গত সপ্তাহে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কোম্পানিটি জানিয়েছে, পার্সোনাল কম্পিউটার ব্যবসার অবশিষ্ট শেয়ার শার্প কোম্পানির কাছে বিক্রি করা হয়েছে।

২০১৮ সালেই শার্পের কাছে কম্পিউটার ব্যবসার ৮০.১ শতাংশ বিক্রি করে তোশিবা। মালিকানা পেয়ে তোশিবা ল্যাপটপ ডাইনাবুক নামে বাজারে আনে শার্প। এবার বাকি থাকা ১৯.৯ শতাংশ শেয়ারও বিক্রি করেছে তোশিবা। জুনেই শেয়ার বিক্রির পুরো প্রক্রিয়া শেষ হয়।

৩৫ বছর ধরে কম্পিউটার ব্যবসায় সক্রিয় ছিলো তোশিবা। সর্বপ্রথম ১৯৮৫ সালে টি১১০০ নামে একটি ল্যাপটপ বাজারে আনে কোম্পানিটি। এতে ছিলো ইন্টারনাল রিচার্জেবল ব্যাটারি, এলসিডি স্ক্রিন ও ৩.৫ ইঞ্চির ফ্লপি ডিস্ক। এই ল্যাপটপের ফিচারগুলো স্ট্যান্ডার্ড হিসেবে ধরে আগামী দুই দশকে প্রচুর কম্পিউটার বানানো হয়।

৯০ ও ২০০০ এর দশকেও তারা দাপটের সঙ্গে ব্যবসা করে। নিয়মিতভাবে শীর্ষ ৫ কম্পিউটার উৎপাদনকারী কোম্পানির তালিকায়ও তাদের নাম থাকতো। পরবর্তীতে অ্যাপল, ডেল, এইচপি ও লেনোভোর সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পিছিয়ে পড়ে তোশিবা। এরপরই ৩৬ মিলিয়ন ডলারে শার্পের কাছে সিংহভাগ ব্যবসা বিক্রি করে দেয় জাপানিজ কোম্পানিটি।

গিজমোদো অবলম্বনে এজেড/আগস্ট ০৯/২০২০/১৩৪০

আরও পড়ুন –

তোশিবার চিপ ইউনিট কিনতে চায় ৩ জায়ান্ট 

সাত হাজার কর্মী ছাঁটাই করবে তোশিবা

ফক্সকন কিনতে চায় তোশিবার চিপ ব্যবসা