চীনা মিলিটারির সমর্থনপুষ্ট হুয়াওয়ে, দাবি যুক্তরাষ্ট্রের

Huawei-UK-techshohor
ছবি : ইন্টারনেট

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় দাবি করেছে, তারা নিশ্চিত হয়েছে হুয়াওয়েসহ চীনের ২০টি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হয় চীনের সামরিক বাহিনীর মালিকানাধীণ কিংবা তাদের উপর সামরিক বাহিনীর সমর্থন রয়েছে।

যুক্তারষ্ট্রের গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, ওই তালিকায় রয়েছে নরজদারীর প্রতিষ্ঠান হিকভিশন, চাইনা টেলিকম, চাইনা মোবাইল এবং এভিআইসি।

এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা হতে পারে বলেও আভাস দিয়েছে বিবিসি।

Techshohor Youtube

এটি এমন এক সময় প্রকাশ করা হলো যখন যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে হুয়াওয়েকে নিয়ে নানা ধরনের টানাপোড়েন দেখা যাচ্ছে। এমনকি এর ফলে একটা বাণিজ্য যুদ্ধে জড়িয়েছে দুটি দেশ।

চীনের প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো কীভাবে স্পর্শকাতর প্রযুক্তি দেশটির সামরিক বাহিনীর কাছে পাচার করছে, মার্কিন কংগ্রেশনাল কমিটি, ব্যবসায়ী, বিনিয়োগকারী ও চীনা ব্যবসায়ে মার্কিন অংশীদারদের জানানোর জন্যই এই তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের আইন অনুযায়ী, চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির ‘মালিকানাধীন বা নিয়ন্ত্রিত’ প্রতিষ্ঠান যারা যুক্তরাষ্ট্রে কর্মরত আছে তাদের বিষয়ে খোঁজখবর রাখা দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব।

এই তালিকা প্রকাশের জন্য সাম্প্রতিক সময়গুলোতে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান উভয় দলের পক্ষ থেকে পেন্টাগনের উপর চাপ বাড়ছিল। এবার সেই তালিকা প্রকাশ করা হলো।

এর আগে ২০১৯ সালের মে মাসে দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা ইস্যুতে হুয়াওয়েকে ব্যবসা করার ক্ষেত্রে কালো তালিকাভুক্ত করে যুক্তরাষ্ট্র সরকার।

বিবিসি অবলম্বনে ইএইচ/জুন২৫/২০২০/ ১৫০০

আরও পড়ুন –

হঠাৎই হুয়াওয়ের প্রতি সন্দেহ বাড়িয়েছে যুক্তরাজ্য! 

যুক্তরাষ্ট্রে আরও কঠিন হচ্ছে হুয়াওয়ের ব্যবসা 

করোনার সময়েও হুয়াওয়ের আয় বেড়েছে 

যুক্তরাষ্ট্রের নেটওয়ার্কে নিষিদ্ধ হচ্ছে হুয়াওয়ে-জেডটিই!

*

*

আরও পড়ুন