ইন্টারনেটে ভ্যাট নিয়ে এনবিআরকে লিগ্যাল নোটিশ, মামলার প্রস্তুতি

ispab-techshohor

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে ভ্যাট জটিলতা নিয়ে এনবিআরকে লিগ্যাল নোটিশ দিয়েছে আইএসপিএবি।

নোটিশে সাত দিনের মধ্যে এই ভ্যাট জটিলতা সমাধানের পদক্ষেপ নেয়ার আহবান জানালেও নোটিশের বিপরীতে এনবিআর এ বিষয়ে সাড়া দেইনি।

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট খাতে ৫ শতাংশ এবং ১৫ শতাংশ ভ্যাটের জটিলতার নিরসন চাইছে সংগঠনটি।

Techshohor Youtube

ইন্টারনেট সেবাদাতাদের সংগঠন আইএসপিএবির সভাপতি আমিনুল হাকিম টেকশহরডটকমকে জানান, ‘এনবিআরকে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়েছে। নির্দিষ্ট সময় পেরিয়ে গেলেও এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো সাড়া পাইনি। আমরা এখন হাইকোর্টে রিট মামলার প্রস্তুতি নিয়েছি রেখেছি।’

তিনি জানান, গত অর্থ বছরে ইন্টারনেটে ৫ শতাংশ ভ্যাট এবং ভ্যালু চেইনের অন্যান্য (আইটিসি, আইআইজি, এনটিটিএন) খাতে ১৫ শতাংশ ভ্যাট নির্ধারিত হওয়ায় ইন্টারনেট সেবা খাতে জটিলতা সৃষ্টি হয়।

আমিনুল হাকিম বলেন, এই জটিলতা নিরসনে তৎকালীন অর্থমন্ত্রীর নেতৃত্বে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী, এনবিআর চেয়ারম্যান এবং বিটিআরসি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে একটি সভা হয়। সভার আলোচনায় ইন্টারনেটের প্রতিটি স্তরে (আইটিসি, আইআইজি, এনটিটিএন) ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপের সিদ্ধান্ত হয়। পরে সে অনুযায়ী ইন্টারনেটের প্রতিটি স্তরে ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে এনবিআর।

‘কিন্তু এর কয়েক মাসের ব্যবধানে চলতি অর্থবছরের বাজেটে পুনরায় ইন্টারনেট সেবায় শতাংশ ভ্যাট এবং অন্যান্য স্তরে (আইটিসি, আইআইজি, এনটিটিএন) ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করায় সাবেক অর্থমন্ত্রীর নের্তত্বে সমাধান করা বিষয়টিতে আবারও আগের জটিলতা সৃষ্টি হয়। এর ফলে প্রান্তিক পর্যায়ে ইন্টারনেটের মূল্য ৩০ শতাংশ থেকে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ছে’ বলছিলেন আইএসপিএবি সভাপতি।

এভাবে ভ্যাট আরোপকে বৈষম্যমূলক এবং মূসক আইনের পরিপন্থি’ উল্লেখ করেন তিনি।

এরমধ্যে ভ্যাটের জটিলতা নিরসন না হলে আগস্ট হতে নির্দিষ্ট সময়ে সারাদেশে ইন্টারনেট বন্ধের হুমকি দিয়ে রেখেছে সংগঠনটি।

এডি/২০২০/জুলাই০৮/১৮০০

আরও পড়ুন –

ভ্যাট জটিলতা, ইন্টারনেট ‘বন্ধের’ কর্মসূচি ভাবছে আইএসপিএবি 

আইএসপিএবির নেতৃত্বে আবারও হাকিম-ইমদাদ 

সাধারণের কাতারে ‘এলিট’ আইএসপিএবি

*

*

আরও পড়ুন