১০০ মিলিয়ন সংখ্যাটি মোটেও বেশি নয়।

শুধু অ্যাপল নয়, গুগলও ফোল্ডেবল ফোনের বাজার থেকে দূরে রয়েছে। ফোল্ডেবল ফোন নিয়ে কাজ শুরু করলেও এখনই তা বাজারে আনবে না টেক জায়ান্টটি।

বিজনেস ইনসাইডার অবলম্বনে এজেড/ সেপ্টেম্বর ১৩/২০২০/১৩১৫

আরও পড়ুন

নতুন ফোল্ডেবল ফোন আনলো স্যামসাং

মাইক্রোসফটের ফোল্ডেবল ফোন আসছে সেপ্টেম্বরে

মেট এক্সের মতো ফোল্ডেবলের পেটেন্ট নিয়েছে শাওমি!

*

*

আরও পড়ুন