ক্যাশলেস ট্রানজেকশনের দিকে ঝুঁকছে দেশ

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বিশ্বে ব্যবসা-বাণিজ্যে যে  পরিবর্তন হয়েছে বাংলাদেশও তার ব্যতিক্রম নয়। এখানেও ব্যবসা ও প্রযুক্তি খাতে বড় ধরনের রূপান্তর শুরু হয়েছে। বিশেষ করে দ্রুত পরিবর্তন ঘটেছে কেনাকাটার ধরনের।

শনিবার প্রধান তথ্যপ্রযুক্তি কর্মকর্তাদের সংগঠন সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ আয়োজিত দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সংগঠনগুলোর প্রধানদের নিয়ে এক ভার্চুয়াল সম্মেলনে বর্তমান বিশ্ব ও দেশের অবস্থা তুলে ধরা হয়।

‘লিডারস থট ইন নিউ নরমাল’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে সিটিও ফোরামের সভাপতি তপন কান্তি সরকারের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির সভাপতি শহিদ উল মুনির, বাংলাদেশ কল সেন্টার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান শরিফ, ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার সংগঠনের সভাপতি এম এ হাকিম এবং ইক্যাবের সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াহেদ তমাল।

বক্তারা বলেন, কোভিড-১৯ বা করোনা মহামারি সাধারণ জীবনযাত্রাকে বড় এক ধাক্কা দিয়েছে। জীবন যাত্রায় অনেক সূক্ষ্ম থেকে বৃহৎ পরিবর্তন ঘটিয়ে দিচ্ছে।

এই কোভিড-১৯ জীবন থেকে কবে যাবে বা আদৌ যাবে কি না বা এর ভ্যাকসিন বের হবে কিনা বা হলেও কত দিন বা বছর লাগবে তা নিয়ে বক্তারা সংশয় প্রকাশ করে বলেন, এ নিয়ে বসে থাকলে চলবে না।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে সীমিত আকারে পাঠদান শুরু করেছে। বিজনেস মিটিংগুলো থেকে শুরু করে ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের এজিএম  এমনকি সামাজিক দেখা সাক্ষাতও অনলাইন মিটিং টুল গুলোর মাধ্যমে সম্পন্য হচ্ছে। বেশিরভাগ কেনাকাটা অনলাইনে হচ্ছে, যেখানে না হলেই নয় এমন সব বাদে ক্যাশলেস ট্রানজেকশনই বেশি ব্যাবহার হচ্ছে।

বক্তারা আরো বলেন, পারিবারিক, ব্যাবসায়িক, চাকরি পরিশেষে অর্থনৈতিক বা সামাজিক সব ক্ষেত্রেই ঘটছে পরিবর্তন। কিন্তু এই পরিবর্তন সাময়িক নয়। এই সকল পরিবর্তন এর মধ্যে বেশ কিছু নতুন ব্যাবস্থা আমাদের জীবন ধারায় স্থায়ী ভাবে রয়ে যাবে। আমরা এই নতুন জীবন ধারাকেই স্বাভাবিক ভাবে নিয়ে জীবন চলতে শুরু করব।

আমাদের চলাফেরায় আসবে পরিবর্তন। আমাদের ব্যাবসা বাণিজ্যে আসবে নতুনত্ব। আমাদের অফিস কালচার হোম অফিস কেন্দ্রিক। জীবন ব্যবস্থার বা লাইফস্টাইলের এই নতুন অবয়বকেই বক্তারা নিউ নরমাল বলে উল্লেখ করেন।

সিটিও ফোরামের সভাপতি তপন কান্তি সরকার তথ্যপ্রযুক্তি খাতে কর্মরতদের সামনের দিনগুলোকে নতুন চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিতে বলেন।

অনলাইনে ওই সম্মেলনে শতাধিক ব্যক্তি যুক্ত ছিলেন বলে জানায় সিটিও ফোরাম।

ইএইচ/জুলাই১২/২০২০/ ১১৪০

*

*

আরও পড়ুন