টিকটক নিষিদ্ধে খুশি ভারতীয়রা!

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ভারত সরকার টিকটক নিষিদ্ধ করার পর দেশটির নেটিজেন এবং অনেক টিকটকার খুশি হয়েছেন। 

সামাজিক মাধ্যম প্লাটফর্মগুলোতে অনেকেই চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধের পর স্তুতি প্রকাশ করেছেন সরকারের উপর। তারা বলছেন, এসব অ্যাপ দেশের তথ্য সুরক্ষার জন্য হুমকি ছিল। 

ছোট ভিডিও তৈরির অ্যাপটি অ্যাপলের অ্যাপ স্টোর এবং গুগলের প্লে স্টোর থেকে সরিয়ে নেবার পর টুইটারে হ্যাশট্যাগ দিয়ে  #RIPTikTok নামে নতুন ট্রেন্ডিং চালু করেছে অনেকেই। 

অনেকেই নানা ধরনের মেম বানাচ্ছে, ট্রল করছে এমনকি নানা ধরনের হাস্যরসাত্মক সব বিষয় শেয়ার করছেন সামাজিক মাধ্যমে।

দেশটির বামপন্থীরা অবশ্য প্রধানম্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ফান্ডে টিকটক যে ৩০ কোটি রুপি করোনা মোকাবিলায় দান করেছে সেটিও ফেরত দেবার দাবি তুলেছেন।  

কিন্তু এতো কিছু করে প্রসংশা করলেও অনেকেই এর বিরুদ্ধেও কথা বলেছেন, নাম প্রকাশ না করে ভারতীয় কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে তাদের বক্তব্য ছাপা ও প্রকাশ পেয়েছে। 

অনেকেই টিকটক একটা পেশা হিসেবেও নিয়েছিলেন দেশটিতে। বনে গেছেন টিকটক সেলিব্রেটি। তাদের কয়েকজন বলেছেন, চীনা অ্যাপ হলেও টিকটক বন্ধ করা ঠিক হয়নি। সরকার বরং উচিত যে অ্যাপটি যদি ডেটা বিদেশে পাচার করে তবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া, সেগুলো বন্ধ করা। অ্যাপ বন্ধ সমাধান হতে পারে না।

টিকটক অ্যাপ ডাউনলোডের পরিমাণ বিশ্বব্যাপী ২০০কোটির বেশি। একক কোনো দেশ হিসেবে ভারতেই এর ডাউনলোড প্রায় ৭০ কোটি। এমনকি সক্রিয় ব্যবহারকারীও ভারতেই সচেয়ে বেশি।  

গতকাল সোমবার দেশটিতে টিকটকসহ ৫৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হয়। লাদাখ সীমান্তে গত ১৫ জুন ভার-চীন সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষে ভারতের ২০ সেনা নিহত ও ৭৬ সেনা আহত হয়। এরপর পুরো ভারতজুড়ে চীনা পণ্য বর্জনের ডাক দেয় বিভিন্ন মহল। এমন এক সময়েই ভারত সরকার চীনা এসব অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে। 

ইন্টারনেট অবলম্বনে ইএইচ/জুন৩০/২০২০/২০১০

*

*

আরও পড়ুন